¦
রানবন্যার আভাস

| প্রকাশ : ১৭ ফেব্রুয়ারি ২০১৫

ফ্লাট উইকেট, ব্যাটিং উপযোগী উইকেট। স্পিনাররা খুব একটা সফল হচ্ছেন না। বাউন্সি উইকেটে আগুন ঝরাচ্ছেন দুএকজন পেসার। রান আসছে ভালোই। এই বিশ্বকাপে প্রায় প্রতিটি ম্যাচেই তিনশোর্ধ্ব ইনিংস। শুধু তাই নয়, ৩০০-র বেশি রান তাড়া করে জেতার রেকর্ডও ইতিমধ্যে হয়ে গেছে। সব মিলিয়ে রানবন্যার বিশ্বকাপের আভাস পাওয়া যাচ্ছে। যা মনেপ্রাণে চাইছেন নিউজিল্যান্ডের মারকুটে ওপেনার ব্রেন্ডন ম্যাককালাম। তিনি আশা করছেন, চলতি বিশ্বকাপে রানবন্যা অব্যাহত থাকবে।
দুই গ্রুপ মিলিয়ে সোমবার পর্যন্ত অনুষ্ঠিত হয়েছে পাঁচটি ম্যাচ। তিনশর বেশি রানের ইনিংস ছয়টি। উদ্বোধনী ম্যাচে শ্রীলংকার বিরুদ্ধে রান উৎসবের শুরুটা করে স্বাগতিক নিউজিল্যান্ড। ছয় উইকেটে কিউদের সংগ্রহ ৩৩১। শ্রীলংকা অলআউট ২৩৩ রানে। দ্বিতীয় ম্যাচে ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে অস্ট্রেলিয়ার সংগ্রহ ৯ উইকেটে ৩৪২, যা এখন পর্যন্ত চলতি বিশ্বকাপে সর্বোচ্চ দলীয় ইনিংস। তৃতীয় ম্যাচে জিম্বাবুয়ের বিরুদ্ধে দক্ষিণ আফ্রিকা করে ৪ উইকেটে ৩৩৯ রান। জবাবে জিম্বাবুয়েও লড়াই করে পৌঁছেছিল ২৭৭ রানে। ভারত-পাকিস্তান মহারণও ছুঁয়েছে তিনশ রান। ভারতের করা ৩০০ রানের জবাবে পাকিস্তান অবশ্য ২২৪ রানেই অলআউট।
সর্বশেষ লড়াইটা হয়েছে জম্পেশ। সোমবার নেলসনে মুখোমুখি হয়েছিল ওয়েস্ট ইন্ডিজ ও আয়ারল্যান্ড। এই ম্যাচের দুই ইনিংসেই ৩০০-র বেশি রান হয়েছে। ওয়েস্ট ইন্ডিজের করা ৩০৪ রানের জবাবে ২৫ বল হাতে রেখেই আয়ারল্যান্ডের সংগ্রহ ৩০৭, যা বিস্ময়কর। চলতি বিশ্বকাপে বড় অঘটনও বটে।
মঙ্গলবার ভোরে বিপুলের ম্যাচে ডুনেডিনে মুখোমুখি হয়েছে স্বাগতিক নিউজিল্যান্ড ও স্কটল্যান্ড। এই ম্যাচেই কি দেখা যাবে ৩০০-ও বেশি ইনিংস। নিউজিল্যান্ড ক্যাপ্টেন ম্যাককালাম চাইছেন তেমন কিছুই। তিনি বলেছেন, আমরা ইতিমধ্যেই অস্ট্রেলিয়া ও নিউজিল্যান্ডের উইকেট যা দেখেছি, তা খাঁটি উইকেট। এখানে যেমন ভালো বল হবে, আবার বড় স্কোরও গড়া সম্ভব এবং তা হচ্ছেও। আশা করি, প্রতি ম্যাচেই রানের ফোয়ারা ছুটবে।
স্কটল্যান্ড অপেক্ষাকৃত ছোট দল। এমন দলের বিরুদ্ধে ঘরের মাঠে হেসেখেলেই জেতা উচিত নিউজিল্যান্ডের। তবে ম্যাককালাম তা ভাবছেন না, ছোট দলগুলো মাঝে মধ্যে ভয়ংকর হয়ে ওঠে। আয়ারল্যান্ডের দিকেই তাকান। যারা বড় স্কোর তাড়া করে হারিয়েছে ওয়েস্ট ইন্ডিজের মতো দলকে। তবে আশা করি, জয়ের ধারায় থাকতে পারব। আগে ব্যাট করতে পারলে স্কোর যত বড় করা যায়, সেই চেষ্টাই থাকবে। ওয়েবসাইট।
দ্বিতীয় সংস্করণ পাতার আরো খবর
৭ দিনের প্রধান শিরোনাম

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৮৪১৯২১১-৫, রিপোর্টিং : ৮৪১৯২২৮, বিজ্ঞাপন : ৮৪১৯২১৬, ফ্যাক্স : ৮৪১৯২১৭, সার্কুলেশন : ৮৪১৯২২৯। ফ্যাক্স : ৮৪১৯২১৮, ৮৪১৯২১৯, ৮৪১৯২২০

Developed by
close
close