¦
বলিউডের ভ্যালেন্টাইন

পিয়াস রায় | প্রকাশ : ১২ ফেব্রুয়ারি ২০১৫

সিনেমা বিশ্বের একটা অন্যতম মুখ্য উপাদানই যখন প্রেম, সেখানে সেই জগতের মানুষদের মধ্যে ‘প্রেম’ নামক বস্তুটির বিশেষ আদান-প্রদান তো থাকবেই। তার কিছু অংশ ব্যক্তিগত লেবেল সেঁটে শিকেয় তোলা থাকলেও একটা বিরাট অংশ ‘ওপেন সিক্রেট’ হিসেবে ঠিকই চলে আসে ভক্ত দর্শকের গোচরে। সেটা একেবারে হালের সংস্কৃতি বললেও ভুল হবে। অমিতাভ-রেখা, দিলীপ কুমার-নার্গিস, রাজ কাপুর-নার্গিস, ধর্মেন্দ্র-মিনা কুমারী, মিঠুন- শ্রীদেবী থেকে হালের বলিউডি তারকাদের মধ্যে এমন ভূরি ভূরি উদাহরণই নজরে আসে। সবক্ষেত্রে এসব গুঞ্জন বাস্তবে সফলতার মুখ দেখেছে তেমনটা বলা যাবে না। ব্যর্থ প্রেম বরাবরই মিথ্যে গুঞ্জন হিসেবে হারিয়ে গেছে কালের গর্ভে। অন্যদিকে সফল প্রেমের পরিণতিতে বিয়ের ঘটনাও ঘটে আসছে সুপ্রাচীনকাল থেকেই।
হালের বাস্তবতার নিরিখে এ সফলদের মধ্যে খুব সহজেই উঠে আসে সাঈফ আলী খান-কারিনা কাপুর, ঐশ্বর্য রাই বচ্চন-অভিষেক বচ্চন, রানী মুখার্জি-আদিত্য চোপড়া, দিয়া মির্জা-সাহিল সাঙ্গা কিংবা সোহা আলী খান-কুনাল খেমু’র নাম। তবে সফল কিংবা ব্যর্থতার মাধ্যমে যারা চূড়ান্ত ফলাফলে পৌঁছে গেছেন তাদের না, বরং আজকের আয়োজনের মূল লক্ষ্য যারা আজও নানা রহস্যের ঘেরাটোপে ডুবে ডুবে জল খাচ্ছেন। হালের অমন তারকার তালিকায় সর্বাগ্রে উঠে আসবে রনবীর কাপুর ও ক্যাটরিনা কাইফের নাম। নানা প্রসঙ্গে নিজেদের প্রেমের বিষয়টিকে বরাবরই ‘মিডিয়া সৃষ্ট গুজব’ হিসেবে আখ্যা দিয়ে এলেও এ নিয়ে কানাঘুষার রসদের জোগান দিয়েছেন নিজেরাই। বিদেশের মাটিতে পাপারাজ্জির ছবির বস্তু হয়েছেন যেমন, তেমনি আত্মীয়-স্বজনদের কাছেও বিভিন্ন সময় শোনা গেছে তাদের প্রেমের আভাস। কিন্তু নিজ মুখে স্বীকার যেমন করেননি, বিয়ে বাগদান বিষয়েও এড়িয়ে গেছেন সুকৌশলে। কিন্তু তাতেই কী আর রক্ষা মেলে? পিছু ছাড়তে নারাজ তথ্যানুসন্ধানীরা যতদিন না গল্পটার একটা হিল্লে হয়ে যায়।
এক গতি আনুশকা শর্মা আর বিরাট কোহলীরও। খেলা আর সিনেমার জগতের বহু বছরের পুরনো ট্রেন্ডটাকে আবারও চাঙ্গা করতেই যেন তাদের এ মিশন। একটা টেলিভিশন কমার্শিয়ালের বরাতের পরিচয় শেষ পর্যন্ত গড়িয়েছে ক্রিজ-গ্যালারির মিলনমেলায়। এ নিয়ে কাদা ছোড়াছুড়িও কম হয়নি। বিরাটের মাঝখানের খারাপ পারফরমেন্সের দোষ বর্তেছে গ্যালারিতে থাকা আনুশকার ওপর। হালের বিশ্বকাপকে ঘিরে সঙ্গীনি নিরোধক আইসিসির আইন অবশ্য আনুশকাকে বিরাটের কয়েকশ’ গজের দূরত্বে রেখে এ দোষারোপের খড়্গ থেকে বাঁচাবে নিশ্চিত। কিন্তু তাতে সংবাদ অনুসন্ধানীদের কলম থেকে এ জুটি রক্ষা পাবে বলে খুব একটা মনে হয় না।
