jugantor
ভারতের বিরুদ্ধে ‘উচ্চ বাচ্য’ বর্ষণে মন্ত্রীদের বারণ নওয়াজের
অতীত নিয়ে খোঁড়াখুঁড়ির পরিবর্তে শান্তি আলোচনার জন্য উৎসাহব্যঞ্জক হয় কেবল এমন ধরনের বিবৃতি দেয়া যাবে

  যুগান্তর ডেস্ক  

২০ ডিসেম্বর ২০১৫, ০০:০০:০০  | 

পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী নওয়াজ শরিফ তার সরকারের মন্ত্রীদের ভারতের বিরুদ্ধে কোনো ধরনের উচ্চ বাচ্য বর্ষণ বা ঠ্যাস মারা বক্তব্য না দেয়ার নির্দেশ দিয়েছেন।

পাকিস্তান ও ভারতের মধ্যে যাতে চলমান শান্তি প্রক্রিয়া ব্যাহত না হয়, সেজন্য তিনি এ নির্দেশ দিয়েছেন। শুক্রবার নওয়াজ সরকারের এক ঘনিষ্ঠ কর্মকর্তার বরাত দিয়ে শনিবার এ খবর নিশ্চিত করেছে টাইমস অব ইন্ডিয়া।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক ওই কর্মকর্তা বলেন, প্রধানমন্ত্রী তার ঘনিষ্ঠ সহযোগী ও মন্ত্রিসভার সদস্যদের শান্তি প্রক্রিয়া এগিয়ে নেওয়ার বিষয়ে কাজ করতে বলেছেন। অতীত নিয়ে খোঁড়াখুঁড়ির পরিবর্তে শান্তি আলোচনার জন্য উৎসাহব্যঞ্জক হয়, কেবল এমন ধরনের বিবৃতি দেয়া যাবে।

ওই কর্মকর্তা আরও জানিয়েছেন, ভারতের সঙ্গে সম্পর্ক উন্নত করার বিষয়ে আশাবাদী প্রধানমন্ত্রী। তিনি মনে করছেন, প্রতিবেশী দেশ দুটির মধ্যে সম্পর্ক ভালো হলে তা গোটা অঞ্চলে কল্যাণ বয়ে আনবে।

ওই কর্মকর্তার মন্তব্য, সম্প্রতি ভারত থেকে যেসব বিবৃতি আসছে তা নিয়ে পাক প্রধানমন্ত্রী বেশ বিরক্ত। কেননা ওই সব বিবৃতিতে বলা হয়েছে, নয়াদিল্লি কেবল পাকিস্তান অধিকৃত কাশ্মীর নিয়েই আলোচনা করতে ইচ্ছুক।

কিন্তু এটি যে ভারত সরকারের নীতি নয়, তা তিনি বুঝতে পেরেছেন। নওয়াজ শরিফ ভারতের সঙ্গে আলোচনায় কাশ্মীর, সন্ত্রাসবাদ ও দ্বিপক্ষীয় বাণিজ্যকে প্রাধান্য দিতে চাইছেন।

প্রসঙ্গত, গত সপ্তাহে ভারতের পররাষ্ট্রমন্ত্রী সুষমা স্বরাজ ইসলামাবাদ সফর করেন। এর মধ্য দিয়ে বৈরী দেশ দুটির মধ্যে সংলাপ শুরুর সম্ভাবনা তৈরি হয়েছে।


 

সাবমিট

ভারতের বিরুদ্ধে ‘উচ্চ বাচ্য’ বর্ষণে মন্ত্রীদের বারণ নওয়াজের

অতীত নিয়ে খোঁড়াখুঁড়ির পরিবর্তে শান্তি আলোচনার জন্য উৎসাহব্যঞ্জক হয় কেবল এমন ধরনের বিবৃতি দেয়া যাবে
 যুগান্তর ডেস্ক 
২০ ডিসেম্বর ২০১৫, ১২:০০ এএম  | 

পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী নওয়াজ শরিফ তার সরকারের মন্ত্রীদের ভারতের বিরুদ্ধে কোনো ধরনের উচ্চ বাচ্য বর্ষণ বা ঠ্যাস মারা বক্তব্য না দেয়ার নির্দেশ দিয়েছেন।

পাকিস্তান ও ভারতের মধ্যে যাতে চলমান শান্তি প্রক্রিয়া ব্যাহত না হয়, সেজন্য তিনি এ নির্দেশ দিয়েছেন। শুক্রবার নওয়াজ সরকারের এক ঘনিষ্ঠ কর্মকর্তার বরাত দিয়ে শনিবার এ খবর নিশ্চিত করেছে টাইমস অব ইন্ডিয়া।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক ওই কর্মকর্তা বলেন, প্রধানমন্ত্রী তার ঘনিষ্ঠ সহযোগী ও মন্ত্রিসভার সদস্যদের শান্তি প্রক্রিয়া এগিয়ে নেওয়ার বিষয়ে কাজ করতে বলেছেন। অতীত নিয়ে খোঁড়াখুঁড়ির পরিবর্তে শান্তি আলোচনার জন্য উৎসাহব্যঞ্জক হয়, কেবল এমন ধরনের বিবৃতি দেয়া যাবে।

ওই কর্মকর্তা আরও জানিয়েছেন, ভারতের সঙ্গে সম্পর্ক উন্নত করার বিষয়ে আশাবাদী প্রধানমন্ত্রী। তিনি মনে করছেন, প্রতিবেশী দেশ দুটির মধ্যে সম্পর্ক ভালো হলে তা গোটা অঞ্চলে কল্যাণ বয়ে আনবে।

ওই কর্মকর্তার মন্তব্য, সম্প্রতি ভারত থেকে যেসব বিবৃতি আসছে তা নিয়ে পাক প্রধানমন্ত্রী বেশ বিরক্ত। কেননা ওই সব বিবৃতিতে বলা হয়েছে, নয়াদিল্লি কেবল পাকিস্তান অধিকৃত কাশ্মীর নিয়েই আলোচনা করতে ইচ্ছুক।

কিন্তু এটি যে ভারত সরকারের নীতি নয়, তা তিনি বুঝতে পেরেছেন। নওয়াজ শরিফ ভারতের সঙ্গে আলোচনায় কাশ্মীর, সন্ত্রাসবাদ ও দ্বিপক্ষীয় বাণিজ্যকে প্রাধান্য দিতে চাইছেন।

প্রসঙ্গত, গত সপ্তাহে ভারতের পররাষ্ট্রমন্ত্রী সুষমা স্বরাজ ইসলামাবাদ সফর করেন। এর মধ্য দিয়ে বৈরী দেশ দুটির মধ্যে সংলাপ শুরুর সম্ভাবনা তৈরি হয়েছে।


 

 
শনি
রোব
সোম
মঙ্গল
বুধ
বৃহ
শুক্র