গৌরীপুর (ময়মনসিংহ) প্রতিনিধি    |    
প্রকাশ : ১৭ জুলাই, ২০১৭ ২৩:২৮:৩৮ প্রিন্ট
ধর্ষণে শ্যালককে সহযোগিতা, দুলাভাই গ্রেফতার

নিখোঁজের চারদিন পর ধর্ষণের শিকার ময়মনসিংহের ভালুকা উপজেলার মাস্টারবাড়ি এলাকার একজন গার্মেন্টকর্মীকে (১৫) অজ্ঞান অবস্থায় শম্ভুগঞ্জ এলাকা থেকে উদ্ধার করেছে পুলিশ।

এ ঘটনায় গৌরীপুর থানায় সোমবার রাতে মামলা দায়ের করা হয়েছে।

ধর্ষণে সহযোগিতার অভিযোগে গৌরীপুর উপজেলার রামগোপালপুর ইউনিয়নের গুজিখাঁ গ্রামের মৃত শুকুর আলীর ছেলে মঞ্জুরুল হককে (৩০)  গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

ভিকটিম ও পুলিশ জানায়, গৌরীপুর উপজেলার ডৌহাখলা ইউনিয়নের নন্দীগ্রামের সিদ্দিকের ছেলে সাহিদ মিয়া (২২) ও তার ভগ্নিপতি রামগোপালপুর ইউনিয়নের গুজিখাঁ গ্রামের মৃত শুকুর আলীর ছেলে মঞ্জুরুল হক (৩০) গত শুক্রবার সকালে গার্মেন্টে যাওয়ার সময় ওই তরুণীকে সিএনজিতে জোর করে তুলে নিয়ে যান।

দুলাভাই মঞ্জুরুল হকের বাড়িতেই তার শালা সাহিদ মিয়া ওই তরুণীকে ওইদিন রাতে ধর্ষণ করে।

এরপর বিয়ের জন্য ময়মনসিংহ কোর্টে নেয়ার কথা বলে অজ্ঞাত স্থানে নিয়ে গিয়ে অজ্ঞান করে আরও দু’দিন ধর্ষণ করে।

এ সময় ওই তরুণী কয়েকবার জ্ঞান হারিয়েও ফেলে। চিৎকার করলেই চালানো হয় অমানসিক নির্যাতন। বাড়াবাড়ি করলেই খুন করে লাশ গুমেরও হুমকি দেয়া হয়।

পরে সোমবার শম্ভুগঞ্জ বাসস্ট্যান্ড এলাকায় ওই তরুণীকে ফেলে ওরা পালিয়ে যায়। পুলিশ ও আত্মীয় স্বজন সজ্ঞাহীন অবস্থায় উদ্ধার করে প্রথমে গৌরীপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স ও পরে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করে।

তানিয়ার দুলাভাই আবুল খায়ের সাইফুল জানান, বাড়িতে থাকা অবস্থায় সাহিদ মিয়া কুপ্রস্তাব দিয়ে আসছিল। সে ঘটনা পরিবারকে জানানো ও বিচার প্রার্থী হওয়ায় ক্ষুব্দ হয়ে শালা-দুলাভাই মিলে এ ঘটনা ঘটিয়েছে।

গৌরীপুর থানার অফিসার ইনচার্জ দেলোয়ার আহম্মদ জানান, তরুণীকে ধর্ষণে শ্যালককে সহযোগিতা করার অভিযোগে মামলার এজাহারভুক্ত আসামি মঞ্জুরুল হককে গ্রেফতার করা হয়েছে। ধর্ষক ও অন্যান্য সহযোগিদের গ্রেফতারেও অভিযান অব্যাহত রয়েছে।


আরো পড়ুন
  • শীর্ষ খবর
  • সর্বশেষ খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৮৪১৯২১১-৫, রিপোর্টিং : ৮৪১৯২২৮, বিজ্ঞাপন : ৮৪১৯২১৬, ফ্যাক্স : ৮৪১৯২১৭, সার্কুলেশন : ৮৪১৯২২৯। ফ্যাক্স : ৮৪১৯২১৮, ৮৪১৯২১৯, ৮৪১৯২২০

Design and Developed by