¦
দর্শকদের আনন্দ ও বিড়ম্বনা

স্পোর্টস রিপোর্টার | প্রকাশ : ০৭ ফেব্রুয়ারি ২০১৫

শীত আর দিনকয়েকের অতিথি। বাতাসে ফাল্গ–নের গুঞ্জন। ঝরাপাতার দিন এলো। এমন দিনে কাল বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামে ঘুচল দর্শকখরা। এত দর্শক শেষ কবে দেখা গিয়েছিল, ফুটবলবোদ্ধারা শত চেষ্টা করেও বলতে পারলেন না। শুধু দর্শক আর দর্শক। গ্যালারিতে উৎসবের আমেজ। যেন ঢাকার সব রাস্তা কাল গিয়ে মিশেছিল বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামে। বঙ্গবন্ধু গোল্ডকাপের দ্বিতীয় সেমি ফাইনালে স্বাগতিক বাংলাদেশ ১-০ গোলে থাইল্যান্ডকে হারিয়ে ফাইনালে ওঠায় গণজোয়ার রূপ নেয় আনন্দ-সমুদ্রে। দর্শকদের আনন্দ দেখে কে। ম্যাচ শেষে থাই কোচের কণ্ঠেও ঝরে পড়ে বিস্ময়। এত দর্শকের সমনে আমার ছেলেরা কখনও খেলেনি, বলেছেন তিনি। পরোক্ষে স্বীকার করে নিয়েছেন যে, দর্শকরাও তাদের প্রতিপক্ষ ছিল।
বহুদিন পর বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামে কোনো ফুটবল ম্যাচে দর্শকের ঢল নেমেছিল। ছুটির দিনে সান্ধ্য-বিনোদনের সুযোগ হাতছাড়া করতে চাননি মাঠমুখো হতে ভুলে যাওয়া দর্শকরাও। উপচে পড়া ভিড় ফুটবল রোমান্টিকদের ফিরিয়ে নিয়ে যায় অতীতের স্বর্ণপ্রসবা দিনগুলোতে। যখন বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামে ফুটবল দ্বৈরথে দর্শকের সমাগম হতো স্বতঃস্ফূর্তভাবে। গ্যালারিতে তিল ধারণের জায়গা হতো না। কাল সেই সুখ-সময় ফিরে এসেছিল। তবে খেলা দেখতে আসা ফুটবলপ্রেমীরা বিড়ম্বনারও শিকার হয়েছেন। সুযোগ বুঝে কালোবাজারে বাড়তি দামে টিকিট বিক্রি হতে দেখা গেছে। গ্যালারির ৮০ টাকার টিকিট ১৫০ থেকে ২০০ টাকায় বিক্রি হয়েছে। ভিআইপি গ্যালারির টিকিটের দাম ছিল ১৫০ টাকা। বিক্রি হয়েছে ৫০০ টাকা পর্যন্ত। এক সময় কালেবাজারেও টিকিট দুষ্প্রাপ্য হয়ে ওঠে।
দ্বিতীয় সংস্করণ পাতার আরো খবর
৭ দিনের প্রধান শিরোনাম

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৮৪১৯২১১-৫, রিপোর্টিং : ৮৪১৯২২৮, বিজ্ঞাপন : ৮৪১৯২১৬, ফ্যাক্স : ৮৪১৯২১৭, সার্কুলেশন : ৮৪১৯২২৯। ফ্যাক্স : ৮৪১৯২১৮, ৮৪১৯২১৯, ৮৪১৯২২০

Developed by
close
close