¦
হজ এজেন্সি কমিয়ে ৪৫০ করার প্রস্তাব সৌদি সরকারের

উবায়দুল্লাহ বাদল | প্রকাশ : ১৬ এপ্রিল ২০১৫

বাংলাদেশের হজ এজেন্সির সংখ্যা কমিয়ে ৪৫০ করার প্রস্তাব দিয়েছে সৌদি আরব। সম্প্রতি সৌদি আরবে বাংলাদেশের ধর্মমন্ত্রী অধ্যক্ষ মতিউর রহমান সরকারি সফরে গেলে তাকে এ প্রস্তাব দেন সৌদি আরবের হজমন্ত্রী ড. বন্দর বিন মোহাম্মদ হাজ্জার। সৌদি সরকারের এ প্রস্তাব অনুযায়ী ব্যবস্থা নিতে ধর্ম মন্ত্রণালয়ে চিঠি দিয়েছে সৌদি আরবে অবস্থিত বাংলাদেশ হজ অফিসের কাউন্সিলর মো. আসাদুজ্জামান। ধর্ম মন্ত্রণালয় সূত্রে জানা গেছে এসব তথ্য।
সূত্র আরও জানায়, হজযাত্রী বেশি হওয়ায় কোটা বাড়ানোর অনুরোধ জানিয়ে বাংলাদেশ সৌদি সরকারের কাছে চিঠি দিলেও এখনও কোনো জবাব দেয়নি তারা। এ অবস্থায় করণীয় নির্ধারণ ও হজ ব্যবস্থাপনার সার্বিক অগ্রগতি নিয়ে বুধবার প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাদের সঙ্গে বৈঠক অনুষ্ঠিত হয় ধর্ম মন্ত্রণালয়, বেসরকারি বিমান ও পর্যটন মন্ত্রণালয়, বাংলাদেশ বিমান এবং হজ এজেন্সি মালিকদের সংগঠন হজ এজেন্সিজ অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ (হাব)-এর। বৈঠকে হজ ব্যবস্থাপনার সার্বিক বিষয় আলোচনা করে স্বচ্ছতার সঙ্গে কার্যক্রম পরিচালনা করার প্রতি গুরুত্বারোপ করা হয়। বিষয়টি নিয়ে আজ বিকালে বেসরকারি বিমান ও পর্যটন মন্ত্রণালয়ে আন্তঃমন্ত্রণালয় বৈঠক অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা রয়েছে।
ওদিকে হজ এজেন্সির সংখ্যা কমানো সংক্রান্ত চিঠিতে বলা হয়- সারা বিশ্ব থেকে যে সংখ্যক হজ এজেন্সি হজযাত্রী আনয়নের কাজ করে থাকে তার মধ্যে বাংলাদেশের এজেন্সি সংখ্যা সর্বাধিক। গত বছর এ সংখ্যা ছিল ৮৩৫টি। চলতি বছর যদি হজ এজেন্সির সংখ্যা অনুরূপ বা তার চেয়েও বেশি হয় তাহলে এত এজেন্সির পক্ষে সৌদি আরবে এসে ব্যাংক হিসাব খুলে ইলেকট্রনিক্স পদ্ধতিতে সব কার্যক্রম শেষ করে হজযাত্রী আনয়ন সম্ভব হবে না। এ ক্ষেত্রে যেসব এজেন্সির হজযাত্রীর সংখ্যা কম, তাদের কয়েকটি এজেন্সির হজযাত্রী একত্র করে একজন মোনাজ্জেমের মাধ্যমে পাঠানোর পরামর্শ দেয়া হয় চিঠিতে।
তাতে বলা হয়, বাংলাদেশ থেকে যেসব হজ এজেন্সি ইতিমধ্যে রেজিস্ট্রেশন সম্পন্ন করেছে এবং যেসব হজ এজেন্সির হজযাত্রীর সংখ্যা ১০০ নিচে সেসব ৪-৫ এজেন্সির হজযাত্রীদের একত্র করে একজন মোনাজ্জেমের মাধ্যমে প্রেরণ করার অনুরোধ করা হল।
খবর পাতার আরো খবর
৭ দিনের প্রধান শিরোনাম

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৮৪১৯২১১-৫, রিপোর্টিং : ৮৪১৯২২৮, বিজ্ঞাপন : ৮৪১৯২১৬, ফ্যাক্স : ৮৪১৯২১৭, সার্কুলেশন : ৮৪১৯২২৯। ফ্যাক্স : ৮৪১৯২১৮, ৮৪১৯২১৯, ৮৪১৯২২০

Developed by
close
close