¦
মানুষ পোড়ানো রাজনীতি মেনে নেয়া যায় না

যুগান্তর রিপোর্ট | প্রকাশ : ২৬ ফেব্রুয়ারি ২০১৫

বিএনপির মানুষ পোড়ানো রাজনীতি মেনে নেয়া যায় না বলে মন্তব্য করেছেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিম। তিনি বলেন, কীসের হরতাল-অবরোধ? হরতাল-অবরোধ মানুষকে ঘরে আটকে রাখতে পারেনি। বিএনপির দাবির প্রতি দেশের মানুষের কোনো সমর্থন নেই। পেট্রলবোমায় বিএনপি-জামায়াত সারা দেশকে পোড়াচ্ছে।
বুধবার দুপুরে রাজধানীর একটি হোটেলে চর্ম চিকিৎসকদের সংগঠন বাংলাদেশ ডার্মাটোলজিক্যাল সোসাইটির ২১তম বার্ষিক সাধারণ সভা ও বৈজ্ঞানিক অধিবেশনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী। স্বাস্থ্যমন্ত্রী এ সময় আগামী বছরের মধ্যেই সারা দেশে সরকারিভাবে এইডসের ওষুধ আমদানি ও বিতরণের ব্যবস্থা করা হবে বলে জানান। পাশাপাশি একটি বার্ন ইন্সটিটিউট এবং একটি ডার্মাটোলজি ইন্সটিটিউট প্রতিষ্ঠার কথাও জানান তিনি।
অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্যে স্বাস্থ্য প্রতিমন্ত্রী জাহিদ মালেক স্বাস্থ্য খাতে বাজেট বৃদ্ধির দাবি জানান। তিনি বলেন, জাতীয় বাজেট ১৭ শতাংশ করে বাড়ছে। অথচ গত ৪-৫ বছরে স্বাস্থ্য খাতের বাজেট ৬ থেকে ৪ শতাংশে নেমে এসেছে। দরিদ্র মানুষকে চিকিৎসা দিতে হলে স্বাস্থ্য খাতে বাজেট আরও বাড়াতে হবে।
তিনি বলেন, এইচআইভি রোগীদের জন্য সরকার অর্থ বরাদ্দ দেয়। কিন্তু এই বিষয়টি নিয়ন্ত্রণ করে এনজিওগুলো। এইচআইভির কতগুলো রোগী আছে তাও আমরা জানি না।
ডার্মাটোলজি সোসাইটির সভাপতি অধ্যাপক একেএম সিরাজুল ইসলামের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সভায় উপস্থিত ছিলেন স্বাস্থ্য অধিদফতরের মহাপরিচালক অধ্যাপক ডা. দীন মোহাম্মদ নুরুল হক, বাংলাদেশ মেডিকেল অ্যাসোসিয়েশন (বিএমএ) সভাপতি অধ্যাপক ডা. মাহমুদ হাসান, মহাসচিব অধ্যাপক ডা. ইকবাল আর্সলান প্রমুখ।
এদিকে বিকালে অপর এক অনুষ্ঠানে স্বাস্থ্যমন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিম বলেন, অধ্যাপক ডা. সামন্ত লাল সেনকে প্রধান করে অতি দ্রুত রাজধানীতে একটি বার্ন ইন্সটিটিউট প্রতিষ্ঠা করা হচ্ছে এবং প্রধানমন্ত্রী নিজে এই ঘোষণা দেবেন। বুধবার রাজধানীর কুর্মিটোলা জেনারেল হাসপাতালে এমআরআই মেশিন উদ্বোধন এবং ২০ শয্যাবিশিষ্ট বার্ন ইউনিট পরিদর্শনকালে তিনি এ তথ্য জানান।
দ্বিতীয় সংস্করণ পাতার আরো খবর
৭ দিনের প্রধান শিরোনাম

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৮৪১৯২১১-৫, রিপোর্টিং : ৮৪১৯২২৮, বিজ্ঞাপন : ৮৪১৯২১৬, ফ্যাক্স : ৮৪১৯২১৭, সার্কুলেশন : ৮৪১৯২২৯। ফ্যাক্স : ৮৪১৯২১৮, ৮৪১৯২১৯, ৮৪১৯২২০

Developed by
close
close