¦
এমন দিন আসবে ভাবেননি রমিজ রাজা

| প্রকাশ : ০৪ মে ২০১৫

ক্রিকেটবিশ্বে বাংলাদেশের গুণমুগ্ধ ভক্তের সংখ্যা বাড়ছে। আর পাকিস্তানে বাড়ছে তাদের অনুজ্জ্বল ক্রিকেট নিয়ে হতাশাবাদীর সংখ্যা। এবারের বাংলাদেশ সফরে পাকিস্তানের ম্যাড়ম্যাড়ে খেলায় যারপরনাই হতাশ সাবেক অধিনায়ক রমিজ রাজা। ওয়ানডে সিরিজ ও একমাত্র টি ২০-র পর প্রথম টেস্টেও নিজের উত্তরসূরিদের নিষ্প্রভতায় যারপরনাই হতাশ ধারাভাষ্যকার রমিজ রাজা। শনিবার খুলনায় প্রথম টেস্ট শেষ হওয়ার পর তিনি বলেন, এটা খুবই হতাশার, আমাদের দল বাংলাদেশকে দ্বিতীয় ইনিংসে ৫৫০-এর বেশি রান করতে দিল। প্রথম ইনিংসে প্রায় ৩০০ রানের লিড নেয়ার পর এমনটি সত্যিই পীড়াদায়ক। নয় টেস্টে এই প্রথম পাকিস্তান ব্যর্থ হল বাংলাদেশকে হারাতে। রমিজ রাজা এখন ভারতে। সেখানে তিনি আইপিএলে ধারাভাষ্য দিচ্ছেন। জিও নিউজ চ্যানেলকে এই সাবেক ওপেনার বলেন, জানি না আমাদের ক্রিকেট কোনদিকে যাচ্ছে। টেস্ট র‌্যাংকিংয়ে আমরা বাংলাদেশের উপরে। অথচ ওদের হারাতে পারিনি। এভাবে চলতে থাকলে কে আমাদের দলকে আমন্ত্রণ জানাবে খেলার জন্য। তবে বাংলাদেশের প্রশংসা করতে কুণ্ঠিত হননি রমিজ রাজা। বাংলাদেশ ক্রিকেটে উন্নতি করেছে। তাদের মানসিকতায়ও পরিবর্তন এসেছে। কিন্তু ৩০০ রানের লিড নিয়েও আমাদের বোলাররা যদি ওদের চাপে রাখতে না পারে, তাহলে কী করা যাবে, বলেছেন তিনি। তার সংযোজন, বাংলাদেশ দ্বিতীয় ইনিংসে যেভাবে ব্যাট করেছে, তা আমাদের ক্রিকেটের জন্য সতর্কবার্তা। রমিজ রাজা বলেন, বিশ্বকাপ থেকে বাংলাদেশের খেলায় যথেষ্ট উন্নতি হয়েছে। তারই ওপর ভিত্তি করে তাদের দলটা দাঁড়িয়ে যাচ্ছে। সেই তুলনায় আমাদের ক্রিকেট গন্তব্যহীন হয়ে পড়েছে। আমাদের দলে কারও মধ্যে ভালো করার তাগিদ পরিলক্ষিত হচ্ছে না।
খুলনা টেস্টের শেষদিন সাকিব আল হাসান ও ওয়াহাব রিয়াজের মধ্যে কথা কাটাকাটি হয়। এ প্রসঙ্গে রমিজ রাজা খেদ প্রকাশ করে বলেন, এমন দিনও দেখতে হল, যেদিন বাংলাদেশের খেলোয়াড় পাকিস্তানের খেলোয়াড়ের চোখে চোখ রেখে কথা বলছে।
তবে আরেক সাবেক পাকিস্তান অধিনায়ক মোহাম্মদ ইউসুফ বাংলাদেশের প্রশংসা করে বলেন, সাকিব ও রিয়াজের মধ্যে যা হল, কয়েক বছর আগেও এটা ছিল কল্পনাতীত। এখন সেটা হয়েছে, কারণ ক্রিকেট খেলুড়ে দেশ হিসেবে বাংলাদেশ উন্নতি করছে।
আরেক সাবেক পাকিস্তান অধিনায়ক মোহাম্মদ ইউসুফ দলের সমালোচনা করে বলেন, খুলনায় আমরা ড্র করিনি। বাংলাদেশের কাছে টেস্ট ম্যাচে হেরেছি। এ ধরনের ফল আমাদের মতো সাবেক খেলোয়াড়দের জন্য বিব্রতকর। ক্ষুব্ধ ইউসুফের প্রতিক্রিয়া, পাকিস্তান দল যদি নবম স্থান থেকে ৯০০তম স্থানে নেমে যায়, তাতেও পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ডে কোনো নড়চড় হবে না। ওরা শুধু বোর্ডে তোষামোদকারী লোকদের চায়। এজন্যই আমাদের ক্রিকেট নিচের দিকে যাচ্ছে। ওয়েবসাইট।
দ্বিতীয় সংস্করণ পাতার আরো খবর
৭ দিনের প্রধান শিরোনাম

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৮৪১৯২১১-৫, রিপোর্টিং : ৮৪১৯২২৮, বিজ্ঞাপন : ৮৪১৯২১৬, ফ্যাক্স : ৮৪১৯২১৭, সার্কুলেশন : ৮৪১৯২২৯। ফ্যাক্স : ৮৪১৯২১৮, ৮৪১৯২১৯, ৮৪১৯২২০

Developed by
close
close