¦
ছুটির দিনে উপচেপড়া ভিড় বাণিজ্য মেলায়

যুগান্তর রিপোর্ট | প্রকাশ : ০৭ ফেব্রুয়ারি ২০১৫

অবরোধ থাকলেও শুক্রবার ছুটির দিনে বাণিজ্য মেলায় তিল ধারণের ঠাঁই ছিল না। সকাল থেকেই দর্শনার্থী ও ক্রেতাদের ভিড় বাড়তে থাকে মেলায়। বেলা বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে মেলায় রীতিমতো মানুষের ঢল নামে। সন্ধ্যায় দীর্ঘ লাইনে দাঁড়িয়ে ক্রেতা-দর্শনার্থীদের মেলায় প্রবেশ করতে দেখা যায়। অনেক ক্রেতাই ছুটে বেড়িয়েছেন বিশেষ ছাড় কিংবা ডিসকাউন্টে পণ্য কিনতে। ছুটির দিনে ক্রেতার বাড়তি চাপে বিক্রি নিয়ে সন্তুষ্টির কথা জানিয়েছেন বিক্রেতারা। শুক্রবার দুপুরের পর থেকেই মেলা প্রাঙ্গণ মানুষের ভিড়ে কানায় কানায় পূর্ণ ছিল। বিকাল হতে না হতেই মেলার সামনের প্রাঙ্গণও পূর্ণ হয়ে যায়। শেষ বিকালে আগত যারা তাদের প্রায় ঘণ্টাখানেক দীর্ঘ লাইনে দাঁড়িয়ে প্রবেশ টিকিট কাটতে হয়েছে। মেলার আশপাশের সড়কে দুপুরের পর থেকে যানজট লেগে ছিল। দুপরের পর থেকে স্টল ও প্যাভিলিয়নগুলোতে ছিল ক্রেতা-দর্শনার্থীদের প্রচণ্ড ভিড়। ক্রেতার বাড়তি চাপে দিনভর স্টল মালিকদের হিমশিম খেতে হয়।
কয়েকজন বিক্রয় প্রতিনিধি জানান, মেলার শেষ সময়ে ক্রেতার সংখ্যা বেড়েছে। যারা এখন মেলায় আসছেন, সবাই পণ্য কিনছেন। এদিকে মেলার সময়ের পরিধি কমতে থাকায় বিশেষ মূল্যছাড় ও উপহার দিয়ে ক্রেতা আকর্ষণের চেষ্টা করছেন দোকানিরা। প্রায় প্রতিটি স্টল ও প্যাভিলিয়নে নগদ ক্রয়ের ওপর বিভিন্ন অংকের ছাড়, নানা ধরনের উপহার, স্ক্র্যাচকার্ডে পণ্য জিতে নেয়ার সুযোগ, প্যাকেজ অফারে বিভিন্ন অংকের টাকা ছাড় দেয়া হচ্ছে। মেলায় অংশ নেয়া লেদার ফেয়ারের মালিক একে শামিম হোসেন জানান, রাজনৈতিক অস্থিরতার কারণে এবারের বাণিজ্য মেলা এলোমেলো হয়ে গেছে। যে লক্ষ্য নিয়ে মেলায় আসা হয়েছিল সে লক্ষ্য পূরণ হয়নি। প্রাণের প্যাভিলিয়নের কর্মকর্তা সামিউল হাসান বলেন, শুরুতে প্রত্যাশা ব্যাপক ছিল। কিন্তু রাজনৈতিক পরিস্থিতি সে প্রত্যাশাতে পানি ঢেলে দিয়েছে। পাকিস্তানি প্যাভিলিয়নের কর্মকর্তা জাহাঙ্গীর জানান, রাজনৈতিক অস্থিরতায় মাসজুড়ে ভালো ব্যবসা হয়নি। শুক্রবার বাণিজ্য মেলার প্লাস্টিক পণ্যের স্টল ও প্যাভিলিয়নগুলোতে উল্লেখযোগ্য সংখ্যক নারী ক্রেতা দেখা গেছে। বেঙ্গল, আরএফএল, এনপলি, তানিন, গাজীসহ বিভিন্ন প্লাস্টিক পণ্যের স্টলে সারা দিনই ভিড় লেগেছিল। বিক্রয় কর্মীদের সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, বাণিজ্য মেলায় প্লাস্টিকের বাটি, মগ, জগ, চেয়ার, টেবিল, টুল ও বাচ্চাদের তৈরি খেলনা সবচেয়ে বেশি বিক্রি হচ্ছে। মেলায় ব্র্যান্ড প্রতিষ্ঠানগুলো ছাড়াও বিভিন্ন দোকানে অন্য পণ্যের পাশাপাশি প্লাস্টিকের মগ, জগ, থালা-বাটি, পানির পাত্র বিক্রি হচ্ছে। এসব দোকানে মূল্যছাড় দিয়ে ক্রেতা আকর্ষণের চেষ্টা চলছে। এবার মেলায় গৃহস্থালি পণ্যের বিক্রি হয়েছে সর্বাধিক। দিল্লি ও কিয়াম অ্যালুমিনিয়ামসহ বেশ কয়েকটি স্টলে ঠাসা ভিড় লক্ষ্য করা গেছে। অন্য বছরের চেয়ে এবার অ্যালুমিনিয়ামের তৈজসপত্রের চাহিদা বেশি। বাণিজ্য মেলায় অন্যসব পণ্যের তুলনায় ইলেকট্রনিক পণ্যের চাহিদাও বেশ। শুক্রবার যমুনা ইলেকট্রনিক্সের প্যাভিলিয়নে নতুন পণ্য উন্নতমানের ব্লেন্ডিং মেশিন কেনার জন্য প্রচুর দর্শক-ক্রেতার সমাগম ঘটে।
খবর পাতার আরো খবর
৭ দিনের প্রধান শিরোনাম

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৮৪১৯২১১-৫, রিপোর্টিং : ৮৪১৯২২৮, বিজ্ঞাপন : ৮৪১৯২১৬, ফ্যাক্স : ৮৪১৯২১৭, সার্কুলেশন : ৮৪১৯২২৯। ফ্যাক্স : ৮৪১৯২১৮, ৮৪১৯২১৯, ৮৪১৯২২০

Developed by
close
close