jugantor
আগারগাঁও ও ভাটারায় দুই কিশোরী ধর্ষণের শিকার

  যুগান্তর রিপোর্ট  

১০ ডিসেম্বর ২০১৫, ০০:০০:০০  | 

রাজধানীর আগারগাঁওয়ের তালতলায় বাসায় আটকে রেখে কিশোরী গৃহকর্মীকে ধর্ষণের অভিযোগে লক্ষ্মীপুরের রায়পুর উপজেলার স্থানীয় এক যুবলীগ নেতার বিরুদ্ধে মামলা হয়েছে।

বুধবার সকালে রাজধানীর শেরেবাংলা নগর থানায় গৃহকর্মীর বাবা বাদী হয়ে মামলাটি করেন। এদিকে অপর ঘটনায় ভাটারায় অপহরণের পর এক কিশোরী ধর্ষণের অভিযোগে আরও একটি মামলা হয়েছে।

গৃহকর্মীর পরিবার জানায়, রায়পুর উপজেলার চরবংশী ইউনিয়ন যুবলীগের আহ্বায়ক শাহজালাল তার ঢাকার বাসায় ওই কিশোরীকে গৃহকর্মী হিসেবে নিয়ে আসেন। যুবলীগ নেতার স্ত্রী চাকরি করায় তিনি দিনের বেলায় বাইরে থাকতেন। এ সুযোগে শাহজালাল তাকে বাসায় জিম্মি করে ভয়ভীতি দেখিয়ে একাধিকবার ধর্ষণ করেন। একপর্যায়ে ওই কিশোরী অসুস্থ হয়ে পড়লে শনিবার শাহজালাল তাকে বাড়ি থেকে প্রায় ২০ কিলোমিটার দূরে চাঁদপুরে নিয়ে গিয়ে অজ্ঞাত স্থানে ফেলে পালিয়ে যান। পরে ওই কিশোরী লক্ষ্মীপুরে বাড়ি ফিরে মা-বাবাকে ঘটনা জানায়।

ওই কিশোরীর পরিবারের অভিযোগ, এ ব্যাপারে রায়পুর থানায় মামলা করতে গেলে পুলিশ মামলা নেয়নি। থানা থেকে বলা হয়, ঘটনাস্থল ঢাকা হওয়ায় সেখানকার সংশ্লিষ্ট থানায় মামলা করতে হবে।

এরপর গৃহকর্মীকে লক্ষ্মীপুর সদর হাসপাতালে চিকিৎসার জন্য নিয়ে যাওয়া হয়। কিন্তু পুলিশের অনুমতি নেই বলে কিশোরীকে ভর্তি করেনি হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ। পরে পরিবারের পক্ষ থেকে ধর্ষণ ও পরবর্তী ঘটনা জানিয়ে লক্ষ্মীপুরের পুলিশ সুপারের কাছে একটি লিখিত অভিযোগ করা হয়।

লিখিত অভিযোগ পাওয়ার পর পুলিশ সুপার শাহ মিজান সাফিউর রহমানের নির্দেশে বুধবার সকালে শেরেবাংলা থানায় শাহজালালকে আসামি করে মামলা করেন কিশোরীর বাবা।

মামলার সত্যতা নিশ্চিত করে শেরেবাংলা নগর থানার ওসি জিজি বিশ্বাস জানান, আসামিকে গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে। মামলার তদন্ত কর্মকর্তা শেরেবাংলা নগর থানার এসআই নিপেন্দ্র নাথ বিশ্বাস জানান, ওই কিশোরী বুধবার ঢাকা মহানগর মুখ্য বিচারিক হাকিম আদালতে জবানবন্দি দিয়েছে।

ভাটারায় কিশোরী ধর্ষণের শিকার : এদিকে ভাটারায় এক কিশোরী ধর্ষণের শিকার হয়েছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে।

বুধবার সকালে ভাটারা থানা পুলিশ তার স্বাস্থ্য পরীক্ষার জন্য ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ওসিসিতে পাঠায়।

মামলার তদন্ত কর্মকর্তা ও ভাটারা থানা পুলিশের এসআই জিয়াব উদ্দিন যুগান্তরকে জানান, প্রেমের ফাঁদে ফেলে ভাটারার ওই কিশোরীকে ১ ডিসেম্বর বাড়ি থেকে ডেকে নিয়ে যায় আমান নামে এক যুবক। পরে তাকে জোর করে বিয়ে করে। কিশোরীর পরিবার থানায় মামলা করার পর বুধবার কিশোরীকে উদ্ধার করে তার স্বাস্থ্য পরীক্ষার জন্য হাসপাতালে পাঠানো হয়।

আমানের বাড়ি ভোলার দৌলতখানে। তার বিরুদ্ধে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে থানায় মামলা হয়েছে।



