¦
তারকার প্রিয় তারকা

বিএম ইমরান ও মৌসুমী মিলি | প্রকাশ : ১২ ফেব্রুয়ারি ২০১৫

আঁখি আলমগীর : বাংলাদেশের সকল ক্রিকেট খেলোয়ার আমার প্রিয়। তবে সবচেয়ে প্রিয় সাকিব-আল-হাসান। বাংলাদেশ আবশ্যই ভালো খেলবে। খেলায় হার-জিত থাকবেই। বাংলাদেশ হারুক বা জিতুক আমরা তাদের সঙ্গে আছি। বাংলাদেশের ক্রিকেট এবার তাদের সর্বোচ্চ খেলাটি খেলবে। দেশের সম্মান বিশ্বের বুকে আর একবার জাগিয়ে ঘরে ফিরবে। তাদের জন্য আমার শুভকামনা রইল।
তারিন : আমার খুব কাছের মানুষ যারা তারা প্রত্যেকেই জানেন আমি খুব খেলা পাগল একজন মানুষ। বিশেষ করে ক্রিকেট। এর আগেও আমি খেলা দেখতে বিভিন্ন সময়ে স্টেডিয়ামে গিয়েছি। এমনও হয়েছে যে বাংলাদেশের খেলার সময় আমি জ্বরে ভুগছিলাম। কিন্তু তারপরও আমি স্টেডিয়ামে গিয়ে খেলা দেখেছি। তবে এবার কী হয় জানি না। কারণ এই মুহূর্তে কাজের চাপটা একটু বেশি। তবে টিভির পর্দায় টাইগারদের নৈপুণ্য দেখার অপেক্ষায় আছি। আশা করি এবার আমরা অনেক ভালো করব। আমার প্রিয় খেলোয়াড় সাকিব আল হাসানই হচ্ছে বাংলাদেশ দলের নির্ভরতার প্রতীক।
ফারহানা মিলি : আমার একমাত্র ছেলে রুসলান। ওর বয়স এখন তিন। শুটিং আর সন্তানকে সময় দিতে দিতেই আমার সময় চলে যায়। যে কারণে বিয়ের আগে সময় নিয়ে খেলা দেখতে পারলেও এখন আর সেভাবে সময় হয়ে ওঠে না খেলা দেখার। তবে আমি খেলা সম্পর্কে বেশ খোঁজখবর রাখি। কখন কোথায় কোন খেলা হচ্ছে না-হচ্ছে তা জানার আগ্রহ আমার ছোটবেলা থেকেই। আইসিসি কাপ নিয়ে আমার আগ্রহ আছে। আমি চাই বাংলাদেশ প্রতিটি খেলায় ভালো করবে। এখন একটা বড় জয় আমাদের খুব দরকার। ক্রিকেটে আমার প্রিয় খেলোযাড় হচ্ছে মুশফিকুর রহিম। ওর খেলা আমার ভালো লাগে।
মেহজাবিন চৌধুরী : ক্রিকেট খেলা এমন একটি খেলা যা বুঝতে বুঝতেই আমার অনেকটা সময় পেরিয়ে গেছে। একটা সময় ছিল যখন আমার বয়স পাঁচ-ছয় হবে, তখন আমি দেশের বাইরে ছিলাম। তখন ক্রিকেট খেলা খুব বেশি বুঝতাম না আমি। তবে এখন এই খেলাতে আমার প্রবল আগ্রহ। মাঠে না যাই টিভিতে খেলাটি উপভোগ করার চেষ্টা করি, বিশেষ করে যখন কোনো বড় আসরে খেলা হয়। আইসিসি বিশ্বকাপ তো সবচেয়ে বড় আসর। তাই বিশ্বকাপের সবগুলো খেলা দেখার ইচ্ছা আছে। বাংলাদেশ টিমের জন্য শুভ কামনা। সাকিব আল হাসানের হাত ধরেই কিন্তু এবারের বাংলাদেশ দলের সাফল্য আসবে বলে আমার বিশ্বাস।
