¦
যে কারণে ফেরা হল না আজমলের

| প্রকাশ : ১২ ফেব্রুয়ারি ২০১৫

আইসিসি তার বোলিং অ্যাকশন শুদ্ধ ঘোষণার পরও পাকিস্তানের বিশ্বকাপ দলে জায়গা পাননি দলের সেরা স্পিনার সাঈদ আজমল। ব্যাপারটা সবার মনেই যা বিস্ময় জাগিয়েছে। পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ডের (পিসিবি) এক সূত্র জানিয়েছে, বোর্ডের উচ্চপদস্থ কোনো এক কর্মকর্তার সঙ্গে কলহের জের ধরেই আজমলকে সুযোগ থাকা সত্ত্বেও দলে নেয়নি পিসিবি। গত শনিবার আইসিসি আজমলের বোলিং অ্যাকশন বৈধ বলে ঘোষণা দেয়। সবাই তখন ধরেই নিয়েছিল যে, আজমলকে দলে নেয়ার প্রক্রিয়া শুরু করবে পিসিবি। জুনায়েদ ইনজুরির কারণে ছিটকে যাওয়ায় তড়িঘড়ি করেই তার বিকল্প হিসেবে রাহাত আলীকে দলে নেয় পিসিবি। আজমলের জন্য দুদিন অপেক্ষা করতে পারত বোর্ড। তা করেনি পিসিবি।
এরপরও আজমলকে দলে নেয়ার সুযোগ পেয়েছিল বোর্ড। ইনজুরির কারণে মোহাম্মদ হাফিজ ছিটকে যাওয়ায় পিসিবি চাইলেই আজমলকে দলে নিতে পারত। কিন্তু তা না করে অফ-ফর্মে থাকা নাসির জামশেদকে দলে নেয়া হল। পিসিবির এক সূত্র জানিয়েছে, পিসিবির এক উচ্চপদস্থ কর্মকর্তার সঙ্গে কলহের জের ধরেই দলে জায়গা হয়নি আজমলের। সেই কর্মকর্তা নাকি এখন পিসিবির গভর্নিং বডিতে রয়েছেন। পিসিবির সূত্র জানায়, আজমলকে দলে না নেয়ার পেছনে অনেকেই ফিটনেসের কথা বলেছেন। তবে আসল ঘটনা জানতে হলে গত বছরের আগস্টে ফিরে যেতে হবে। গত আগস্টে শ্রীলংকার বিপক্ষে তৃতীয় ওয়ানডেতে পাকিস্তান পরাজিত হওয়ার পর পিসিবির এক উচ্চপদস্থ কর্মকর্তা ড্রেসিংরুমে এসে ক্ষোভ প্রকাশ করেন। তখন আজমল তাকে বলেছিলেন, ড্রেসিংরুমে আপনার কোনো কাজ নেই। তখন থেকেই নাটকের শুরু। সেই কারণেই আজমলকে বিশ্বকাপ দলে নেয়া হয়নি। ওয়েবসাইট।
খেলা পাতার আরো খবর
৭ দিনের প্রধান শিরোনাম

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৮৪১৯২১১-৫, রিপোর্টিং : ৮৪১৯২২৮, বিজ্ঞাপন : ৮৪১৯২১৬, ফ্যাক্স : ৮৪১৯২১৭, সার্কুলেশন : ৮৪১৯২২৯। ফ্যাক্স : ৮৪১৯২১৮, ৮৪১৯২১৯, ৮৪১৯২২০

Developed by
close
close