¦
নবম-দশম শ্রেণির শিক্ষার্থীদের পড়াশোনা

মুহম্মদ আল মাসুদ | প্রকাশ : ০৬ মে ২০১৫

সিনিয়র শিক্ষক, মনিপুর উচ্চবিদ্যালয় ও কলেজ, মিরপুর, ঢাকা
মানুষ
-কাজী নজরুল ইসলাম
নিচের অনুচ্ছেদটি পড় এবং প্রশ্নগুলোর উত্তর দাও
ঘূর্ণিঝড় আইলায় লণ্ডভণ্ড হয়ে যায় শরণখোলা গ্রাম। এতে গ্রামের মানুষ সবকিছু হারিয়ে পথে এসে দাঁড়ায়। চারদিকে সবাই একটু খাবারের জন্য হাহাকার করে। পাগলের মতো একে অন্যের কাছে মিনতি করে খাদ্যের জন্য। কিন্তু কোথাও কোনো খাবার নেই। এ সময় একটি এনজিওর প্রতিনিধি হয়ে ত্রাণ সামগ্রী নিয়ে এগিয়ে আসে অন্তর। সকলে ত্রাণ পেয়ে আবার নতুন করে বাঁচার স্বপ্ন দেখে। এই সহানুভূতির জন্য গ্রামের সকলেই অন্তরের কাজের প্রশংসা করে।
ক. মোল্লা মুসাফিরকে কী বলে গালি দিয়েছিল?
খ. মোল্লা মসজিদে তালা দিয়েছিল কেন?
গ. উদ্দীপকের অসহায় মানুষগুলোর সঙ্গে ‘মানুষ’ কবিতার যে চরিত্রের সাদৃশ্য রয়েছে তা তুলে ধর।
ঘ. অন্তর চরিত্রের মানসিকতায়, মোল্লা ও পুরোহিত প্রশংসিত হতে পারত- মন্তব্যটি বিশ্লেষণ কর।
উত্তর ক : মোল্লা মুসাফিরকে শালা বলে গালি দিয়েছিল।
উত্তর খ : নিজের স্বার্থের জন্য মোল্লা গোস্ত রুটি নিয়ে মসজিদে তালা দিয়েছিল। ক্ষুধার্ত মুসাফির মসজিদে অঢেল খাদ্য দেখে মোল্লার কাছে ক্ষুধা নিবৃত্তির জন্য মিনতি জানায়। কিন্তু মোল্লা মুসাফিরকে অবজ্ঞা করে নামাজ পড়ে কিনা তা জানতে চায়। একজন মানুষকে ক্ষুধার হাত থেকে না বাঁচিয়ে মোল্লা হৃদয়হীনতার পরিচয় দিয়েছে। আর অঢেল খাদ্য নিয়ে স্বার্থরক্ষায় সচেষ্ট হয়েছে। মোল্লা খাদ্য নিয়ে মসজিদে তালা দিয়েছিল।
উত্তর গ : উদ্দীপকের অসহায় ক্ষুধার্ত মানুষগুলোর সঙ্গে ‘মানুষ’ কবিতায় মুসাফিরের সাদৃশ্য রয়েছে। ‘মানুষ’ কবিতায় সাম্যের কবি কাজী নজরুল ইসলাম দেখিয়েছেন ধর্মের দোহাই দিয়ে কীভাবে মানুষ মানুষকে অবজ্ঞা করে। কবিতায় নিরন্ন অসহায় এক ব্যক্তি সাত দিন খেতে না পেয়ে হাত পাতে পুরোহিতের কাছে। কিন্তু পুরোহিত তার কোনো কথা না শুনে দরজা বন্ধ করে দেয়। আবার ক্ষুধার্ত মুসাফিরকে মসজিদের মোল্লা নামাজ না পড়ার অপরাধে তাড়িয়ে দেয়। একজন ক্ষুধার্ত অসহায় মানুষের আর্তনাদ তাদের মন গলাতে পারেনি। পুরোহিত ও মোল্লা দু’জনই ভুলে যায় জগতের সর্বশ্রেষ্ঠ মানবধর্মের কথা।
উদ্দীপকে প্রাকৃতিক দুর্যোগে শরণখোলা গ্রামবাসী সবকিছু হারিয়ে নিঃস্ব হয়ে যায়। তারা মানুষের কাছে উন্মাদের মতো ক্ষুধা নিবারণের জন্য খাদ্য চাইতে থাকে। তাদের কাছে তখন ক্ষুধা নিবারণের চেষ্টা সবচেয়ে বেশি গুরুত্ব পায়। মুসাফিরের মতো শরণখোলা গ্রামের মানুষগুলোও মিনতি করে কোথাও খাবার পায়নি। তাই বলা যায়, উদ্দীপকের অসহায় মানুষের সঙ্গে কবিতায় বর্ণিত ক্ষুধার্ত মুসাফিরের সাদৃশ্য রয়েছে।
