¦
আশুলিয়ায় দুটি ভেজাল সার কারখানা সিলগালা : ৭ জনের কারাদণ্ড

আশুলিয়া প্রতিনিধি | প্রকাশ : ১৭ ফেব্রুয়ারি ২০১৫

আশুলিয়া দোসাইদ ও কাঠগড়া নয়াপাড়া এলাকায় র‌্যাব-৪ এর ভ্রাম্যমাণ আদালতের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট দুটি ভেজাল সার উৎপাদনকারী কারখানায় অভিযান চালিয়ে কারখানা দুটি সিলগালাসহ ৭ জনকে আটক করেছে। সোমবার দুপুরে র‌্যাব-৪ নবীনগর ক্যাম্পের অধিনায়ক মেজর মাহমুদ, এএসপি দোলন মিয়া ও র‌্যাব-৪ মিরপুর ক্যাম্পের উপ-অধিনায়ক মেজর সুরুজের নেতৃত্বে র‌্যাবের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মোহাম্মদ আল-আমীন কারখানা দুটিতে ভ্রাম্যমাণ আদালতের অভিযান পরিচালনা করেন। এ সময় ভেজাল সার উৎপাদন ও বিপণনের মাধ্যমে কৃষকের সঙ্গে প্রতারণার অভিযোগে এসএসএ এগ্রো কেমিক্যাল কোম্পানির মালিক মকবুল হোসেন, কারখানার কর্মচারী আতাউর, রাজু এবং সবুজ এগ্রো ইন্ডাস্ট্রিজের কর্মচারী রাজ্জাক, মহিউদ্দিন, মিন্টু ও বাবুসহ ৭ জনকে আটক করেন। সার ব্যবস্থাপনা আইনে কারখানা মালিক মকবুল হোসেনকে দুই বছর ৬ মাসের সশ্রম কারাদণ্ড, দুই লাখ ৩০ হাজার টাকা জরিমানা, অনাদায়ে আরও ৩ মাসের কারাদণ্ড প্রদান করা হয় এবং আটককৃত ৬ শ্রমিকের প্রত্যেককে পঞ্চাশ হাজার টাকার অর্থদণ্ড, অনাদায়ে ১৫ দিনের কারাদণ্ডাদেশ প্রদান করেন। র‌্যাব জানায়, মেসার্স সবুজ এগ্রো ইন্ডাস্ট্রিজের মালিক সাজেদুর রহমান লাল মাটির সঙ্গে বিভিন্ন ধরনের কেমিক্যাল মিশিয়ে ভেজাল দস্তা ও জৈব সারসহ ১৮ রকমের অনুমোদনবিহীন সার তৈরি ও বাজারজাতের মাধ্যমে সাধারণ কৃষকের সঙ্গে প্রায় ১ যুগ ধরে প্রতারণা করে আসছিল। গোপন সংবাদের ভিত্তিতে ভেজাল সার উৎপাদনের বিষয়টি নিশ্চিত হয়ে সোমবার কারখানা দুটিতে অভিযান পরিচালনার মাধ্যমে কারখানা মালিক মকবুল হোসেনসহ ৭ জনকে আটক, কারখানাদ্বয় সিলগালাসহ ১ লাখ কেজি ভেজাল সার জব্ধ করা হয়েছে। এছাড়া সবুজ এগ্রো ইন্ডাস্ট্রিজের মালিক সাজেদুর রহমান পলাতক থাকায় তার বিরুদ্ধে নিয়মিত মামলা দায়েরসহ জব্দকৃত মালামাল ধ্বংসের জন্য উপজেলা কৃষি কর্মকর্তাকে নির্দেশ দেয়া হয়।
দ্বিতীয় সংস্করণ পাতার আরো খবর
৭ দিনের প্রধান শিরোনাম

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৮৪১৯২১১-৫, রিপোর্টিং : ৮৪১৯২২৮, বিজ্ঞাপন : ৮৪১৯২১৬, ফ্যাক্স : ৮৪১৯২১৭, সার্কুলেশন : ৮৪১৯২২৯। ফ্যাক্স : ৮৪১৯২১৮, ৮৪১৯২১৯, ৮৪১৯২২০

Developed by
close
close