¦
ভুল চিকিৎসায় প্রকৌশলীর মৃত্যুর অভিযোগ

যশোর ব্যুরো | প্রকাশ : ০৯ মে ২০১৫

যশোরে ভুল চিকিৎসায় ফাতেমা তুজ জোহরা নামের এক রোগীর মৃত্যু হয়েছে বলে অভিযোগ উঠেছে। পায়ে আঘাত পেয়ে ১২ দিন আগে শহরের বেসরকারি ক্লিনিক কুইন্স হসপিটালে ভর্তি হন জোহরা। চিকিৎসা দিতে তাকে অপারেশন থিয়েটারে নিয়ে অ্যানেসথেশিয়ার (অজ্ঞান) অতিরিক্ত ডোজ দেয়া হয়। এরপর থেকে আর তার জ্ঞান ফেরেনি। শুক্রবার সকালে ঢাকায় চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়। ফাতেমা তুজ জোহরা যশোর সদর উপজেলা জনস্বাস্থ্য প্রকৌশল অধিদফতরে সহকারী প্রকৌশলী হিসেবে কর্মরত ছিলেন। চিকিৎসকের ভুলে রোগী মৃত্যুর ঘটনায় ব্যাপক তোলপাড়ের সৃষ্টি হয়েছে। তবে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ ভুল চিকিৎসার বিষয়টি অস্বীকার করেছে।
হাসপাতাল ও পরিবার সূত্র জানায়, সহকারী প্রকৌশলী ফাতেমা তুজ জোহরা পায়ে আঘাত পেয়ে গত ২৬ এপ্রিল শহরের বেসরকারি ক্লিনিক কুইন্স হসপিটালে ডা. কর্নেল মোকলেছুর রহমানের অধীনে ভর্তি হন। সন্ধ্যায় তাকে অপারেশন থিয়েটারে নেয়া হয়। সেখানে রোগীকে অজ্ঞান করতে ডা. কর্নেল আসকারের তত্ত্বাবধানে অ্যানেসথেশিয়ার ডোজ দেয়া হয়। কিন্তু পরে রোগীর আর জ্ঞান ফেরেনি। অবস্থার অবনতি হলে ২৭ এপ্রিল জোহরাকে সম্মিলিত সামরিক হাসপাতালে (সিএমএইচ) নেয়া হয়। সেখানে দুদিন চিকিৎসাধীন ছিলেন। এরপর রোগীকে ঢাকার স্কয়ার হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় ১২ দিনেও তার জ্ঞান ফেরেনি। শুক্রবার সকালে ওই হাসপাতালেই তার মৃত্যু হয়।
ফাতেমা তুজ জোহরার বাবা সুলতান আহমেদ অভিযোগ করেন, অ্যানেসথেশিয়ার (অজ্ঞান) বেশি ডোজ দেয়ায় তার মেয়ের মৃত্যু হয়েছে।
তবে অভিযোগ অস্বীকার করে কুইন্স হসপিটালের ব্যবস্থাপক মিঠু সাহা বলেন, চিকিৎসকরা সর্বোচ্চ ভালো সেবা দেয়ার চেষ্টা করেছেন।
খবর পাতার আরো খবর
৭ দিনের প্রধান শিরোনাম

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৮৪১৯২১১-৫, রিপোর্টিং : ৮৪১৯২২৮, বিজ্ঞাপন : ৮৪১৯২১৬, ফ্যাক্স : ৮৪১৯২১৭, সার্কুলেশন : ৮৪১৯২২৯। ফ্যাক্স : ৮৪১৯২১৮, ৮৪১৯২১৯, ৮৪১৯২২০

Developed by
close
close