উত্তর ঘ : উদ্দীপকের অন্তরের মতো যদি ‘মানুষ’ কবিতার পুরোহিত ও মোল্লা মানবিকতা সম্পন্ন হতো তবে তারাও সকলের প্রশংসার পাত্র হতে পারতো। ‘মানুষ’ কবিতায় কবি মানুষের প্রতি সহানুভূতিশীল আচরণের মধ্যেই পৃথিবীর শ্রেষ্ঠ ধর্ম মানবধর্ম রয়েছে বলে উল্লেখ করেছেন। উপবাসী মানুষটি ক্ষুধায় কাতর হয়ে ক্ষুধা নিবৃত্তির জন্য বহু আশা করে মন্দির ও মসজিদের অভিমুখে গেলেও তার ক্ষুধা নিবৃত্তির ব্যবস্থা হয়নি।
সে প্রথমে মন্দিরের পুরোহিতের নিকট ক্ষুধার কথা জানায় কিন্তু কোনো লাভ হয়নি। এরপর সে যায় মসজিদের মোল্লার কাছে। কিন্তু মোল্লাও তাকে ফিরিয়ে দেয়। মূলত তাদের দু’জনই ধর্মের মূল বিষয় যে মানবতা ও মানবকল্যাণ তা ভুলে গিয়েছে। উদ্দীপকের অন্তর মানবতাবোধে তাড়িত হয়ে মানুষের সেবা করেছে।
প্রাকৃতিক দুর্যোগের আঘাতে অসহায় হয়ে পড়ে শরণখোলাবাসী। তাদের বাঁচাতে দেবদূতের মতো এ গিয়ে আসে এনজিও কর্মী অন্তর। এ মহৎ কাজের জন্য সে সকলের নিকট প্রশংসিত হয়। কবিতায় মোল্লা ও পুরোহিত উদ্দীপকের অন্তরের বিপরীত চরিত্রের অধিকারী। তারা যদি অন্তরের মতো সকলের ঊর্ধ্বে মানবতাকে স্থান দিতো তবে তারাও অন্তরের মতো প্রশংসিত হতো।
ভূগোল ও পরিবেশ
দেওয়ান সামছুর রহমান
সিনিয়র শিক্ষক, গোয়ালপাড়া হাইস্কুল, সোনারগাঁ
৩১. নিজ অক্ষের উপর পূর্ব থেকে পশ্চিমে পাক খায় কোন গ্রহটি?
ক. মঙ্গল খ. পৃথিবী
গ. বৃহস্পতি হুঘ. শুক্র
৩২. শুক্র গ্রহ-
i. সৌরজগতের সবচেয়ে উজ্জ্বল ও উত্তপ্ত গ্রহ
ii. সূর্য থেকে ৮.৮ কোটি কিঃ মিঃ দূরে অবস্থিত
iii. এসিড বৃষ্টি হয়ে থাকে
কোনটি সঠিক?
ক. i খ. ii
গ. i ও ii√ঘ. i ও iii
৩৩. মঙ্গল গ্রহে কার্বন ডাই অক্সাইডের পরিমাণ শতকরা কত?
ক. ২৫ ভাগ খ. ৫৫ ভাগ
গ. ৮৮ ভাগ √ঘ. ৯৯ ভাগ
৩৪. পৃথিবীর ব্যাস কত?
ক. ৪,৮৫৯ কিঃ মিঃ
খ. ১২,১০৪ কিঃ মিঃ
√গ. ১২,৬৬৭ কিঃ মিঃ
ঘ. ৬,৭৮৭ কিঃ মিঃ
৩৫. সৌরজগতের গ্রহগুলোর মধ্যে একমাত্র প্রাণের উপস্থিতি আছে কোথায়?
√ক. পৃথিবীতে খ. মঙ্গলে
গ. বৃহস্পতিতে ঘ. শুক্রে
 

টিউটোরিয়াল পাতার আরো খবর
৭ দিনের প্রধান শিরোনাম

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৮৪১৯২১১-৫, রিপোর্টিং : ৮৪১৯২২৮, বিজ্ঞাপন : ৮৪১৯২১৬, ফ্যাক্স : ৮৪১৯২১৭, সার্কুলেশন : ৮৪১৯২২৯। ফ্যাক্স : ৮৪১৯২১৮, ৮৪১৯২১৯, ৮৪১৯২২০

Developed by
close
close