জাবি প্রতিনিধি    |    
প্রকাশ : ১৪ নভেম্বর, ২০১৭ ২২:৫৯:০৮ প্রিন্ট
অন্যকে দিয়ে ভর্তি পরীক্ষা, জাবিতে আরও ৪ শিক্ষার্থী আটক
ইয়াছিন আরাফাত, শেখ পারভেজ আহমেদ, রাকিব হোসেন ও আবু রায়হান।

জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ে ২০১৭-১৮ শিক্ষাবর্ষের ভর্তি পরীক্ষায় জালিয়াতির অভিযোগে আরও চার শিক্ষার্থীকে আটক করা হয়েছে।

এ নিয়ে গত তিন দিনে ১৪ জনকে আটক করে পুলিশে দিয়েছে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন।

সর্বশেষ মঙ্গলবার ৪ জনকে আটক করে আশুলিয়া থানা পুলিশে সোপর্দ করা হয়। এরা হলেন- ইয়াছিন আরাফাত, শেখ পারভেজ আহমেদ, রাকিব হোসেন ও আবু রায়হান।

আটক চারজনের মধ্যে গাজীপুর জেলার শ্রীপুরের শেখ কামাল উদ্দীনের ছেলে পারভেজ ‘সি’ ইউনিটে ১৫৫তম স্থান লাভ করেন।

একই ইউনিটে মুন্সিগঞ্জ জেলার শ্রীনগর থানার আহমেদ আলীর ছেলে রাকিব হোসেন ৫৮তম ও নাটোরের লালপুর থানার আবু বক্কর সিদ্দীকের ছেলে আবু রায়হান ১৩তম স্থান লাভ করেন।

এ ছাড়া ময়মনসিংহের চরভিলা গ্রামের নুর মোহাম্মদের ছেলে ইয়াসীন আরাফাত ‘সি-১’ ইউনিটে ৫ম স্থান লাভ করেন।

বিশ্ববিদ্যালয় সূত্রে জানা যায়, ভর্তি পরীক্ষার সাক্ষাৎকার দিতে আসলে উত্তরপত্রের লেখার সঙ্গে হাতের লেখা না মেলায় তাদেরকে আটক করা হয়।

পরে বিশ্ববিদ্যালয়ের নিরাপত্তা অফিসে নিয়ে তাদের জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়।

প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে পারভেজ ৪ লাখ ও রাকিব আড়াই লাখ টাকার বিনিময়ে প্রক্সির সহায়তায় চান্স পাওয়ার কথা স্বীকার করেন।

তবে অভিযুক্ত আবু রায়হান ও ইয়াসীন আরাফাত জালিয়াতির কথা অস্বীকার করেন। নিজেরা ভর্তি পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করে চান্স পেয়েছেন বলে দাবি করেন তারা।

এ বিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর অধ্যাপক তপন কুমার সাহা যুগান্তরকে বলেন, এদের প্রত্যেকের হাতের লেখায় অমিল পাওয়া গেছে। এ পর্যন্ত জালিয়াতির অভিযোগে আটককৃতদের পুলিশে সোপর্দ করে তাদের বিরুদ্ধে মামলা করা হয়েছে।

আশুলিয়া থানার ওসি আবদুল আউয়াল মামলার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

উল্লেখ্য, সাক্ষাৎকারের প্রথম ও দ্বিতীয় দিনে যথাক্রমে ৪ জন ও ৬ জনকে আটক করে পুলিশে সোপর্দ করে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন।


আরো পড়ুন
  • শীর্ষ খবর
  • সর্বশেষ খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৮৪১৯২১১-৫, রিপোর্টিং : ৮৪১৯২২৮, বিজ্ঞাপন : ৮৪১৯২১৬, ফ্যাক্স : ৮৪১৯২১৭, সার্কুলেশন : ৮৪১৯২২৯। ফ্যাক্স : ৮৪১৯২১৮, ৮৪১৯২১৯, ৮৪১৯২২০

Design and Developed by

© ২০০০-২০১৭ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত