¦
চট্টগ্রাম জেলায় ৩৪৬ নাশকতার মামলায় ১২ হাজার আসামি

নাসির উদ্দিন রকি, চট্টগ্রাম ব্যুরো | প্রকাশ : ০৯ মে ২০১৫

চট্টগ্রামে নাশকতার মামলা দ্রুত তদন্ত শেষ করতে নির্দেশনা এসেছে থানায় থানায়। জেলার ১৬ থানায় প্রায় ১২ হাজার নেতাকর্মীর বিরুদ্ধে ঝুলছে ৩৪৬টি মামলা। এর মধ্যে ২৫১টি মামলার তদন্ত শেষ করে আদালতে চার্জশিট দাখিল করেছে পুলিশ। বাকি ৯৫ মামলার তদন্তও দ্রুত শেষ করতে থানার ওসিকে ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষ থেকে বার বার তাগাদা দেয়া হচ্ছে। হরতাল-অবরোধে নাশকতার অভিযোগে পুলিশের দায়ের করা এসব মামলায় আসামি হিসেবে রয়েছেন বিএনপি-জামায়াতের সক্রিয় এবং নিষ্ক্রিয় অধিকাংশ নেতাকর্মী। এ পর্যন্ত পুলিশ গ্রেফতার করেছে প্রায় ৫ হাজার নেতাকর্মীকে। যাদের বিরুদ্ধে মামলা রয়েছে তারা গ্রেফতার আতংকে পালিয়ে বেড়াচ্ছে। মামলার কারণে জেলার নেতাকর্মীরা দল গোছানো বাদ দিয়ে চার্জশিট থেকে নাম বাদ দিতে ধরনা দিচ্ছে পুলিশ এবং আওয়ামী লীগ নেতার দুয়ারে দুয়ারে। এ সুযোগ কাজে লাগিয়ে কতিপয় পুলিশ বাণিজ্যে মেতে উঠেছে বলেও অভিযোগ উঠেছে। তবে বিএনপি নেতারা বলছে, বিএনপিকে সাংগঠনিকভাবে দুর্বল করার জন্য সরকার নাশকতার অভিযোগে দায়ের করা মামলা ঢাল হিসেবে ব্যবহার করছে। এদিকে নাশকতা মামলায় থানা পুলিশ তদন্তে জোর দিতে গিয়ে নিয়মিত মামলা তদন্ত কার্যক্রমে ভাটা পড়েছে।
জেলা পুলিশ সুপার কার্যালয় জানায়, চট্টগ্রাম জেলায় হরতাল-অবরোধে নাশকতার অভিযোগে ১৬ থানায় সংশ্লিষ্ট থানা পুলিশ বাদী হয়ে দায়ের করেছে ৩৪৬ মামলা। এর মধ্যে ২০১৫ সালে ৫৯টি এবং ২০১৩ সালে দায়ের করা হয় ২৮৭টি মামলা। এসব মামলায় আসামি হিসেবে রয়েছে বিএনপি জামায়াতের প্রায় ১২ হাজার নেতাকর্মী। চলতি বছর ৫ জানুয়ারি থেকে বিএনপি-জামায়াতের ডাকা হরতাল-অবরোধে নাশকতার অভিযোগে ১৬ থানায় দায়ের করা ৫৯ মামলায় আসামি হিসেবে রয়েছে ৪ হাজার নেতাকর্মী। এর মধ্যে পুলিশ গ্রেফতার করেছে ৫০০ জনকে। ১টি মামলার তদন্ত শেষ করে পুলিশ আদালতে চার্জশিট দাখিল করেছে। ২০১৪ সালের ৫ জানুয়ারি জাতীয় নির্বাচনকে ঘিরে ২০১৩ সালের শেষের দিকে এবং ২০১৪ সালে বিএনপি-জামায়াতের ৮ হাজার নেতাকর্মীকে আসামি করে পুলিশ বাদী হয়ে ২৮৭টি মামলা দায়ের করে। এসব মামলায় পুলিশ ৪ হাজার ৩শ জনকে গ্রেফতার করে। ২৫০টি মামলার তদন্ত শেষ করে আদালতে চার্জশিট দাখিল করেছে পুলিশ। বাকি ৩৫ মামলাসহ চলতি বছরের ৫৮ মামলার তদন্ত দ্রুত শেষ করে চার্জশিট প্রদানের জন্য সংশ্লিষ্ট থানার ওসিকে চট্টগ্রাম রেঞ্জ ডিআইজি এবং জেলা পুলিশ সুপারের পক্ষ থেকে নির্দেশ দেয়া হয়েছে। জেলার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (বিশেষ শাখা) মুহাম্মদ নাঈমুল হাসান যুগান্তরকে জানান, চলতি বছর জেলার বিভিন্ন থানায় নাশকতার অভিযোগে দায়েরকৃত ৫৯ মামলার মধ্যে সীতাকুণ্ডে ২৩টি, মীরসরাইয়ে ৫টি, সাতকানিয়ায় ৬টি, পটিয়ায় ৩টি, হাটহাজারীতে ৬টি, লোহাগাড়ায় ৬টি, রাঙ্গুনিয়ায় ৩টি, বোয়ালখালীতে ২টি, চন্দনাইশে ১টি, জোরারগঞ্জে ৩টি এবং ফটিকছড়িতে ১টি মামলা হয়েছে। সীতাকুণ্ড থানার ওসি ইফতেখার হাসান বলেন, আগামী এক মাসের মধ্যে সব মামলার তদন্ত শেষ করার চেষ্টা করছি। মামলা দ্রুত শেষ করতে ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা বার বার তাগাদা দিচ্ছেন বলেও তিনি জানান।
চট্টগ্রাম উত্তর জেলা বিএনপির আহ্বায়ক কমিটির সদস্য সচিব কাজী আবদুল্লাহ আল হাসান বলেন, বিএনপিকে সাংগঠনিকভাবে দুর্বল করার জন্য নাশকতার অভিযোগে পুলিশের দায়ের করা মিথ্যা মামলাকে ঢাল হিসেবে ব্যবহারের অপকৌশল নিয়েছে সরকার। তিনি এর নিন্দা জানিয়ে বলেন, সঠিক তদন্ত হলে প্রমাণিত হবে বিএনপির কোনো নেতাকর্মী কোনো ধরনের নাশকতার কাজে লিপ্ত ছিল না।
খবর পাতার আরো খবর
৭ দিনের প্রধান শিরোনাম

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৮৪১৯২১১-৫, রিপোর্টিং : ৮৪১৯২২৮, বিজ্ঞাপন : ৮৪১৯২১৬, ফ্যাক্স : ৮৪১৯২১৭, সার্কুলেশন : ৮৪১৯২২৯। ফ্যাক্স : ৮৪১৯২১৮, ৮৪১৯২১৯, ৮৪১৯২২০

Developed by
close
close