বিদ্যা সিনহা সাহা মিম : কিছুদিন আগে সুইটহার্ট সিনেমার শুটিং শেষ করলাম। টানা ১০-১২ দিন ব্যস্ত থাকব তন্ময় তানসেনের ‘পদ্ম পাতার জল’ সিনেমার শুটিং নিয়ে। তাই বিশ্বকাপের খেলা খুব বেশি দেখার সুযোগ হয়ে উঠবে না। আমার এমনই দুর্ভাগ্য যখন কোনো ভালো খেলা থাকে তখন আমার টানা শুটিং থাকে। এর আগেও এমন ঘটনা ঘটেছে। তবে এবার চেষ্টা করব বিশেষ করে বাংলাদেশের খেলাগুলো উপভোগ করতে। বাংলাদেশ দলের প্রত্যেক খেলোয়াড়ের জন্য আমার শুভ কামনা রইল। আমার বিশ্বাস বাংলাদেশ এবার অনেক ভালো করবে। কারণ এখন বাংলাদেশ একটি ব্যালেন্সড টিম। তাছাড়া এই মুহুর্তে দলে আছেন আমার প্রিয় খেলোয়াড় সাকিব আল হাসান। তার হাত ধরেই আমরা এগিয়ে যাব।
ঈশিতা : আমার প্রিয় দুটি খেলার মধ্যে একটি হচ্ছে ক্রিকেট। তাই ক্রিকেট খেলা চেষ্টা করি একটু সময় নিয়ে উপভোগ করতে। কারণ এই খেলায় কখন কী হয়ে যায় তা কেউই বলতে পারে না। আইসিসি’র প্রস্তুতি ম্যাচে বাংলাদেশ পাকিস্তানের কাছে হারলেও আমার বিশ্বাস বাংলাদেশ আগামী খেলাগুলোতে অনেক ভালো খেলবে। দলের প্রত্যেকের জন্য রইল আমার শুভ কামনা। সাকিব. তামিমের খেলা আমার বেশ ভালো লাগে।
অপূর্ব : এককথায় বলতে চাই আমার প্রিয় ক্রিকেট খেলোয়াড় সাকিব আল হাসান। বাংলাদেশের ক্রিকেটের সে এক উজ্জ্বল নক্ষত্র। আশা করি বাংলাদেশ দল এবার ভালো করবে। তাদের সর্বোচ্চ দিয়ে দেশের সম্মান রক্ষা করবে আশা করি। দেশের প্রতিটি খেলা দেখব। জয়-পরাজয় পরের কথা বাংলাদেশ ভালো খেলবে ইনশআল্লাহ। ছোটবেলা থেকেই আমি খেলাধুলার পাগল। স্কুল বা কলেজে সব সময় ক্রিকেট বা ফুটবল খেলতাম। ছোটবেলার স্মৃতি অনেক মনে পড়ে। ব্যাট হাতে মাঠে নামার স্মৃতি বড় বেশি মনে পড়ে।
আসিফ আকবর : আশাকরি, বাংলাদেশ ক্রিকেট দল দ্বিতীয় রাউন্ডে খেলবে। বিষয়টি কঠিন হলেও আশা করছি। বাংলাদেশের ক্রিকেট দলের খেলা অনেক উন্নত হয়েছে। সেই ধারা বজায় রাখবে। অনেক নতুন খেলোয়াড় নিয়ে এবারের দল সাজানো। নতুনরা এবারের চমক দেখাতে পারে। তাদের ভালো খেলা দেখার প্রতিক্ষায় আছি। ক্রিকেট নিয়ে আমার স্মৃতির বলতে গেলে একটি কথা বললেই বুঝা যাবে। আমি একজন শিক্ষিত ক্রিকেট খেলোয়াড়। আমার পড়াশুনার একটি অংশ ছিলো ক্রিকেট খেলা। অনেক স্মৃতি জড়িয়ে আছে। ক্রিকেটের জন্য আমার গান ‘ বেশ বেশ সাবাস বাংলাদেশ’ গানটি এখনও সবার মনে আছে। আমার প্রিয় ক্রিকেট খেলোয়াড় অস্ট্রেলিয়ার মাক্সওয়েল।
 

তারাঝিলমিল পাতার আরো খবর
৭ দিনের প্রধান শিরোনাম

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৮৪১৯২১১-৫, রিপোর্টিং : ৮৪১৯২২৮, বিজ্ঞাপন : ৮৪১৯২১৬, ফ্যাক্স : ৮৪১৯২১৭, সার্কুলেশন : ৮৪১৯২২৯। ফ্যাক্স : ৮৪১৯২১৮, ৮৪১৯২১৯, ৮৪১৯২২০

Developed by
close
close