তথৈবচ অবস্থা রনবীর সিং ও দিপীকারও। রনবীর কাপুরের কাছ থেকে দাগা খাওয়া দিপীকা রামলীলা ছবির মাধ্যমে প্রথম সান্নিধ্য পান সিং সাহেবের। প্রথমটায় বিষয়টাকে রামলীলার পাবলিসিটি স্ট্যান্ট হিসেবে দেখা হলেও ধীরে ধীরে সত্যতার গন্ধ পাওয়া যায়। তবে প্রেমের বিষয়টাকে বরাবর মুখে এড়িয়ে গেলেও আশপাশের কর্মকাণ্ডে তেমনটা মানতে রাজি নন কেউই। হালে এক পার্টিতে ফুল হাতে দিপীকার পেছন পেছন রনবীরের ছোটাছুটি, এআইবির বিতর্কিত শোতে রনবীরকে সামনে রেখে অর্জুন কাপুরের দিপীকাকে ‘ভাবি’ সম্বোধন আর নানা জায়গায় তাদেও ঘোরাঘুরি বরং সন্দেহটাকেই উসকে দেয়।
অনেকের সঙ্গে জল ঘোলা করা শহীদ কাপুরকে গেল বছর থেকেই শোনা যাচ্ছে সোনাক্ষী সিনহার সঙ্গে চুটিয়ে প্রেম করার কথা। বিষয়টাতে দু’জনেরই অতিরিক্ত গোপনিয়তা রক্ষা করার জন্যই খুব একটা হালে বাতাস পাচ্ছে না সংবাদ মাধ্যমগুলো। অভিনেত্রী নার্গিস ফাখরীর সঙ্গে উদয় চোপড়ার প্রেমটা এতদিন ওপেন সিক্রেট হলেও বেশ কিছুদিন আগে বেশ ঘটা করেই তাদের প্রেম পর্বের সমাপ্তির খবর প্রচার করেন দু’জনে। কিন্তু তাই বলে সোশ্যাল নেটওয়ার্কে দমে নেই কেউই। বরং আগের চেয়েও একটু ঘটা করেই চলছে তাদের অনলাইন খুনসুটি। কে যানে এসব খুনসুটির জল শেষতক কোথায় গিয়ে গড়ায়। তবে এ ক্ষেত্রে হারমান বাওয়েজা আর বিপাশা বসুর বিচ্ছেদের বিষয়টিতে অনেক ভক্তরই দীর্ঘশ্বাস ফেলেছে বলে বোধ হয়। তবে যত যাই হোক আশিকী টু জুটি আদিত্য রায় কাপুর আর শ্রদ্ধা কাপুরের প্রেমের পোস্টমর্টেম এখনও কেউ সাফল্যের সঙ্গে করতে না পারলেও কুছ তো হ্যায়, সে বিষয়ে বিন্দুমাত্র সন্দেহ নেই কারও। অন্যদিকে আরেক ইয়ংস্টার জুটি আলিয়া ভাট ও অর্জুন কাপুরও নাকি বেশ ভালোই ডুবে ডুবে জল খাচ্ছেন বলেই জানা যায় তাদের ঘিরে সাম্প্রতিক গুঞ্জনগুলোকে ঘাঁটাঘাঁটি করলে। তবে শুধু ইয়ংস্টারই নয়, পরিচালক অনুরাগ কশ্যপ নাকি অভিনেত্রী হুমা কুরাইশির সঙ্গে প্রেমে মজেই শেষ পর্যন্ত ইতি ঘটিয়েছেন কল্কি কোয়েচলিনের সঙ্গে। প্রেমের এমন গল্প খুঁজলে হয়তো উদাহরণ মিলবে ভূরি ভূরি। কিন্তু অনেকটা হতাশ হয়েই বলতে হয়, আসছে এ ভ্যালেন্টাইনের দিনটিকে ঘিরে বলিউডে আসছে না কোনো নিপাট ভালোবাসার ছবি। মুক্তির তালিকায় থাকা মাত্র দুটি ছবির একটি ‘রয়’ যাতে রনবীর কাপুরের চৌর্যবৃত্তির আখ্যান নিয়েই ব্যস্ত থাকতে হবে দর্শককে। আরেকটা ছবি সামাজিক বার্তাবাহী বিধায় সে বিষয় বক্তব্য না বাড়ানোই শ্রেয়। তবে কে জানে? ‘রয়’ এর পর্দায় পরিচালক রনবীর কাপুর আর জ্যাকলিন ফার্নান্দেজকে প্রেমের সুতায় বাঁধবেন কিনা। নাকি বিষয়টিকে ভ্যালেনাটাইন সারপ্রাইজ হিসেবে দর্শকদের উপহার দিতে শুধুই রয়-এর রোমাঞ্চকর চৌর্যবৃত্তির বিবরণ দিয়েই সন্তুষ্ট রেখেছেন ভক্তদের।
 

তারাঝিলমিল পাতার আরো খবর
৭ দিনের প্রধান শিরোনাম

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৮৪১৯২১১-৫, রিপোর্টিং : ৮৪১৯২২৮, বিজ্ঞাপন : ৮৪১৯২১৬, ফ্যাক্স : ৮৪১৯২১৭, সার্কুলেশন : ৮৪১৯২২৯। ফ্যাক্স : ৮৪১৯২১৮, ৮৪১৯২১৯, ৮৪১৯২২০

Developed by
close
close