¦
মুশফিকুরের ম্যাচসেরা তামিম

স্পোর্টস রিপোর্টার | প্রকাশ : ১৮ এপ্রিল ২০১৫

১৯৯৯ বিশ্বকাপে পাকিস্তানকে হারানোর পর কী হয়েছিল সাকিব আল হাসানের মনে নেই। ১৬ বছর পর একটি জয় যে কত আনন্দের সেটা তিনি বিলক্ষণ জানেন। এই জয় কী এখানেই থেমে যাবে? সাকিব কাল ম্যাচ শেষে বলেন, এই জয় ধারাবাহিক করা সম্ভব। প্রতিটি জয়ের পর অবশ্যই ভালো লাগে। বিশেষ করে এতদিন পর পাকিস্তানের সঙ্গে জিততে পেরেছি যখন। এটা দলের জন্য বড় ব্যাপার। আমি বিশ্বাস করি এই দলের ক্ষমতা আছে সিরিজ জেতার। আর মাত্র দুটি ম্যাচ। একটি ম্যাচ জিতলেই আমরা সিরিজ জিতব। আমাদের আত্মবিশ্বাস এখন অনেক উঁচুতে। আমাদের সেরা খেলা খেলতে হবে।
ম্যাচসেরা মুশফিকুর রহিম বলেন, আমি জানি না কেন ম্যাচসেরা হলাম। এটা তামিম ভাইয়েরই হাতে ওঠা উচিত ছিল। তিনি যেভাবে ইনিংসটা খেলেছেন তা অসাধারণ। নিজের ইনিংস নিয়ে মুশফিক বলেন, অবশ্যই স্পেশাল। ছয় মাস পর, আরও যদি ভেঙ্গে বলি বিয়ের পর এটা আমার প্রথম সেঞ্চুরি ওয়ানডে ক্রিকেটে। এজন্য আমি অনেক খুশি। সেঞ্চুরির কাছাকাছি ২-৩ বার এসেছিলাম। এর আগে পারিনি। ওই ম্যাচগুলোতে দল জিতেছিল তাই অন্যরকম অনুভূতি ছিল। তামিমের সঙ্গে নিজের ব্যাটিং জুটি নিয়ে তিনি বলেন, সব সময় দলের একটি পরিকল্পনা থাকে। ওদের পঞ্চম বোলার, খুবই দুর্বল অপশন। সে লুজ বল দিলে আমরা ১০ ওভারে যেন ৭০-৭৫ নিতে পারি, এই ছিল পরিকল্পনা। তামিম সেঞ্চুরি করার পর দর্শকদের উদ্দেশে হাতের পাঁচ আঙুল টিপে জানিয়ে যেন বললেন, কথা কম বলেন আপনারা। তামিমের উদযাপন নিয়ে মুশফিক বলেন, শেষ ৪-৫ মাস ওকে নিয়ে এত কথা হচ্ছে। ওর মতো ব্যাটসম্যান খুব কমই আছে বাংলাদেশে। শেষ যতগুলো ইনিংসে তামিম আউট হয়েছে। সবগুলোই কিন্তু ভালো বল ছিল। তিনি বলেন, খারাপ করলে সবাই সমালোচনা করবে। ভালো সময় কিন্তু কারও সমর্থনে প্রয়োজন হয় না। খারাপ সময়ে প্রয়োজন হয়। ও যেটা করেছে ভালো করেছে। আমি এটা পছন্দ করেছি। আশা করি সামনে তামিম আরও বড় বড় ইনিংস খেলবে।
দ্বিতীয় সংস্করণ পাতার আরো খবর
৭ দিনের প্রধান শিরোনাম

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৮৪১৯২১১-৫, রিপোর্টিং : ৮৪১৯২২৮, বিজ্ঞাপন : ৮৪১৯২১৬, ফ্যাক্স : ৮৪১৯২১৭, সার্কুলেশন : ৮৪১৯২২৯। ফ্যাক্স : ৮৪১৯২১৮, ৮৪১৯২১৯, ৮৪১৯২২০

Developed by
close
close