¦
সরবরাহ বাড়লেও চট্টগ্রামের খুচরা বাজারে কমেনি চালের দাম

চট্টগ্রাম ব্যুরো | প্রকাশ : ০৯ মে ২০১৫

সরবরাহ বৃদ্ধি পাওয়ায় পাইকারি বাজারে চালের দাম কমলেও চট্টগ্রামের খুচরা বাজারে এর কোনো প্রভাব নেই। অধিক মুনাফার আশায় খুচরা পর্যায়ের ব্যবসায়ীরা দাম কমাচ্ছে না বলে অভিযোগ ভোক্তাদের।
দেশে ভোগ্যপণ্যের সবচেয়ে বড় পাইকারি বাজার খাতুনগঞ্জের বিভিন্ন আড়তে খোঁজ নিয়ে জানা যায়, সম্প্রতি ভারতীয় চালের সরবরাহ বাড়ার পাশাপাশি বোরো মৌসুমের ফলন ওঠার ফলে বাজারে চালের সরবরাহ বেড়েছে। পাইকারি বাজারে বস্তাপ্রতি চালের দাম কমেছে প্রায় ২০০ টাকা। মূলত নতুন ও ভারতীয় চালের প্রভাবে পুরনো চালের দাম সবচেয়ে বেশি কমেছে। তবে পাইকারি বাজারে যে হারে দাম কমেছে সে অনুপাতে দাম কমায়নি খুচরা বিক্রেতারা। অল্প সময়ের ব্যবধানে দাম কমায় খুচরা ব্যবসায়ীরা এর সুযোগ নিচ্ছেন বলে মনে করছেন সংশ্লিষ্টরা।
চট্টগ্রামের বিভিন্ন আড়তে খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, আতপ মিনিকেট গত এক মাসের ব্যবধানে বস্তাপ্রতি (৫০ কেজি) দাম কমেছে ৫০ টাকা। এছাড়া বেতি ২০০ টাকা কমে এক হাজার ৪৩০ টাকায়, ইরি ১৫০-২০০ টাকা কমে এক হাজার ২০০ থেকে এক হাজার ২৫০ টাকায়, পাইজাম ১০০-১৫০ টাকা কমে এক হাজার ৭০০ থেকে এক হাজার ৯০০ (মানভেদে) টাকায়, সিদ্ধ পারি চাল ১২০-১৩০ টাকা কমে এক হাজার ৩৪০ টাকা, সিদ্ধ পাইজাম ২৫০ টাকা কমে এক হাজার ৫৫০ টাকায়, মিনিকেট সিদ্ধ ৭০-১০০ টাকা কমে এক হাজার ৭৫০ টাকায়, বাসমতি সিদ্ধ ৫০-৬০ টাকা কমে এক হাজার ৯৮০ টাকায় এবং স্বর্ণা সিদ্ধ চাল বস্তাপ্রতি ১৮০ টাকা কমে বিক্রি হচ্ছে এক হাজার ২২০ টাকায়। মোটা ও মাঝারি মানের চালের দাম কমলেও ভালোমানের চালের দাম প্রায় অপরিবর্তিত রয়েছে বলে জানান আড়তদাররা।
পাইকারি বাজারে চালের দাম কমলেও সে অনুপাতে খুচরা মূল্য কমেনি। খুচরা ব্যবসায়ীদের দাবি পূর্বের ক্রয়কৃত চালের কারণে দাম আশানুরূপ কমানো হয়নি। তবে নতুন চালের সরবরাহ বাড়লে চালের খুচরা দাম সমন্বয় করা হবে। চাক্তাই চাল ব্যবসায়ী সমিতির সাধারণ সম্পাদক ওমর আজম জানান, পাইকারি বাজারে কমলেও খুচরা পর্যায়ে দাম কমতে কিছুটা সময় লাগে। আমদানির পাশাপাশি চাহিদা ও সরবরাহের ওপর নির্ভর করে পাইকারি বাজারে দাম উঠানামা করে। ফলে খুচরায় দাম না কমার বিষয়ে পাইকারি বিক্রেতাদের কোনো হাত নেই।
খবর পাতার আরো খবর
৭ দিনের প্রধান শিরোনাম

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৮৪১৯২১১-৫, রিপোর্টিং : ৮৪১৯২২৮, বিজ্ঞাপন : ৮৪১৯২১৬, ফ্যাক্স : ৮৪১৯২১৭, সার্কুলেশন : ৮৪১৯২২৯। ফ্যাক্স : ৮৪১৯২১৮, ৮৪১৯২১৯, ৮৪১৯২২০

Developed by
close
close