¦
নবীজী বলেছেন

মোহাম্মাদ ইয়াছিন মজুমদার | প্রকাশ : ১৭ এপ্রিল ২০১৫

রাসূল (সা.) বলেছেন, যে ব্যক্তি দাড়ি ও গোঁফের মধ্যবর্তী অঙ্গে (মুখের) ও দুই রানের মধ্যবর্তী অঙ্গের (লজ্জা স্থানের) জিম্মাদার হবে অর্থাৎ এ গুলোকে অন্যায়ভাবে ব্যবহার করবে না, আমি তার জান্নাতের জিম্মাদার হব (তিরমিজি)। রাসূল (সা.)কে প্রশ্ন করা হল কোন মুসলিম উত্তম? তিনি বললেন, যার মুখের ও হাতের অনিষ্ট থেকে অপর মুসলিম নিরাপদ (বোখারি মুসলিম)। মগজ ও হৃৎপিণ্ডকে মানুষের চিন্তার মূল উৎস মনে করা হয়। মগজের সঙ্গে জালের মতো অতি সূক্ষ্ম স্নায়ুতন্ত্র সারা দেহে ছড়িয়ে আছে। আমাদের পায়ে কাঁটা ফুটলে ওই স্নায়ুতন্ত্র তা আমাদের মস্তিষ্কে পৌঁছে দেয়। আমাদের সুখ-দুঃখের অনুভূতি এর মাধ্যমে নিয়ন্ত্রিত। আমাদের মস্তিষ্ক থেকে নির্দেশনা না এলে আমরা কোনো অঙ্গ পরিচালনা করতে সক্ষম হব না। এ জন্য ব্রেনস্ট্রোক করলে অঙ্গ অচল হয়। অপরদিকে আমাদের হৃৎপিণ্ডের সঙ্গে রয়েছে সমগ্র দেহের শিরার সংযোগ। হৃৎপিণ্ড পাম্প করে পরিশুদ্ধ রক্ত শিরার মাধ্যমে সারা দেহে ছড়িয়ে দেয়। একজন মানুষের হৃৎদপিণ্ড প্রতি মিনিটে ছয় লিটার রক্ত পাম্প করছে। সে হিসাবে দৈনিক আট হাজার ছয়শত চল্লিশ লিটার এবং একজন ব্যক্তির জীবনে দুই থেকে তিন লাখ টন রক্ত পাম্প করছে। শিশু মায়ের গর্ভে থাকতেই হৃৎপিণ্ড কাজ শুরু করে এবং অবিরাম কাজ করে যায়। আমাদের বুকে হাত দিলে ধুক ধুক শব্দে আমরা হার্টবিটের এ শব্দ শুনতে পাব। মিনিটে ৭৬ বার থেকে ১৪০ বার এ হার্টবিট রক্ত পাম্পের জন্য প্রকোষ্ট নড়াচড়া করছে। আমরা ঘুমিয়ে থাকলেও তার কাজ চলতে থাকে। এক মুহূর্তের জন্যও থেমে থাকে না। যদি থেমে যায় মৃত্যু অনিবার্য। সর্বক্ষণ কর্মরত এ হৃৎপিণ্ডের কাজের প্রতি লক্ষ্য রেখে আমরাও যেন সর্বক্ষণ আল্লাহকে স্মরণ রাখি, গাফেল না হই, পাপ পংকিলতা থেকে মুক্ত থাকি।
 

ইসলাম ও জীবন পাতার আরো খবর
৭ দিনের প্রধান শিরোনাম

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৮৪১৯২১১-৫, রিপোর্টিং : ৮৪১৯২২৮, বিজ্ঞাপন : ৮৪১৯২১৬, ফ্যাক্স : ৮৪১৯২১৭, সার্কুলেশন : ৮৪১৯২২৯। ফ্যাক্স : ৮৪১৯২১৮, ৮৪১৯২১৯, ৮৪১৯২২০

Developed by
close
close