¦
আল-আমিনের বিরুদ্ধে ম্যাচ-ফিক্সিংয়ের অভিযোগ নেই : বিসিবি সভাপতি

স্পোর্টস রিপোর্টার | প্রকাশ : ২৬ ফেব্রুয়ারি ২০১৫

আল-আমিন হোসেনের বিপক্ষে আকসু কোনো ধরনের ক্রিকেটীয় দুর্নীতির অভিযোগ আনেনি। একথা বলেছেন বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিবি) সভাপতি নাজমুল হাসান। অস্ট্রেলিয়া থেকে ঢাকায় ফেরার পর তিনি বলেন, গত ১৯ ফেব্র“য়ারি টিম হোটেলে দেরিতে ফেরার পর আল-আমিন একেকবার একেক ধরনের ব্যাখ্যা দিয়েছে। টিম ম্যানেজার খালেদ মাহমুদ জানিয়েছেন, আল-আমিন রাত ১০টার পর হোটেলের বাইরে যাওয়ার জন্য ম্যানেজমেন্টের অনুমতি নেয়নি।
বিসিবি সভাপতি বলেন, আকসু (আইসিসির দুর্নীতি দমন ও নিরাপত্তা ইউনিট) আমাদের জানিয়েছে, আল-আমিন রাতে দেরিতে হোটেলে ফিরেছে। তার মানে এই নয়, সে ম্যাচ-ফিক্সিংয়ের সঙ্গে জড়িত। এ ধরনের কোনো অভিযোগ তার বিরুদ্ধে নেই। এই বিশ্বকাপে প্রত্যেক খেলোয়াড় আকসুর নিবিড় পর্যবেক্ষণে রয়েছে। আল-আমিন রাত ১০টার পর হোটেলের বাইরে গিয়েছিল। এতে আমি অবাক হয়েছি। সে এমন ছেলে নয় যে, বিদেশে রাতের বেলা একা একা বাইরে যাবে। নাজমুল হাসান বলেন, সবাই জানেন, শৃংখলার ব্যাপারে আমরা কড়া। সিনিয়র খেলোয়াড়রা যখন রাত ১০টার পরে বাইরে যায় না, তার কী দরকার ছিল যাওয়ার? আমরা জানতেও পারিনি সে কোথায় গিয়েছিল। এটাই সবচেয়ে বড় প্রশ্ন। সে একেকবার একেক কথা বলেছে। এটা কোনো বড় ঘটনা নয়। আবার বড় ঘটনা বৈকি। বিসিবি সভাপতি জানান, আমাকে অনুরোধ করা হয়েছিল, এবারের মতো যেন আল-আমিনকে ক্ষমা করে দিই। আমি তাদের একটা প্রশ্নই করেছি, একই ঘটনা যদি আবার কেউ ঘটায়, তখন কী হবে? এই শাস্তি উদাহরণ তৈরি করবে। এজন্যই তাকে দেশে ফেরত পাঠানো হয়েছে। তিনি বলেন, আল-আমিনের মতো ছেলে ব্রিসবেনে রাতে বের হল, যেখানকার রাস্তাঘাট চেনে না সে। আমি নিশ্চিত, অন্য কোথাও তাকে নামিয়ে দিলে সে হোটেলে ফিরতে পারত না। সে বের হল গাড়িতে। আর ফিরল বৃষ্টিতে ভিজে। এটাই আমাদের চিন্তিত করে তোলে।
খেলা পাতার আরো খবর
৭ দিনের প্রধান শিরোনাম

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৮৪১৯২১১-৫, রিপোর্টিং : ৮৪১৯২২৮, বিজ্ঞাপন : ৮৪১৯২১৬, ফ্যাক্স : ৮৪১৯২১৭, সার্কুলেশন : ৮৪১৯২২৯। ফ্যাক্স : ৮৪১৯২১৮, ৮৪১৯২১৯, ৮৪১৯২২০

Developed by
close
close