¦
ছাত্রলীগে নতুন নেতৃত্ব আসছে

বিশ্ববিদ্যালয় রিপোর্টার | প্রকাশ : ০৯ মে ২০১৫

নানা জল্পনা-কল্পনার অবসান ঘটিয়ে আগামী ২৫-২৬ জুলাই হতে যাচ্ছে বাংলাদেশ ছাত্রলীগের ২৮তম জাতীয় সম্মেলন। বর্তমান কমিটি দায়িত্ব গ্রহণের প্রায় চার বছর অতিবাহিত হওয়ার পর এ ঘোষণা এলো। শুক্রবার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের মধুর ক্যান্টিনে সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে এ তারিখ ঘোষণা করেন ছাত্রলীগ সভাপতি এইচএম বদিউজ্জামান সোহাগ।
সংবাদ সম্মেলনে কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগ ছাড়াও সংগঠনটির অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ তিনটি ইউনিটের সম্মেলনের তারিখ ঘোষণা করা হয়। ঘোষণা অনুযায়ী আগামী ১১ জুন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়, ২৮ মে ঢাকা মহানগর উত্তর, ৩০ মে ঢাকা মহানগর দক্ষিণ শাখা ছাত্রলীগের সম্মেলন অনুষ্ঠিত হবে। তবে উল্লিখিত তারিখেই শাখা তিনটির পরবর্তী নেতৃত্ব ঘোষণা দেয়া হবে কিনা- এ বিষয়টি নিশ্চিত করেননি ছাত্রলীগ সভাপতি এইচএম বদিউজ্জামান সোহাগ। তিনি যুগান্তরকে বলেন, সম্মেলনের তারিখ ঘোষণা হওয়া মানেই নতুনদের কাছে নেতৃত্ব তুলে দেয়া। সম্মেলনের দিন ঠিক করা হবে, পরবর্তী নেতৃত্ব কবে ঘোষণা করা হবে। এ ক্ষেত্রে যেভাবে করলে সংগঠনের জন্য ভালো হবে সেভাবেই করা হবে।
সংবাদ সম্মেলনে ছাত্রলীগ সভাপতি এইচএম বদিউজ্জামান সোহাগ লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন। স্বাগত বক্তব্য দেন ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক সিদ্দিকী নাজমুল আলম। উপস্থিত ছিলেন সহসভাপতি জয়দেব নন্দী, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক শামসুল কবির রাহাত, মোস্তাফিজুর রহমান মোস্তাক, শারমিন সুলতানা লিলি, সাংগঠনিক সম্পাদক এসএম তরিকুল ইসলাম, দফতর সম্পাদক শেখ রাসেল, সমাজসেবা সম্পাদক কাজী এনায়েত, পরিবেশবিষয়ক সম্পাদক সাইফুর রহমান সোহাগ, ক্রীড়া সম্পাদক আবিদ আল হাসান, তথ্য ও গবেষণা সম্পাদক এরশাদুর রহমান চৌধুরী, ঢাবি ছাত্রলীগ সভাপতি মেহেদী হাসান মোল্লা, সাধারণ সম্পাদক ওমর শরীফ, ঢাকা মহানগর উত্তরের সভাপতি এসএম রবিউল ইসলাম সোহেল, সাধারণ সম্পাদক আজিজুল হক রানা, ঢাকা মহানগর দক্ষিণের সভাপতি আনিসুর রহমান আনিস, সাধারণ সম্পাদক শেখ আনিসুজ্জামান রানা প্রমুখ।