সাবমিট

আগারগাঁও ও ভাটারায় দুই কিশোরী ধর্ষণের শিকার

 যুগান্তর রিপোর্ট 
১০ ডিসেম্বর ২০১৫, ১২:০০ এএম  | 
রাজধানীর আগারগাঁওয়ের তালতলায় বাসায় আটকে রেখে কিশোরী গৃহকর্মীকে ধর্ষণের অভিযোগে লক্ষ্মীপুরের রায়পুর উপজেলার স্থানীয় এক যুবলীগ নেতার বিরুদ্ধে মামলা হয়েছে।

বুধবার সকালে রাজধানীর শেরেবাংলা নগর থানায় গৃহকর্মীর বাবা বাদী হয়ে মামলাটি করেন। এদিকে অপর ঘটনায় ভাটারায় অপহরণের পর এক কিশোরী ধর্ষণের অভিযোগে আরও একটি মামলা হয়েছে।

গৃহকর্মীর পরিবার জানায়, রায়পুর উপজেলার চরবংশী ইউনিয়ন যুবলীগের আহ্বায়ক শাহজালাল তার ঢাকার বাসায় ওই কিশোরীকে গৃহকর্মী হিসেবে নিয়ে আসেন। যুবলীগ নেতার স্ত্রী চাকরি করায় তিনি দিনের বেলায় বাইরে থাকতেন। এ সুযোগে শাহজালাল তাকে বাসায় জিম্মি করে ভয়ভীতি দেখিয়ে একাধিকবার ধর্ষণ করেন। একপর্যায়ে ওই কিশোরী অসুস্থ হয়ে পড়লে শনিবার শাহজালাল তাকে বাড়ি থেকে প্রায় ২০ কিলোমিটার দূরে চাঁদপুরে নিয়ে গিয়ে অজ্ঞাত স্থানে ফেলে পালিয়ে যান। পরে ওই কিশোরী লক্ষ্মীপুরে বাড়ি ফিরে মা-বাবাকে ঘটনা জানায়।

ওই কিশোরীর পরিবারের অভিযোগ, এ ব্যাপারে রায়পুর থানায় মামলা করতে গেলে পুলিশ মামলা নেয়নি। থানা থেকে বলা হয়, ঘটনাস্থল ঢাকা হওয়ায় সেখানকার সংশ্লিষ্ট থানায় মামলা করতে হবে।

এরপর গৃহকর্মীকে লক্ষ্মীপুর সদর হাসপাতালে চিকিৎসার জন্য নিয়ে যাওয়া হয়। কিন্তু পুলিশের অনুমতি নেই বলে কিশোরীকে ভর্তি করেনি হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ। পরে পরিবারের পক্ষ থেকে ধর্ষণ ও পরবর্তী ঘটনা জানিয়ে লক্ষ্মীপুরের পুলিশ সুপারের কাছে একটি লিখিত অভিযোগ করা হয়।

লিখিত অভিযোগ পাওয়ার পর পুলিশ সুপার শাহ মিজান সাফিউর রহমানের নির্দেশে বুধবার সকালে শেরেবাংলা থানায় শাহজালালকে আসামি করে মামলা করেন কিশোরীর বাবা।

মামলার সত্যতা নিশ্চিত করে শেরেবাংলা নগর থানার ওসি জিজি বিশ্বাস জানান, আসামিকে গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে। মামলার তদন্ত কর্মকর্তা শেরেবাংলা নগর থানার এসআই নিপেন্দ্র নাথ বিশ্বাস জানান, ওই কিশোরী বুধবার ঢাকা মহানগর মুখ্য বিচারিক হাকিম আদালতে জবানবন্দি দিয়েছে।

ভাটারায় কিশোরী ধর্ষণের শিকার : এদিকে ভাটারায় এক কিশোরী ধর্ষণের শিকার হয়েছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে।

বুধবার সকালে ভাটারা থানা পুলিশ তার স্বাস্থ্য পরীক্ষার জন্য ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ওসিসিতে পাঠায়।

মামলার তদন্ত কর্মকর্তা ও ভাটারা থানা পুলিশের এসআই জিয়াব উদ্দিন যুগান্তরকে জানান, প্রেমের ফাঁদে ফেলে ভাটারার ওই কিশোরীকে ১ ডিসেম্বর বাড়ি থেকে ডেকে নিয়ে যায় আমান নামে এক যুবক। পরে তাকে জোর করে বিয়ে করে। কিশোরীর পরিবার থানায় মামলা করার পর বুধবার কিশোরীকে উদ্ধার করে তার স্বাস্থ্য পরীক্ষার জন্য হাসপাতালে পাঠানো হয়।

আমানের বাড়ি ভোলার দৌলতখানে। তার বিরুদ্ধে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে থানায় মামলা হয়েছে।



 
শনি
রোব
সোম
মঙ্গল
বুধ
বৃহ
শুক্র