¦
ক্রিস্টাল গুহা

প্রকৃতি ও জীবন ডেস্ক | প্রকাশ : ১৮ এপ্রিল ২০১৫

খনিজসম্পদের জন্য পরিচিত মেক্সিকোর নেইকা অঞ্চল। এখানে মাটির নিচে রয়েছে অনেক মূল্যবান খনিজ। ১৯১০ সালে ভূ-পৃষ্ঠের ১২০ মিটার নিচে খনিতে কাজ করার সময় একজন শ্রমিক প্রায় এক মিটার লম্বা একটি ক্রিস্টাল দেখতে পান। এরপর ২০০০ সালে একই খনিতে মাটির প্রায় ৩০০ মিটার নিচে ইংরেজি ইউ অক্ষরের মতো একটি ক্রিস্টালের গুহা আবিষ্কৃত হয়। এ গুহাতেই বিশ্বের সবচেয়ে বড় প্রাকৃতিক ক্রিস্টালের সন্ধান মেলে। গুহার ভেতরে অতিরিক্ত তাপমাত্রার কারণে ১০ মিনিটের বেশি থাকা যায় না।
২০০৬ সালে একদল গবেষক শরীর ঠাণ্ডা রাখতে সক্ষম এক ধরনের বিশেষ পোশাক পরে খনিতে গবেষণা চালান। এ সময় দেখা যায়, গুহার নিচের অংশে রয়েছে বিশাল বিশাল ক্রিস্টালের ব্লক। এছাড়াও একটি দালানের নিচ থেকে যেমন ছাদ পর্যন্ত কংক্রিটের স্তম্ভ থাকে, তেমনি ক্রিস্টাল গুহায়ও নিচের ব্লক থেকে গুহার ছাদ পর্যন্ত ক্রিস্টালের স্তম্ভ দেখা যায়। গবেষকদের মতে, গুহার মধ্যে আটকে পড়া পানি প্রায় পাঁচ লাখ বছর গড়ে ৫০ ডিগ্রি সেলসিয়াস তাপমাত্রায় আবদ্ধ থাকার কারণে স্বচ্ছ প্রাকৃতিক ক্রিস্টালে পরিণত হয়েছে।
 

প্রকৃতি ও জীবন পাতার আরো খবর
৭ দিনের প্রধান শিরোনাম

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৮৪১৯২১১-৫, রিপোর্টিং : ৮৪১৯২২৮, বিজ্ঞাপন : ৮৪১৯২১৬, ফ্যাক্স : ৮৪১৯২১৭, সার্কুলেশন : ৮৪১৯২২৯। ফ্যাক্স : ৮৪১৯২১৮, ৮৪১৯২১৯, ৮৪১৯২২০

Developed by
close
close