¦
দেশ রক্ষায় সংলাপে বসার আহ্বান বি. চৌধুরীর

যুগান্তর রিপোর্ট | প্রকাশ : ১৭ ফেব্রুয়ারি ২০১৫

বিকল্পধারা বাংলাদেশের প্রেসিডেন্ট সাবেক রাষ্ট্রপতি অধ্যাপক একিউএম বদরুদ্দোজা চৌধুরী রাজনৈতিক সংকট নিরসনে আলোচনায় বসার জন্য আবারও দুই নেত্রীর প্রতি আহ্বান জানিয়ে বলেছেন, আমি আশা করি, দেশ রক্ষার জন্য সরকার ও বিরোধীপক্ষের শুভবুদ্ধির উদয় হবে। তবে এ ব্যাপারে প্রধানমন্ত্রীর দায়িত্বই বেশি। সোমবার দুপুরে বারিধারার বাসভবনে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে তিনি এসব কথা বলেন। বদরুদ্দোজা চৌধুরী বলেন, দেশ জ্বলছে। মানুষ মরছে। অর্থনীতি ধ্বংস হচ্ছে। সরকার বন্দুক দিয়ে সবকিছু নিয়ন্ত্রণের চেষ্টা করছে। কিন্তু দমন-পীড়ন করে সমস্যার সমাধান হবে না। রাজনীতির সমাধান করতে হবে রাজনীতি দিয়ে। এই পরিস্থিতিতে উভয় নেত্রীকে উদার হতে হবে। প্রত্যেককে ছাড় দিতে হবে।
বিদেশীদের মাধ্যমে সংলাপ হলে তা দেশের জন্য লজ্জাজনক হবে উল্লেখ করে তিনি বলেন, বিডিআর বিদ্রোহের সময় ৫৬ সামরিক কর্মকর্তা হত্যাকারীদের সঙ্গে এবং পার্বত্য চট্টগ্রাম ইস্যু নিয়ে সন্তু লারমার সঙ্গে আলোচনা করতে পারলে খালেদা জিয়ার সঙ্গে কথা বলতে সমস্যা কোথায়? তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রী চাইলে দ্রুত সমস্যার সমাধান করতে পারেন। ৫ জানুয়ারির নির্বাচন সম্পর্কে তিনি বলেন, ওই তারিখে কোনো নির্বাচন হয় নাই। আওয়ামী লীগও বলেছিল, ওই নির্বাচন ছিল সংবিধান রক্ষার জন্য। সুতরাং জনগণের ভোটের অধিকার ফিরিয়ে দেয়ার জন্য দ্রুত একটি নির্বাচন দেয়া জরুরি। খালেদা জিয়ার গুলশান কার্যালয়ের সামনে নৌমন্ত্রীর সমাবেশ সম্পর্কে সাংবাদিকদের প্রশ্নের উত্তরে বি. চৌধুরী বলেন, ওই সমাবেশে নৌমন্ত্রীর বক্তব্য হাস্যকর। তিনি জনগণকে লেলিয়ে দেন কেন? খালেদা জিয়াকে কোলে করে কাশিমপুর কারাগারে নিয়ে যাওয়ার কথাটি একটি খারাপ উদাহরণ হয়ে থাকবে। তিনি আরও বলেন, বিকল্পধারা সহিংস রাজনীতির বিরোধী। হরতাল-অবরোধে ক্ষতি হয় দেশের মানুষের। কিন্তু ২টি দল ক্ষমতায় থাকতে বা ক্ষমতার বাইরে থাকার সময় একই ভাষায় কথা বলে। একই রকম আচরণ করে। সাংবাদিকদের সঙ্গে বি. চৌধুরীর আলাপকালে বিকল্পধারার যুগ্ম মহাসচিব মাহী বি. চৌধুরী উপস্থিত ছিলেন।
দ্বিতীয় সংস্করণ পাতার আরো খবর
৭ দিনের প্রধান শিরোনাম

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৮৪১৯২১১-৫, রিপোর্টিং : ৮৪১৯২২৮, বিজ্ঞাপন : ৮৪১৯২১৬, ফ্যাক্স : ৮৪১৯২১৭, সার্কুলেশন : ৮৪১৯২২৯। ফ্যাক্স : ৮৪১৯২১৮, ৮৪১৯২১৯, ৮৪১৯২২০

Developed by
close
close