jugantor
টেবিল টেনিসে আবাহনীর সাফল্যের দুই সারথি

  স্পোর্টস রিপোর্টার  

১০ ডিসেম্বর ২০১৫, ০০:০০:০০  | 

ক্রিকেট, ফুটবল, হকির মতো টেবিল টেনিসেও আবাহনী লিমিটেডের সমান পদচারণা। এখানেও ইতিহাসের অংশীদার তারা। প্রিমিয়ার লীগ টিটি ও ফেডারেশন কাপ টিটিতে টানা জয়ের রেকর্ড রয়েছে ঐতিহ্যবাহী এ ক্লাবটির। এবারের আড়ং

ডেইরি ফেডারেশন কাপ (র‌্যাংকিং) টেবিল টেনিস টুর্নামেন্টেও শিরোপা জিতেছে

আবাহনী। আর এ জয়ের সারথি জাতীয় দলের টিটি খেলোয়াড় মৌমিতা আলম রুমি ও আঁখি আক্তার সিনথি। ২০০৩ সাল থেকে টেবিল টেনিসে পথচলা শুরু আবাহনীর। প্রথম আবির্ভাবেই শিরোপা জিতে টিটি অঙ্গনেও নিজেদের সক্ষমতার প্রমাণ দেয় ধানমণ্ডির এ ক্লাবটি। সেই থেকে শুরু তাদের সাফল্যের যাত্রা। ফি বছরের প্রিমিয়ার লীগ ও ফেডারেশন কাপের শিরোপাগুলো ক্লাবের শোকেসের শোভাবর্ধন করতে থাকে।

মাঝে ২০০৮ সালেই শুধু একবার প্রিমিয়ার লীগে রানার্সআপ হয়েছিল দলটি। এবারের ফেডারেশন কাপে বাংলাদেশ সেনাবাহিনীকে সরাসরি ৩-০ সেটে হারিয়ে আবাহনী লিমিটেডকে শিরোপা জেতান রুমি ও সিনথি।

একসময় বিমানের হয়ে টিটি খেলতেন সিনথি। পাঁচ বছর আগে টিটি থেকে বিমান উড়াল দিলে আবাহনীতে যোগ দেন তিনি। সেই থেকে এ ক্লাবের হয়ে খেলছেন ইডেন কলেজের তৃতীয় বর্ষের এই ছাত্রী। শিরোপা জেতার পর তিনি বলেন, ‘একবার, দু’বার নয়, এই ক্লাবে এসে টানা পাঁচবার শিরোপা জিতলাম। খুবই ভালো লাগছে।’ ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের পাঠ চুকিয়ে রুমি এখন একটি ইংলিশ মিডিয়াম স্কুলের শিক্ষিকা। খেলা চালিয়ে যাচ্ছেন সমানভাবে।

আবাহনীকে টানা শিরোপা এনে দেয়া রুমি বলেন, ‘দলটির প্রতি আমি কৃতজ্ঞ। তারা আমাকে সুযোগ দিচ্ছে। আর সেই কারণে আমিও আবাহনীকে একের পর এক শিরোপা এনে দিচ্ছি।’


 

সাবমিট

টেবিল টেনিসে আবাহনীর সাফল্যের দুই সারথি

 স্পোর্টস রিপোর্টার 
১০ ডিসেম্বর ২০১৫, ১২:০০ এএম  | 

ক্রিকেট, ফুটবল, হকির মতো টেবিল টেনিসেও আবাহনী লিমিটেডের সমান পদচারণা। এখানেও ইতিহাসের অংশীদার তারা। প্রিমিয়ার লীগ টিটি ও ফেডারেশন কাপ টিটিতে টানা জয়ের রেকর্ড রয়েছে ঐতিহ্যবাহী এ ক্লাবটির। এবারের আড়ং

ডেইরি ফেডারেশন কাপ (র‌্যাংকিং) টেবিল টেনিস টুর্নামেন্টেও শিরোপা জিতেছে

আবাহনী। আর এ জয়ের সারথি জাতীয় দলের টিটি খেলোয়াড় মৌমিতা আলম রুমি ও আঁখি আক্তার সিনথি। ২০০৩ সাল থেকে টেবিল টেনিসে পথচলা শুরু আবাহনীর। প্রথম আবির্ভাবেই শিরোপা জিতে টিটি অঙ্গনেও নিজেদের সক্ষমতার প্রমাণ দেয় ধানমণ্ডির এ ক্লাবটি। সেই থেকে শুরু তাদের সাফল্যের যাত্রা। ফি বছরের প্রিমিয়ার লীগ ও ফেডারেশন কাপের শিরোপাগুলো ক্লাবের শোকেসের শোভাবর্ধন করতে থাকে।

মাঝে ২০০৮ সালেই শুধু একবার প্রিমিয়ার লীগে রানার্সআপ হয়েছিল দলটি। এবারের ফেডারেশন কাপে বাংলাদেশ সেনাবাহিনীকে সরাসরি ৩-০ সেটে হারিয়ে আবাহনী লিমিটেডকে শিরোপা জেতান রুমি ও সিনথি।

একসময় বিমানের হয়ে টিটি খেলতেন সিনথি। পাঁচ বছর আগে টিটি থেকে বিমান উড়াল দিলে আবাহনীতে যোগ দেন তিনি। সেই থেকে এ ক্লাবের হয়ে খেলছেন ইডেন কলেজের তৃতীয় বর্ষের এই ছাত্রী। শিরোপা জেতার পর তিনি বলেন, ‘একবার, দু’বার নয়, এই ক্লাবে এসে টানা পাঁচবার শিরোপা জিতলাম। খুবই ভালো লাগছে।’ ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের পাঠ চুকিয়ে রুমি এখন একটি ইংলিশ মিডিয়াম স্কুলের শিক্ষিকা। খেলা চালিয়ে যাচ্ছেন সমানভাবে।

আবাহনীকে টানা শিরোপা এনে দেয়া রুমি বলেন, ‘দলটির প্রতি আমি কৃতজ্ঞ। তারা আমাকে সুযোগ দিচ্ছে। আর সেই কারণে আমিও আবাহনীকে একের পর এক শিরোপা এনে দিচ্ছি।’


 

 
শনি
রোব
সোম
মঙ্গল
বুধ
বৃহ
শুক্র