¦
ব্যাংকগুলোকে সতর্ক থাকার নির্দেশ

যুগান্তর রিপোর্ট | প্রকাশ : ১২ ফেব্রুয়ারি ২০১৫

ব্যাংকের মাধ্যমে যাতে কোনো সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ডে অর্থায়ন হতে না পারে বা কোনো সন্ত্রাসী ব্যাংকের মাধ্যমে লেনদেন করতে না পারে সে বিষয়ে বাণিজ্যিক ব্যাংকগুলোকে সতর্ক করে দিয়েছে বাংলাদেশ ব্যাংক। এ বিষয়ে বুধবার কেন্দ্রীয় ব্যাংক থেকে বাণিজ্যিক ব্যাংকগুলোর প্রধান নির্বাহীদের কাছে চিঠি দেয়া হয়েছে। একই সঙ্গে বাণিজ্যিক ব্যাংকগুলোর প্রধান কার্যালয় থেকেও তাদের সব শাখায় এ বিষয়ে চিঠি দিয়ে সতর্ক করা হয়েছে। এ ব্যাপারে জানতে চাইলে বাংলাদেশ ব্যাংকের নির্বাহী পরিচালক মাহফুজুর রহমান যুগান্তরকে বলেন, জঙ্গি অর্থায়নের ব্যাপারে সর্তক থাকতে ব্যাংকগুলোতে চিঠি দেয়া হয়েছে। ব্যাংকগুলোকে এ ব্যাপারে সর্তক থাকতে প্রয়োজনীয় নির্দেশনাও দেয়া হয়েছে চিঠিতে। তিনি বলেন, এটি আমাদের রুটিন কার্যক্রম। ব্যাংকিং খাতের স্বচ্ছতা বজায় রাখতে বাংলাদেশ ব্যাংক সতর্ক রয়েছে। কোনো ব্যাংকের অনিয়মের তথ্য পাওয়া গেলে আইন অনুসারে ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে।
সূত্র জানায়, সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ডে ব্যাংকের মাধ্যমে অর্থ স্থানান্তর ঠেকাতে কেন্দ্রীয় ব্যাংক থেকে এই উদ্যোগ নেয়া হয়েছে। এ বিষয়ে গত মঙ্গলবার কেন্দ্রীয় ব্যাংকে বাণিজ্যিক ব্যাংকগুলোর ব্যবস্থাপনা পরিচালকদের (এমডি) ডেকে ওই সতর্ক বার্তা দেয়ার নির্দেশ দেয়া হয়েছে। গত বৃহস্পতিবার প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা অর্থমন্ত্রণালয় পরিদর্শনে এসে সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাদের সঙ্গে এক বৈঠকে ব্যাংকের মাধ্যমে যাতে কোনো জঙ্গি বা সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ডের অর্থ লেনদেন হতে না পারে সে বিষয়ে ব্যবস্থা নেয়ার জন্য ব্যাংকগুলোর এমডিদের প্রয়োজনীয় নির্দেশনা দেয়ার কথা বলেছিলেন। তার আলোকে অর্থমন্ত্রণালয় ও কেন্দ্রীয় ব্যাংক তাদের সঙ্গে আলাদাভাবে বৈঠকে করে এ নির্দেশনা দিয়েছে।
কেন্দ্রীয় ব্যাংক থেকে বাণিজ্যিক ব্যাংকগুলোতে পাঠানো চিঠিতে বলা হয়েছে, ব্যাংকের প্রধান কার্যালয় থেকে পাঠানো সতর্ক বার্তাটি শাখার কর্মকর্তারা অবহিত হয়েছেন কিনা তা মানি লন্ডারিং প্রতিরোধ আইন বাস্তবায়নে নিয়োজিত প্রধান কর্মকর্তাদের যাচাই করে দেখতে হবে। ব্যাংকের অভ্যন্তরীণ নিয়ন্ত্রণ ও নিরীক্ষা বিভাগ এবং মানি লন্ডারিংয়ের কেন্দ্রীয় পরিপালন ইউনিট সন্ত্রাসে অর্থায়নে ঝুঁকিপূর্ণ জেলার ব্যাংকের শাখাগুলোর গ্রাহকদের গত ছয় মাসের লেনদেন পর্যালোচনা করে কোনো অস্বাভাবিক বা সন্দেহজনক লেনদেন শনাক্ত করতে পারলে তা অবিলম্বে কেন্দ্রীয় ব্যাংকের আর্থিক গোয়েন্দা ইউনিটকে (এফআইইউ) জানাতে হবে।
এতে ব্যাংকগুলোর এমডিকে নিজ নিজ ব্যাংককে মানিলন্ডারিং ও সন্ত্রাসে অর্থায়ন প্রতিরোধ ব্যবস্থা যথাযথভাবে কতটুকু পালিত হচ্ছে তা নিশ্চিত হয়ে আগামী ১৫ মার্চের মধ্যে একটি প্রতিবেদন কেন্দ্রীয় ব্যাংকে পাঠানোর নির্দেশ দেয়া হয়েছে। এ বিষয়ে প্রয়োজনে একটি আলাদা টিম গঠন করে নিরীক্ষা চালাতে হবে। চিঠিতে ব্যাংকের মানিলন্ডারিং ও সন্ত্রাসে অর্থায়ন প্রতিরোধ পরিপালন কার্যক্রম জোরদার করতে এবং সিদ্ধান্ত গ্রহণে জটিলতা পরিহার করতে প্রধান মানিলন্ডারিং প্রতিরোধ পরিপালন কর্মকর্তার পদমর্যাদা উন্নত করে কমপক্ষে এমডি, ডিএমডির পরে অর্থাৎ তৃতীয় ধাপে নির্ধারণ করতে বলা হয়েছে। এদিকে বাণিজ্যিক ব্যাংকগুলোর প্রধান কার্যালয় থেকে শাখাগুলোতে পাঠানো চিঠিতে বলা হয়েছে, সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ডে বা কোনো সন্ত্রাসী যাতে ব্যাংকে লেনদেন করতে না পারে সে বিষয়ে ব্যাংকগুলোকে সতর্ক থাকতে। কোনো গ্রাহকের লেনদেন তদন্ত করে সন্দেহজনক অর্থ স্থানান্তরের তথ্য পাওয়া গেলে তা প্রধান কার্যালয়কে জানাতে বলা হয়েছে। প্রয়োজন হলে স্থানীয় পুলিশ বা গোয়েন্দা সংস্থাকে লিখিতভাবে জানাতে হবে।
খবর পাতার আরো খবর
৭ দিনের প্রধান শিরোনাম

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৮৪১৯২১১-৫, রিপোর্টিং : ৮৪১৯২২৮, বিজ্ঞাপন : ৮৪১৯২১৬, ফ্যাক্স : ৮৪১৯২১৭, সার্কুলেশন : ৮৪১৯২২৯। ফ্যাক্স : ৮৪১৯২১৮, ৮৪১৯২১৯, ৮৪১৯২২০

Developed by
close
close