ছাত্রলীগ সভাপতি বলেন, আমাদের সংগঠনে অনেক নেতাকর্মী থাকার কারণে নেতৃত্ব নিয়ে রয়েছে তুমুল প্রতিযোগিতা। তাই দীর্ঘদিন পদ আঁকড়ে থাকার কোনো সুযোগ নেই। নতুনদের জায়গা করে দিতে হবে। সেই লক্ষ্যেই ২৮তম জাতীয় সম্মেলনের তারিখ ঘোষণা করা হয়েছে। এবারের সম্মেলনের মধ্য দিয়ে পরিশ্রমী, মেধাবী, উদ্যমী নেতৃত্ব আসবে এমনটাই প্রত্যাশা। যেসব নেতাকর্মী বিগত দিনে দলীয় শৃংখলা মেনে, দলীয় আদেশ-নির্দেশ মেনে কাজ করেছেন তারাই নেতৃত্বে আসবেন।
বর্তমান কমিটি মেয়াদোত্তীর্ণ হওয়ার দুই বছর পর নতুন কমিটি কেন- সাংবাদিকদের এমন প্রশ্নের জবাবে সোহাগ বলেন, ছাত্রলীগ প্রতিষ্ঠার ৬৮ বছরে ২৮তম সম্মেলন হতে যাচ্ছে। এর থেকেই বোঝা যায় যে, সময়ের পরিপ্রেক্ষিতে এবং বিভিন্ন বাস্তবতার কারণে সব সময় নিয়মিত সম্মেলন করা সম্ভব হয়ে ওঠে না। উল্লেখ্য, ছাত্রলীগের সর্বশেষ সম্মেলনের মধ্য দিয়ে ২০১১ সালের ১০ জুলাই বর্তমান কমিটি দায়িত্বে আসে।
সংবাদ সম্মেলন থেকে আগামী ১০ জুলাইয়ের মধ্যে সব জেলা শাখাকে কাউন্সিলর তালিকা কেন্দ্রীয় দফতরে জমা দেয়ার জন্য নির্দেশ দেয়া হয়েছে। যেসব জেলা শাখা এখনও পূর্ণাঙ্গ কমিটি অনুমোদন করায়নি তাদের আগামী এক সপ্তাহের মধ্যে পূর্ণাঙ্গ কমিটি অনুমোদন করিয়ে নেয়ার জন্যও নির্দেশ দেয়া হয়। সংবাদ সম্মেলনে নতুন করে ১৬টি ইউনিটের সম্মেলনের তারিখ ঘোষণা করা হয়। এ ছাড়া যেসব শাখার কমিটি এখনও হয়নি তা পরে জানিয়ে দেয়া হবে বলে জানান ছাত্রলীগ সভাপতি।
ছাত্রলীগ নিয়ে বিভিন্ন অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে ছাত্রলীগ সভাপতি বলেন, যখনই কোনো শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে সংকট সৃষ্টি হয়েছে আমরা ছুটে গিয়েছি। অনিয়মের খবর যখনই পেয়েছি তদন্ত করে তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিয়েছি। এর ফলে কেন্দ্রীয় কমিটির নেতাসহ প্রায় ৬৫০ জন নেতাকর্মীকে নানা অভিযোগে সংগঠন থেকে বহিষ্কার করা হয়েছে।
আনন্দ মিছিল : এদিকে ভারতে স্থলসীমান্ত চুক্তি বিল পাস এবং ব্রিটিশ পার্লামেন্টে বাংলাদেশীদের জয়ে আনন্দ মিছিল করে ছাত্রলীগ। সংবাদ সম্মেলন শেষে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের মধুর ক্যান্টিন থেকে আনন্দ মিছিলটি শুরু হয় এবং বিশ্ববিদ্যালয়ের কলাভবন ঘুরে টিএসসির রাজু ভাস্কর্যের পাদদেশে গিয়ে এক সমাবেশের মাধ্যমে শেষ হয়। সমাবেশে কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগ, ঢাবি ছাত্রলীগ ও মহানগর ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।
শেষ পাতার আরো খবর
৭ দিনের প্রধান শিরোনাম

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৮৪১৯২১১-৫, রিপোর্টিং : ৮৪১৯২২৮, বিজ্ঞাপন : ৮৪১৯২১৬, ফ্যাক্স : ৮৪১৯২১৭, সার্কুলেশন : ৮৪১৯২২৯। ফ্যাক্স : ৮৪১৯২১৮, ৮৪১৯২১৯, ৮৪১৯২২০

Developed by
close
close