¦
নববর্ষে পঞ্চগড় সীমান্তে দুই বাংলার মানুষের মিলনমেলা

এস এ মাহমুদ সেলিম, পঞ্চগড় থেকে | প্রকাশ : ১৬ এপ্রিল ২০১৫

বাংলা নববর্ষ ১৪২২ উপলক্ষে মঙ্গলবার পঞ্চগড়ের অমরখানা ও মাগুরমারী সীমান্তের প্রায় ৫ কিলোমিটার এলাকায় অনুষ্ঠিত হয়েছে দুবাংলার মানুষের ব্যতিক্রমধর্মী এক মিলনমেলা। ১ বৈশাখ উপলক্ষে অন্য বারের ন্যায় এবারও এই মিলনমেলার আয়োজন করে বিজিবি ও বিএসএফ। এদিকে এ সুযোগকে কাজে লাগিয়ে বাংলাদেশ এবং ভারত উভয় দেশে বসবাসকারী নাগরিকরা কেউ মায়ের সঙ্গে, কেউবা বোনের অথবা আত্মীয়ের সঙ্গে দেখা এবং কথা বলার সুযোগ পান। তারা প্রত্যেকেই একে অপরকে ফলমূল, জুস, বিস্কুট, শাড়ি, লুঙ্গি, শার্ট, প্যান্টসহ অন্যান্য কাপড়-চোপড় এবং ইলিশ ও রুই মাছসহ বিভিন্ন উপহার সামগ্রী প্রদান করেন। উভয় দেশের নাগরিকরা বাংলাদেশ ও ভারতীয় সীমান্তের কাঁটাতারের বেড়ার উপর দিয়ে উপহার সামগ্রী আত্মীয়-স্বজনদের উদ্দেশে ছুড়ে দেন। একই সঙ্গে একে অপরদের দেয়া উপহারও গ্রহণ করেন। যারা আর্থিক কারণে সীমান্ত অতিক্রম করে স্বজনদের দেখার সুযোগ বঞ্চিত তাদের জন্য এদিনটি মোক্ষম সুযোগ।
এক্ষেত্রে দুদেশের সীমান্তরক্ষী বাহিনী, কাঁটাতারের বেড়া ও সীমান্ত আইনের কড়াকড়ি থাকলেও এ মিলনমেলায় তার এতটুকু ছেদ পড়েনি। বাংলা নববর্ষ উপলক্ষে দুদেশের সীমান্তরক্ষী বাহিনীর জ্ঞাতসারেই সীমান্ত এলাকায় কিছুটা শিথিলতা দেখানো হয়। এদিন এ কারণে হাজার হাজার ভারতীয় লাইন বেঁধে আসেন পঞ্চগড়ের অমরখানা, মাগুরমারী সীমান্ত এলাকায়। সীমান্তের বাংলাদেশ অংশে অপেক্ষমাণ তাদের স্বজন ও পরিচিতদের দেখে তারা আবেগে আপ্লুত হয়ে উঠেন। একে অপরকে কাছাকাছি পেয়ে কান্নায় ভেঙে পড়েন। তবে এ কান্না বিরহের নয়, মিলনের। দুদেশের লক্ষাধিক মানুষের মিলনমেলা। সৃষ্টি হয় অন্যরকম পরিবেশের। দ্ইু বাংলার মানুষ মিলেমিশে একাকার হয়ে যান। সকাল ১১টা থেকে বিকাল ৪টা পর্যন্ত চলে সম্প্রীতির এ মেলবন্ধ। দুই দেশের অসংখ্য মানুষ প্রতিবছর মুখিয়ে থাকেন এই দিনটির জন্য।
খবর পাতার আরো খবর
৭ দিনের প্রধান শিরোনাম

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৮৪১৯২১১-৫, রিপোর্টিং : ৮৪১৯২২৮, বিজ্ঞাপন : ৮৪১৯২১৬, ফ্যাক্স : ৮৪১৯২১৭, সার্কুলেশন : ৮৪১৯২২৯। ফ্যাক্স : ৮৪১৯২১৮, ৮৪১৯২১৯, ৮৪১৯২২০

Developed by
close
close