¦
স্কুলছাত্রীর আত্মহত্যা ধর্ষককে থানায় সোপর্দ

নাজিরপুর প্রতিনিধি | প্রকাশ : ২৬ ফেব্রুয়ারি ২০১৫

পিরোজপুরের নাজিরপুরে প্রেমের ফাঁদে পড়ে ধর্ষণের শিকার ইন্দ্ররানী হালদার নামে এক স্কুলছাত্রী আত্মহত্যা করেছে। ইন্দ্র এবার এসএসসি পরীক্ষা দিচ্ছিল। এ ঘটনায় প্রতারক ধর্ষক ও কথিত সেনা সদস্যকে গ্রেফতার করেছে থানা পুলিশ। সহকারী পুলিশ সুপার (সদর সার্কেল) বুধবার সরেজমিনে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন। লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে।
ধর্ষিতার পরিবার ও থানা সূত্রে জানা গেছে, উপজেলার বৈবুনিয়া গ্রামের সুচিত্র হালদারের মেয়ে ইন্দ্র রানী হালদারের (১৭) একই উপজেলার সাচিয়া গ্রামের বিমল সরদারের ছেলে দুসন্তানের জনক বিধান সরদারের (৩৫) এক বছর আগে মুঠোফোনে পরিচয় হয়। কাঠ ব্যবসায়ী বিধান নিজেকে সেনা সদস্য হিসেবে পরিচয় দিয়ে ইন্দ ানীর সঙ্গে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে তোলে। ইন্দ্রানী হালদার পার্শ্ববর্তী নেছারাবাদ উপজেলার জলাবাড়ী গ্রামে খালার বাড়িতে থেকে ওই উপজেলার সমুদয়কাঠি মাধ্যমিক বিদ্যালয় থেকে চলতি বছর এসএসসি পরীক্ষা দিয়ে আসছিল। গত সোমবার বিধান ইন্দ ানীর মুঠোফোনে বিকাশের মাধ্যমে ৩শ টাকা পাঠিয়ে দিয়ে দেখা করার জন্য তার এলাকায় আসতে বলে। ইন্দ্ররানী ওই বিধান সরদারের গ্রামের বাড়ি একই ইউনিয়নের সাচিয়া গ্রামে এলে বিধানের স্ত্রী ও সন্তানরা বাড়িতে না থাকার সুযোগে তাকে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে রাতভর ধর্ষণ করে। মঙ্গলবার সকালে বিধানের বাড়ি থেকে ভাড়ায়চালিত গোপাল রায়ের মোটরসাইকেলে করে ইন্দ্ররানীকে তার খালার বাড়িতে পাঠানোর সময় চলতি পথে ইন্দ্ররানী ওই ড্রাইভারের মাধ্যমে বিধানের আসল পরিচয় জানতে পারে। এ সময় ইন্দ্ররানী খালা বাড়িতে না গিয়ে উপজেলার লড়া গ্রামে তার মামা বাড়িতে গিয়ে গাছে ওড়না পেঁচিয়ে গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যার চেষ্টা করে।
দ্বিতীয় সংস্করণ পাতার আরো খবর
৭ দিনের প্রধান শিরোনাম

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৮৪১৯২১১-৫, রিপোর্টিং : ৮৪১৯২২৮, বিজ্ঞাপন : ৮৪১৯২১৬, ফ্যাক্স : ৮৪১৯২১৭, সার্কুলেশন : ৮৪১৯২২৯। ফ্যাক্স : ৮৪১৯২১৮, ৮৪১৯২১৯, ৮৪১৯২২০

Developed by
close
close