¦

এইমাত্র পাওয়া

  • বঙ্গবন্ধু সেতুর পশ্চিম পার্শ্বে কোনাবাড়ি এলাকায় বাসে পেট্রোল বোমা হামলা: ৬ যাত্রী দগ্ধ ২ জনের অবস্থা আশংকাজনক
আফগানিস্তানে বেসামরিক নাগরিক নিহতের হার ২৫% বেড়েছে

যুগান্তর ডেস্ক | প্রকাশ : ১৯ ফেব্রুয়ারি ২০১৫

আফগানিস্তানে তালেবানদের সঙ্গে সরকারি বাহিনীর যুদ্ধে বেসামারিক নাগরিক নিহতের সংখ্যা বাড়ছে। ২০১৩ সালের তুলনায় পরের বছর অর্থাৎ ২০১৪ সালে নিহতের এ হার ২৫ শতাংশ বেড়েছে। বুধবার জাতিসংঘ প্রকাশিত এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়।
তালেবানের বিরুদ্ধে আফগানিস্তানে মার্কিন নেতৃত্বাধীন পশ্চিমা জোটের যুদ্ধে হতাহতদের নিয়ে ২০০৯ সাল থেকে প্রতিবেদন প্রকাশ করছে জাতিসংঘ। আফগানিস্তানে জাতিসংঘের সহায়তা মিশন এ প্রতিবেদন তৈরি করে থাকে। বুধবার সংস্থাটির প্রকাশিত প্রতিবেদনে দেখা যায়, ২০১৩ সালে আফগানিস্তানে ৮ হাজার ৬৩৭ বেসামরিক নাগরিক হতাহত হয়েছেন। পরের বছর অর্থাৎ ২০১৪ সালে এ সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ১০ হাজার ৫৪৮ জনে। এদের মধ্যে নিহত হয়েছে ৩ হাজার ৬৯৯ জন। ২০১৩ সালের তুলনায় ওই বছর নিহতের সংখ্যা বেড়েছে ২৫ শতাংশ। অপরদিকে ২০১৪ সালে আহত হয়েছে ৬ হাজার ৮৪৯ জন। এর আগের বছরের তুলনায় এ সংখ্যা বেড়েছে ২১ শতাংশ। প্রতিবেদনে বলা হয়, সংঘর্ষে উচ্চ ক্ষমতাসম্পন্ন বিস্ফোরক জাতীয় অস্ত্র ব্যবহারই এ হতাহতের সংখ্যা বৃদ্ধির প্রধান কারণ। এছাড়া আঞ্চলিক কেন্দ্রগুলোতে স্থল অভিযান বৃদ্ধিও এর অন্যতম কারণ।
এছাড়া অনেক বেসামরিক নাগরিক দুই পক্ষের সংঘর্ষ চলাকালে মাঝখানে পড়ে যান। এর ফলেও হতাহতের সংখ্যা বাড়ছে। প্রতিবেদনে আরও বলা হয়, সংঘর্ষে শিশুদের হতাহতের পরিমাণ ৪০ শতাংশ ও নারীদের ২১ শতাংশ বেড়েছে। জাতিসংঘ বলছে, বেসামরিক নাগরিক হতাহতের এই নতুন সংখ্যা আফগান সমাজে চরম আর্থিক ও সামাজিক দুর্দশা ডেকে আনছে। পুরুষদের মৃত্যু কিংবা আহত হওয়ার কারণে নারীদেরই পরিবারের একমাত্র ভরণপোষণের দায়িত্ব নিতে হয়।
তাই বাধ্য হয়ে তাদের মেয়ের বিয়ে বন্ধ করতে হচ্ছে কিংবা সন্তানদের স্কুলে যাওয়া বন্ধ করতে হচ্ছে।
আফগানিস্তানে জাতিসংঘের সহায়তা মিশনের মানবাধিকার বিষয়ক পরিচালক জর্জেট্টি গ্যাংনন বলেন, আফগান নারী ও শিশুদের জন্য সংঘর্ষে স্বামী ও বাবা নিহত হওয়া যন্ত্রণা ও কষ্টের মাত্র শুরু। আল-আজিরা।
দশ দিগন্ত পাতার আরো খবর
৭ দিনের প্রধান শিরোনাম

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৮৪১৯২১১-৫, রিপোর্টিং : ৮৪১৯২২৮, বিজ্ঞাপন : ৮৪১৯২১৬, ফ্যাক্স : ৮৪১৯২১৭, সার্কুলেশন : ৮৪১৯২২৯। ফ্যাক্স : ৮৪১৯২১৮, ৮৪১৯২১৯, ৮৪১৯২২০

Developed by
close
close