¦
টুকিটাকি

| প্রকাশ : ২৩ ডিসেম্বর ২০১৫

‘টাকা দিন ভোটও দিন, পৌরবাসী সেবা নিন’
সিরাজগঞ্জ প্রতিনিধি
‘স্বশাসিত স্থানীয় সরকার গড়ে তোল, জনগণের ক্ষমতায়ন নিশ্চিত কর’ এ স্লোগানকে সামনে রেখে সিরাজগঞ্জ সদর পৌরসাভা নির্বাচনে মেয়র প্রার্থী হয়েছেন বাসদ-সিপিবি সমর্থিত প্রার্থী নবকুমার কর্মকার (মই মার্কা)। এবারের নির্বাচনে সিরাজগঞ্জ সদর পৌরসভায় মোট ৭ জন প্রার্থী মেয়র পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। এসব প্রার্থীর মধ্যে তার ব্যতিক্রমী প্রচারণা পৌরবাসীর দৃষ্টি আকর্ষণ করতে সক্ষম হয়েছে। এ প্রার্থী ও তার কর্মীদের ‘টাকা দিন ভোটও দিন, পৌরবাসী সেবা নিন’- এ অভিনব কৌশলকে বেশ ভালোভাবেই উপভোগ করছেন ভোটাররা। যুক্তিবাদী এ মেয়র প্রার্থীর এসব পথসভায় তার ‘টাকা দিন ভোটও দিন, পৌরবাসী সেবা নিন’ এমন আহ্বানে সাড়া দিয়ে অনেকেই এগিয়ে আসছেন। স্বতঃস্ফূর্তভাবে যে যেমন পারেন সাহায্য করে যাচ্ছেন সেই সঙ্গে প্রতিশ্র“তিও দিয়ে যাচ্ছেন ভোট দেবেন বলে। প্রতিদিনের নির্বাচনের যে খরচ দরকার হয় এ টাকাতেই তা মিটে যায় অনায়াসে।
অবশেষে প্রতীক পেলেন কাউন্সিলর প্রার্থী
কুড়িগ্রাম প্রতিনিধি
অবশেষে বিড়ম্বনার অবসান ঘটল কাউন্সিলর প্রার্থী আবদুল মোত্তালেব লিজারের। কুড়িগ্রাম পৌরসভার ৯নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর প্রার্থী আবদুল মোত্তালেব লিজার মার্কা পেয়েছেন টেবিল ল্যাম্প। হাইকোর্টের আদেশে রিটার্নিং অফিসার ও অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) আক্তার হোসেন আজাদ সোমবার কাউন্সিলার প্রার্থী আবদুল মোত্তালেব লিজারের মনোনয়নপত্র বৈধ্য ঘোষণা করে টেবিল ল্যাম্প মার্কা বরাদ্দ দেন। জানা যায়, তথ্য গোপনের অভিযোগে রিটার্নিং অফিসার মনোনয়নপত্র বাতিল করলে আবদুল মোত্তালেব লিজার আপিল করেন জেলা প্রশাসক খান মো. নুরুল আমিনের কাছে। আপিল কর্তৃপক্ষ আগের আদেশ বহাল রাখেন। পরে হাইকোর্টে রিট দায়ের করলে বিচারক তার প্রার্থিতা বৈধ ঘোষণা করেন।
জলঢাকায় প্রার্থীদের নিয়ে মতবিনিময় সভা
জলঢাকা, প্রতিনিধি
নীলফামারী জলঢাকা পৌরসভার নির্বাচন অবাধ, সুষ্ঠু ও শান্তিপূর্ণ করতে কঠোর অবস্থানে রয়েছে প্রশাসন। নির্বাচনকে প্রভাবমুক্ত রাখতে করণীয় সবকিছুই করা হবে বলে প্রার্থীদের জানিয়ে দেয়া হয়েছে। মঙ্গলবার সকালে উপজেলা হলরুমে প্রার্থীদের নিয়ে এক মতবিনিময় সভায় প্রশাসনের কর্মকর্তারা এমন কথা জানিয়েছেন। এ সময় বক্তব্য দেন নীলফামারীর জেলা প্রশাসক জাকির হোসেন, জেলা পুলিশ সুপার জাকির হোসেন, জেলা সিনিয়র পুলিশ সুপার এএনএম সাজেদুর রহমান, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা হাসান হাবিব, সহকারী ভূমি কমিশনার মিজানুর রহমান, নির্বাচন কর্মকর্তা সেকেন্দার আলী প্রমুখ।
