¦
অঘটনের আওয়াজ পাওয়া যায়

| প্রকাশ : ১২ ফেব্রুয়ারি ২০১৫

আগের দিন আয়ারল্যান্ডকে হারিয়ে ছোটখাটো একটা চমক দেখিয়েছিল স্কটল্যান্ড। কাল আর চমক নয়, রীতিমতো মহাঅঘটনের জন্ম দিল জিম্বাবুয়ে। যাদের কেউ গোনার মধ্যে রাখেনি, সেই জিম্বাবুয়েই কিনা বিশ্বকাপ প্রস্তুতি ম্যাচে হারিয়ে দিয়েছে শ্রীলংকাকে! তাও আবার সাত উইকেটের বিশাল ব্যবধানে। হ্যামিল্টন মাসাকাদজার অনবদ্য সেঞ্চুরিতে শ্রীলংকার ২৭৯ রানের মোটামুটি বড় সংগ্রহ হেসে-খেলেই টপকে যায় জিম্বাবুয়ে। বিশ্বকাপের সহ-আয়োজক নিউজিল্যান্ডের কাছে দক্ষিণ আফ্রিকার হারকে ঠিক অঘটনের কাতারে ফেলা যাবে না। দু’দলই এবার শিরোপার অন্যতম দাবিদার। কিন্তু দক্ষিণ আফ্রিকার হারের ধরনটা চিন্তার খোরাক জোগানোর জন্য যথেষ্ট। নিউজিল্যান্ডের ৩৩১ রানের জবাবে ১৯৭ রানে অলআউট হয়ে প্রোর্টিয়ারা হেরেছে ১৩৪ রানের বিশাল ব্যবধানে। আগের প্রস্তুতি ম্যাচে এই নিউজিল্যান্ডকেই কাঁপিয়ে দিয়েছিল জিম্বাবুয়ে। ১৫৩ রানে সাত উইকেট হারিয়ে ফেলা নিউজিল্যান্ডের কপাল ভালো যে, বৃষ্টির কারণে ম্যাচটি শেষ পর্যন্ত পরিত্যক্ত হয়েছিল। কিউইদের ভুগিয়ে এবং শ্রীলংকাকে হেলায় হারিয়ে আত্মবিশ্বাসে ফুটতে থাকা জিম্বাবুয়েই বিশ্বকাপে দক্ষিণ আফ্রিকার প্রথম প্রতিপক্ষ। রোববার হ্যামিল্টনে কি ঘটবে বলা মুশকিল, তবে অঘটনের আওয়াজ কিন্তু পাওয়া যাচ্ছে! প্রস্তুতি ম্যাচের আভাস যদি সঠিক হয়, তবে ২০১৫ বিশ্বকাপে চেনা ছকের বাইরে অনেক কিছুই ঘটবে।
ক্রাইস্টচার্চের হ্যাগলি ওভালে শেষ প্রস্তুতি ম্যাচে দুর্দান্ত ব্যাটিং ফর্মটা ঝালিয়ে নেয়ার পাশাপাশি বোলিংটাও দারুণ হয়েছে নিউজিল্যান্ডের। ৫১ রানে পাঁচ উইকেট নিয়ে দক্ষিণ আফ্রিকাকে একাই ধসিয়ে দিয়েছেন ট্রেন্ট বোল্ট। প্রথমে ব্যাট করে আট উইকেটে নিউজিল্যান্ড তুলেছিল ৩৩১। ওপেনিংয়ে নেমে ৪৫ বলে ৫৯ রানের ঝড়ো ইনিংস খেলেন অধিনায়ক ব্রেন্ডন ম্যাককালাম। ওয়ানডাউনে নামা কেন উইলিয়ামসনের ব্যাট থেকে আসে ৫৩ বলে ৬৬ রান। রস টেলর করেন ৪১। এছাড়া মিডল অর্ডারে সবাই মোটামুটি রান পেয়েছেন। শেষ দিকে ১৯ বলে ৩৩ রান করে অপরাজিত থাকেন নাথান ম্যাককালাম। দক্ষিণ আফ্রিকার পক্ষে দুটি করে উইকেট নেন ফিল্যান্ডার, অ্যাবট ও পার্নেল। ৩৩২ তাড়া করতে নেমে বোল্টের মারাÍক বোলিংয়ে প্রায় উড়ে যায় দক্ষিণ আফ্রিকার টপ অর্ডার। ৬২ রানে ছয় উইকেট পড়ে যাওয়ার পর সপ্তম উইকেটে ১২১ রানের জুটি গড়ে আরও বড় লজ্জার হাত থেকে প্রোটিয়াদের বাঁচান জেপি ডুমিনি (৮০) ও ফিল্যান্ডার (৫৭)। বাকিদের ব্যর্থতায় ৪৪.২ ওভারে ১৯৭ রানেই শেষ হয়ে যায় দক্ষিণ আফ্রিকার ইনিংস। বোল্ট ছাড়া ভেট্টোরি ও ম্যাকক্লেনাঘান পেয়েছেন দুটি করে উইকেট।
নিউজিল্যান্ডের আরেক ভেন্যু লিংকনে জিম্বাবুয়ের অভাবনীয় জয়ের নায়ক হ্যামিল্টন মাসাকাদজা। তার অপরাজিত ১১৭ রানের অনবদ্য ইনিংসের সুবাদেই সাত উইকেট ও ২৮ বল হাতে রেখে শ্রীলংকার ২৭৯ রানের সংগ্রহ টপকে যায় জিম্বাবুয়ে। মাসাকাদজার পাশাপাশি ব্রেন্ডন টেইলরের ৬৩ ও শন উইলিয়ামসের অপরাজিত ৫১ রানের ইনিংস দুটিও লংকা বধে বড় অবদান রেখেছে। টস জিতে ব্যাটিংয়ে নামা শ্রীলংকার লক্ষ্য ছিল ব্যাটিং অনুশীলন। সেটা একেবারে মন্দ হয়নি। দ্বিমুথ করুনারতেœর ব্যাট থেকে আসে ৫৮ রান। জীবন মেন্ডিস খেলেন ৫১ রানের একটি কার্যকর ইনিংস। থিরিমান্নে, জয়াবর্ধনে, চান্দিমাল ও সচিত্র সেনানায়েকও মোটামুটি রান পেয়েছেন। সম্মিলিত চেষ্টায় আট উইকেটে করা ২৭৯ রানকেই হয়তো জয়ের জন্য যথেষ্ট মনে করেছিল লংকানরা। কিন্তু তাদের ধারণাকে ভুল প্রমাণ করে দেন মাসাকাদজা। ৩৫ রানে দুই উইকেট পড়ে যাওয়ার পর টেইলর ও উইলিয়ামসের সঙ্গে দুটি শত রানের জুটি গড়ে তিনিই জিম্বাবুয়েকে নিয়ে যান জয়ের বন্দরে। এএফপি।
সংক্ষিপ্ত স্কোর
 

খেলা পাতার আরো খবর
৭ দিনের প্রধান শিরোনাম

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৮৪১৯২১১-৫, রিপোর্টিং : ৮৪১৯২২৮, বিজ্ঞাপন : ৮৪১৯২১৬, ফ্যাক্স : ৮৪১৯২১৭, সার্কুলেশন : ৮৪১৯২২৯। ফ্যাক্স : ৮৪১৯২১৮, ৮৪১৯২১৯, ৮৪১৯২২০

Developed by
close
close