¦
কোনো সংলাপ হবে না : জয়

যুগান্তর রিপোর্ট | প্রকাশ : ০৭ ফেব্রুয়ারি ২০১৫

যারা সংলাপের কথা বলে তাদের পাগল বলে আখ্যায়িত করেছেন প্রধানমন্ত্রীর ছেলে ও তার তথ্যপ্রযুক্তিবিষয়ক উপদেষ্টা সজীব ওয়াজেদ জয়। পাশাপাশি তিনি সংলাপের সম্ভাবনাও নাকচ করে দিয়েছেন। তিনি বলেন, যারা আইএসের মতো সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ড করে, তাদের সঙ্গে কোনো সংলাপ হবে না।
শুক্রবার সন্ধ্যায় রাজধানীর গুলশানের একটি হোটেলে সন্ত্রাস বনাম রাজনীতি বিষয়ক সেমিনারে তিনি এসব কথা বলেন। সুচিন্তা ফাউন্ডেশন নামে একটি সংগঠন আয়োজিত এ সেমিনারে মোহাম্মদ এ আরাফাত সূচনা বক্তব্য রাখেন। সভায় আরও বক্তব্য দেন সাংবাদিক আবেদ খান, চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক ভিসি আবদুল মান্নান, সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব ইনামুল হক এবং সঙ্গীতশিল্পী মিতা হক।
সজীব ওয়াজেদ জয় বলেন, এতদিন ভাবতাম যারা সংলাপ, সংলাপ করে যাচ্ছে তারা বোকা, এখন দেখি তারা পাগল। এত বছর ধরে যখন সংলাপ হচ্ছে না, তখনও তারা সংলাপ, সংলাপ করে যাচ্ছে। তিনি বলেন, কোনো যুক্তি দিয়েই বলা যায় না যে, সংলাপ করলে চলমান সহিংসতা থেমে যাবে। তারা (বিএনপি) বর্তমানে সহিংসতার পথে রয়েছে। মানুষ পুড়িয়ে মারছে। তারা যখন সহিংসতার পথেই নেমেছে তবে তাদের সঙ্গে কিসের সংলাপ। তিনি বলেন, সংলাপে সংঘর্ষ কোনোদিন থামবে না। একটি দেশের প্রধানমন্ত্রীকে খালেদা জিয়া ঘরে প্রবেশ করতে দেননি। দরজা থেকে ফিরে আসতে হয়েছে। তাদের সঙ্গে আবার সংলাপ হবে! একজন পাগল ছাড়া কি কেউ বলতে পারেন যে খালেদার সঙ্গে সংলাপে বসতে। যারা পাগল তারাই সংলাপে বসতে বলছেন। বিএনপি-জামায়াতের উদ্দেশে প্রধানমন্ত্রীর ছেলে জয় বলেন, আমি হুশিয়ার করে বলতে চাই, তোমরা থাম। নয়তো পুলিশ তোমাদের আক্রমণ করবে। তোমরা থাম, নয়তো আমরা তোমাদের ধরব। তা জ্যান্ত হোক বা অন্যভাবে হোক। তিনি বলেন, পুলিশ ও সরকারের দায়িত্ব দেশের মানুষকে নিরাপদ রাখা। কেউ যদি এভাবে
নিরীহ মানুষ মারতে যায়, তাহলে পুলিশের দায়িত্ব যেভাবেই হোক সেটা থামান। এটা তাদের অধিকার নয়, এটা তাদের দায়িত্ব।
দ্বিতীয় সংস্করণ পাতার আরো খবর
৭ দিনের প্রধান শিরোনাম

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৮৪১৯২১১-৫, রিপোর্টিং : ৮৪১৯২২৮, বিজ্ঞাপন : ৮৪১৯২১৬, ফ্যাক্স : ৮৪১৯২১৭, সার্কুলেশন : ৮৪১৯২২৯। ফ্যাক্স : ৮৪১৯২১৮, ৮৪১৯২১৯, ৮৪১৯২২০

Developed by
close
close