¦
মুক্তিযুদ্ধে বন্দর আঞ্চলিক যুদ্ধের দায়িত্বপূর্ণ সংকলন

| প্রকাশ : ০৮ মে ২০১৫

বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধ প্রকৃতপক্ষে একটি গণযুদ্ধ। এই গণযুদ্ধে অংশগ্রহণ করেছেন দেশের আপামর জনগণ। একেবারে সামরিক অভিজ্ঞতাহীন তরুণ কিশোররা মাত্র মাস খানেকের প্রশিক্ষণে কী অসাধারণ অকুতোভয় যোদ্ধায় পরিণত হয়েছে তা ভাবলে অবাক হতে হয়। মাঠের সেই সব মুক্তিযোদ্ধাদের প্রত্যক্ষ স্মৃতিচারণমূলক লেখায় সমৃদ্ধ হয়ে বেরিয়েছে ‘মুক্তিযুদ্ধে বন্দর’ বইটি। জাহাঙ্গীর নগর বিশ্ববিদ্যালয়ের ইতিহাস বিভাগের শিক্ষক নারায়ণগঞ্জ বন্দরের সন্তান একেএম শাহনাওয়াজ-এর সম্পাদনায় প্রকাশিত এই বইটি আঞ্চলিক মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাসের এক মূল্যবান প্রামাণ্য দলিল।
প্রত্যক্ষ যুদ্ধে নারায়ণগঞ্জ বন্দরে যারা অংশগ্রহণ করেছেন এমন কয়েকজন মুক্তিযোদ্ধার লেখা ছাপা হয়েছে এই বইয়ে। মাতৃভূমির স্বাধীনতা অর্জনে এই মুক্তিযোদ্ধাদের যে কী অপরিমেয় দেশপ্রেম ছিল তা এই লেখাগুলোয় ফুটে উঠেছে। এই যোদ্ধারা যেমন মাতৃভূমি দখল করে নেয়া হানাদার বাহিনীর কবল থেকে দেশ উদ্ধারে ছিলেন দৃঢ়প্রতিজ্ঞ তেমনই একই সঙ্গে দেশের সম্পদ, দেশবাসীর প্রাণও ছিল তাদের কাছে মূল্যবান। তারা চেষ্টা করেছেন কত কম প্রাণ ক্ষয়ে পাক হানাদার বাহিনীকে পরাজিত এবং বিতাড়িত করে মাতৃভূমির স্বাধীনতা অর্জন করা যায়। স্বাধীনতা উত্তর দেশেও তারা দেশের সম্পদ রক্ষায়ও ছিলেন দৃঢ়প্রতিজ্ঞ।
২৪০ পৃষ্ঠার এই বইয়ে নারায়ণগঞ্জ বন্দর এলাকার স্থানীয় যুদ্ধগুলোর বিশদ বিবরণ উঠে এসেছে। স্থান পেয়েছে মুক্তিযোদ্ধাদের ছবি, পরিচিতি এবং তালিকা।
মুক্তিযুদ্ধ নিয়ে আঞ্চলিক যুদ্ধের ওপর এমন দায়িত্বপূর্ণ সংকলন অনেক জেলারই নেই। সেদিক থেকে এই বইটি হতে পারে একটি গ্রহণযোগ্য উদাহরণ- স্থানীয় মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ে। প্রশংসনীয় এই সংকলনের একমাত্র ত্রুটি অনেক মুদ্রণ প্রমাদ। আমরা আশা করি বইটির পরবর্তী সংস্কারণে এই মুদ্রণ প্রমাদ এড়িয়ে প্রকাশ করা সম্ভব হবে।
বইটি সম্পাদনার জন্য একেএম শাহনাওয়াজ এবং তার সহযোগী সম্পাদনা পরিষদকে ধন্যবাদ জানানো প্রয়োজন।
শুচি সৈয়দ
মুক্তিযুদ্ধে বন্দর। নারায়ণগঞ্জের মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাস। সম্পাদনা : একেএম শাহনাওয়াজ প্রকাশক : নভেল পাবলিশিং হাউস, ঢাকা : প্রকাশকাল : ফেব্রুয়ারি ২০১৫। মূল্য : ৪০০ টাকা
 

সাহিত্য সাময়িকী পাতার আরো খবর
৭ দিনের প্রধান শিরোনাম

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৮৪১৯২১১-৫, রিপোর্টিং : ৮৪১৯২২৮, বিজ্ঞাপন : ৮৪১৯২১৬, ফ্যাক্স : ৮৪১৯২১৭, সার্কুলেশন : ৮৪১৯২২৯। ফ্যাক্স : ৮৪১৯২১৮, ৮৪১৯২১৯, ৮৪১৯২২০

Developed by
close
close