ধামরাইয়ে দুই সহোদরের ভোটযুদ্ধ
ধামরাই (ঢাকা) প্রতিনিধি
ঢাকার ধামরাই পৌরসভায় একই ওয়ার্ডে কাউন্সিলর পদে আপন দুই ভাই ভোটযুদ্ধে লড়ছেন। তারা পৌরসভার ৩নং ওয়ার্ডের আইনগন মহল্লার বাসিন্দা। এ নিয়ে এলাকাবাসীর মাঝে দারুণ কৌতূহল ও আলোড়ন সৃষ্টি হয়েছে। একই বাড়ির এ দুই কাউন্সিলর প্রার্থী নিয়ে রীতিমতো পাড়া-মহল্লা, ক্লাব, শিক্ষা ও ব্যবসা প্রতিষ্ঠান, সেলুন এবং চায়ের দোকানে চলছে আলোচনা ও সমালোচনার ঝড়। কাউন্সিলর প্রার্থী এ দুই সহোদরের মধ্যে দীর্ঘদিন ধরে জমিজমাসহ বিভিন্ন পারিবারিক বিরোধ চলে আসায় তারা কেউ কাউকে ছাড় দিচ্ছেন না। এ ওয়ার্ডের গত উপনির্বাচনেও তারা দুই ভাই যথাক্রমে মো. আবদুর রহমান (সাবেক মেম্বার) ও রেজাউল করিম লালমিয়া প্রতিদ্বন্দ্বিতা করায় এ পরিবারের নিশ্চিত বিজয় হাতছাড়া হয়ে যায়।
দৌলতখানে কেঁদে ফেললেন মেয়র প্রার্থী
দৌলতখান প্রতিনিধি
ভোলার দৌলতখান পৌরসভা নির্বাচন সুষ্ঠুভাবে পরিচালনার লক্ষ্যে মঙ্গলবার সকালে উপজেলা পরিষদ সভা কক্ষে আয়োজিত আইনশৃংখলা বিশেষ সভায় বক্তব্য দিতে গিয়ে হাউমাউ করে কেঁদে ফেললেন বিএনপির মেয়র প্রার্থী আনোয়ার হোসেন কাকন। অনুষ্ঠান পরিচালক ভোলার জেলা প্রশাসক মো. সেলিম রেজা বিএনপির প্রার্থীকে তার পরামর্শ জানাতে বললে এ ঘটনার অবতারণা হয়। এ সময় কাকন সোমবার রাতে তার বাসার সামনে আওয়ামী লীগের কর্মীদের বিরুদ্ধে তার কর্মীদের মারধর করা এবং পোস্টার ছিঁড়ে ফেলার বর্ণনা দেন। জবাবে আওয়ামী লীগের প্রার্থী জাকির হোসেন তালুকদার এ অভিযোগ ভিত্তিহীন বলে উড়িয়ে দেন।
ফুলবাড়ীয়ায় সাউন্ডসিস্টেম প্রচারণা
ফুলবাড়ীয়া (ময়মনসিংহ) প্রতিনিধি
নির্বাচনী প্রচার-প্রচারণা মানেই রিকশা বা ভ্যানগাড়িতে ২ জনের মাইকিং করাকেই বোঝায়। আর এ বছর প্রার্থীদের প্রচারণা সম্পূর্ণ ভিন্ন।
মেয়রসহ বেশির ভাগ কাউন্সিলর প্রার্থী মাইকিংয়ের পাশাপাশি প্রচারণা চালাচ্ছেন সাউন্ডসিস্টেমের মাধ্যমে। প্রার্থীদের নাম ও প্রতীক দিয়ে গান তৈরি করে মোবাইলের মেমোরি কার্ডের মাধ্যমে ভ্যানগাড়িতে বড় বড় সাউন্ডবক্স দিয়ে দুপুর থেকে রাত ৮টা পর্যন্ত নির্বাচনী প্রচার চালাচ্ছে।
পৌরসভা নির্বাচন-২০১৫ পাতার আরো খবর
৭ দিনের প্রধান শিরোনাম

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৮৪১৯২১১-৫, রিপোর্টিং : ৮৪১৯২২৮, বিজ্ঞাপন : ৮৪১৯২১৬, ফ্যাক্স : ৮৪১৯২১৭, সার্কুলেশন : ৮৪১৯২২৯। ফ্যাক্স : ৮৪১৯২১৮, ৮৪১৯২১৯, ৮৪১৯২২০

Developed by
close
close