jugantor
টখিলে ইউএনওর গাড়িচাপায় মেধাবী ছাত্রের মৃত্যু

  চাটখিল (নোয়াখালী) প্রতিনিধি  

১০ ডিসেম্বর ২০১৫, ০০:০০:০০  | 

চাটখিল উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার গাড়ির ড্রাইভার আবুল কাশেমের (৫২) চরম খামখেয়ালি ও দায়িত্বহীনতার কারণে ঝরে গেল মেধাবী শিশু শিক্ষার্থী নিনাদের (১০) প্রাণ। বুধবার সকাল ১০টার দিকে চাটখিল উপজেলা পরিষদ ক্যাম্পাসে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার গাড়ির চাপায় ৪র্থ শ্রেণীর এই মেধাবী শিশুর করুণ মৃত্যু ঘটে। প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আবরাউল হাসান মজুমদারের গাড়ির ড্রাইভার আবুল কাশেম গ্যারেজ থেকে গাড়ি বের করে পার্কিং করে রাখে। এ সময় শিশু নিনাদসহ তার কয়েকজন সাথী ওই গাড়ির পাশে খেলা করছিল। ড্রাইভার শিশুদের গাড়ির পাশ থেকে সরে যাওয়ার জন্য বলে। এ সময় শিশু নিনাদ গাড়ির পেছনে থাকা অতিরিক্ত চাকার সঙ্গে ঝুলতে থাকে। ড্রাইভার হঠাৎ গাড়িটি পেছনের দিকে চালিয়ে নেয়। মুহূর্তের মধ্যেই গাড়ির চাকার নিচে নিনাদ পড়ে যায়। উপস্থিত লোকজনের চিৎকারে ড্রাইভার গাড়ি থামায়। রক্তাক্ত অবস্থায় নিনাদকে প্রথমে চাটখিল সরকারি হাসপাতালে ও পরে নোয়াখালী সদর হাসপাতালে নেয়ার পথে মারা যায়। নিহত শিশু সাজ্জাদ হোসেন নিনাদ পৌর সদরের চাটখিল আদর্শ সরকারি প্রার্থমিক বিদ্যালয়ের ৪র্থ শ্রেণীর ছাত্র। নিনাদের বার্ষিক পরীক্ষা চলছে। গতকাল পরীক্ষা না থাকায় নিনাদ উপজেলা ক্যাম্পাসে থাকা শিক্ষক ফারহানার বাসায় প্রাইভেট পড়তে আসে। এ সময় নিনাদসহ অন্যরা শিক্ষকের বাসার পার্শ্বে খেলতে থাকে। নিনাদ পৌর সভার ২নং ওয়ার্ডের সুন্দরপুর গ্রামের সৌদি প্রবাসী ছাইফ উদ্দিন সেলিমের পুত্র। তার মৃত্যুতে স্কুলে সহপাঠী ও শিক্ষকরা গভীরভাবে মর্মাহত হয়ে পড়েন। খবর পেয়ে নিনাদের মা শাহনাজ সেলিম, বড় ভাই নিলয় ছুটে আসেন ঘটনাস্থলে। স্বজনদের কান্নায় উপস্থিত উপজেলা প্রশাসনের কর্মকর্তা, নিনাদের শিক্ষক, সহপাঠীসহ লোকজনও কান্নায় ভেঙে পড়েন। স্বজনরা দ্রুত নোয়াখালী সদর হাসপাতালে ছুটে যান।

নিনাদের মাসহ স্বজনরা নোয়াখালী সদর হাসপাতালে পৌঁছার আগেই নিনাদের দেহ নিথর হয়ে যায়। সংবাদ পেয়ে চাটখিল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন। উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আবরাউল হাছান মজুমদার ড্রাইভার কাশেমের অবহেলা বা গাফিলতির বিষয়টি তদন্ত করে আইনানুগ ব্যবস্থা নেবেন বলে জানান। নিনাদের সহপাঠী, শিক্ষক, অভিভাবক ও এলাকাবাসী ড্রাইভার কাশেমের বিচারের দাবি জানান।



