jugantor
বৈদেশিক মুদ্রার রিজার্ভে আবার রেকর্ড

  যুগান্তর রিপোর্ট  

৩০ এপ্রিল ২০১৫, ০০:০০:০০  | 

বাংলাদেশ ব্যাংকে বৈদেশিক মুদ্রার রিজার্ভ আবার নতুন রেকর্ড ছুঁয়েছে। এ দফায় বৈদেশিক মুদ্রার রিজার্ভ ২ হাজার ৪০০ কোটি ডলার ছাড়িয়ে গেছে। সাম্প্রতিক সময়ে প্রবাসীদের পাঠানো রেমিটেন্স প্রবাহ ও রফতানি আয় বাড়ার কারণে এমনটি হয়েছে। ২২ এপ্রিল কেন্দ্রীয় ব্যাংকে বৈদেশিক মুদ্রার রিজার্ভ ছিল ২ হাজার ৩৬৭ কোটি ডলার। এর আগে রিজার্ভ ২ হাজার ৩০০ কোটি ডলারের মধ্যে দীর্ঘদিন উঠানামা করেছে।

কেন্দ্রীয় ব্যাংক সূত্র জানায়, বাংলাদেশে বর্তমানে প্রতি মাসে আমদানি ব্যয় হয় ৩০০ থেকে ৩৩০ কোটি ডলার। এ হিসাবে এই পরিমাণ রিজার্ভ দিয়ে ৭ মাসের আমদানি ব্যয় মেটানো সম্ভব। আন্তর্জাতিক নিরাপদ মান অনুযায়ী একটি দেশের তিন মাসের আমদানি ব্যয়ের সমান রিজার্ভ থাকলেই তা নিরাপদ ধরে নেয়া হয়। এছাড়া খাদ্য আমদানি করতে না হলে আরও কম রিজার্ভ থাকলেও চলে। এ প্রসঙ্গে কেন্দ্রীয় ব্যাংকের ফরেক্স রিজার্ভ অ্যান্ড ট্রেজারি ম্যানেজমেন্ট ডিপার্টমেন্টের মহাব্যবস্থাপক (জিএম) কাজী ছাইদুর রহমান যুগান্তরকে জানান, সাম্প্রতিক সময়ে প্রবাসীদের পাঠানো রেমিটেন্সের পরিমাণ ও রফতানি আয় বেড়েছে।



সাবমিট

বৈদেশিক মুদ্রার রিজার্ভে আবার রেকর্ড

 যুগান্তর রিপোর্ট 
৩০ এপ্রিল ২০১৫, ১২:০০ এএম  | 
বাংলাদেশ ব্যাংকে বৈদেশিক মুদ্রার রিজার্ভ আবার নতুন রেকর্ড ছুঁয়েছে। এ দফায় বৈদেশিক মুদ্রার রিজার্ভ ২ হাজার ৪০০ কোটি ডলার ছাড়িয়ে গেছে। সাম্প্রতিক সময়ে প্রবাসীদের পাঠানো রেমিটেন্স প্রবাহ ও রফতানি আয় বাড়ার কারণে এমনটি হয়েছে। ২২ এপ্রিল কেন্দ্রীয় ব্যাংকে বৈদেশিক মুদ্রার রিজার্ভ ছিল ২ হাজার ৩৬৭ কোটি ডলার। এর আগে রিজার্ভ ২ হাজার ৩০০ কোটি ডলারের মধ্যে দীর্ঘদিন উঠানামা করেছে।

কেন্দ্রীয় ব্যাংক সূত্র জানায়, বাংলাদেশে বর্তমানে প্রতি মাসে আমদানি ব্যয় হয় ৩০০ থেকে ৩৩০ কোটি ডলার। এ হিসাবে এই পরিমাণ রিজার্ভ দিয়ে ৭ মাসের আমদানি ব্যয় মেটানো সম্ভব। আন্তর্জাতিক নিরাপদ মান অনুযায়ী একটি দেশের তিন মাসের আমদানি ব্যয়ের সমান রিজার্ভ থাকলেই তা নিরাপদ ধরে নেয়া হয়। এছাড়া খাদ্য আমদানি করতে না হলে আরও কম রিজার্ভ থাকলেও চলে। এ প্রসঙ্গে কেন্দ্রীয় ব্যাংকের ফরেক্স রিজার্ভ অ্যান্ড ট্রেজারি ম্যানেজমেন্ট ডিপার্টমেন্টের মহাব্যবস্থাপক (জিএম) কাজী ছাইদুর রহমান যুগান্তরকে জানান, সাম্প্রতিক সময়ে প্রবাসীদের পাঠানো রেমিটেন্সের পরিমাণ ও রফতানি আয় বেড়েছে।



 
শনি
রোব
সোম
মঙ্গল
বুধ
বৃহ
শুক্র