সাবমিট

টখিলে ইউএনওর গাড়িচাপায় মেধাবী ছাত্রের মৃত্যু

 চাটখিল (নোয়াখালী) প্রতিনিধি 
১০ ডিসেম্বর ২০১৫, ১২:০০ এএম  | 
চাটখিল উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার গাড়ির ড্রাইভার আবুল কাশেমের (৫২) চরম খামখেয়ালি ও দায়িত্বহীনতার কারণে ঝরে গেল মেধাবী শিশু শিক্ষার্থী নিনাদের (১০) প্রাণ। বুধবার সকাল ১০টার দিকে চাটখিল উপজেলা পরিষদ ক্যাম্পাসে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার গাড়ির চাপায় ৪র্থ শ্রেণীর এই মেধাবী শিশুর করুণ মৃত্যু ঘটে। প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আবরাউল হাসান মজুমদারের গাড়ির ড্রাইভার আবুল কাশেম গ্যারেজ থেকে গাড়ি বের করে পার্কিং করে রাখে। এ সময় শিশু নিনাদসহ তার কয়েকজন সাথী ওই গাড়ির পাশে খেলা করছিল। ড্রাইভার শিশুদের গাড়ির পাশ থেকে সরে যাওয়ার জন্য বলে। এ সময় শিশু নিনাদ গাড়ির পেছনে থাকা অতিরিক্ত চাকার সঙ্গে ঝুলতে থাকে। ড্রাইভার হঠাৎ গাড়িটি পেছনের দিকে চালিয়ে নেয়। মুহূর্তের মধ্যেই গাড়ির চাকার নিচে নিনাদ পড়ে যায়। উপস্থিত লোকজনের চিৎকারে ড্রাইভার গাড়ি থামায়। রক্তাক্ত অবস্থায় নিনাদকে প্রথমে চাটখিল সরকারি হাসপাতালে ও পরে নোয়াখালী সদর হাসপাতালে নেয়ার পথে মারা যায়। নিহত শিশু সাজ্জাদ হোসেন নিনাদ পৌর সদরের চাটখিল আদর্শ সরকারি প্রার্থমিক বিদ্যালয়ের ৪র্থ শ্রেণীর ছাত্র। নিনাদের বার্ষিক পরীক্ষা চলছে। গতকাল পরীক্ষা না থাকায় নিনাদ উপজেলা ক্যাম্পাসে থাকা শিক্ষক ফারহানার বাসায় প্রাইভেট পড়তে আসে। এ সময় নিনাদসহ অন্যরা শিক্ষকের বাসার পার্শ্বে খেলতে থাকে। নিনাদ পৌর সভার ২নং ওয়ার্ডের সুন্দরপুর গ্রামের সৌদি প্রবাসী ছাইফ উদ্দিন সেলিমের পুত্র। তার মৃত্যুতে স্কুলে সহপাঠী ও শিক্ষকরা গভীরভাবে মর্মাহত হয়ে পড়েন। খবর পেয়ে নিনাদের মা শাহনাজ সেলিম, বড় ভাই নিলয় ছুটে আসেন ঘটনাস্থলে। স্বজনদের কান্নায় উপস্থিত উপজেলা প্রশাসনের কর্মকর্তা, নিনাদের শিক্ষক, সহপাঠীসহ লোকজনও কান্নায় ভেঙে পড়েন। স্বজনরা দ্রুত নোয়াখালী সদর হাসপাতালে ছুটে যান।

নিনাদের মাসহ স্বজনরা নোয়াখালী সদর হাসপাতালে পৌঁছার আগেই নিনাদের দেহ নিথর হয়ে যায়। সংবাদ পেয়ে চাটখিল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন। উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আবরাউল হাছান মজুমদার ড্রাইভার কাশেমের অবহেলা বা গাফিলতির বিষয়টি তদন্ত করে আইনানুগ ব্যবস্থা নেবেন বলে জানান। নিনাদের সহপাঠী, শিক্ষক, অভিভাবক ও এলাকাবাসী ড্রাইভার কাশেমের বিচারের দাবি জানান।



 
শনি
রোব
সোম
মঙ্গল
বুধ
বৃহ
শুক্র