ভোলা (দক্ষিণ) প্রতিনিধি    |    
প্রকাশ : ১৪ নভেম্বর, ২০১৭ ২১:৪৬:১৬ প্রিন্ট
ভোলায় দুই আ'লীগ নেতার সংঘর্ষে আহত ১২
ভোলায় প্রভাব বিস্তার ও মাদক ব্যবসা নিয়ে আওয়ামী লীগের দুই নেতার সমর্থকদের রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষে অন্তত ১২ জন আহত হয়েছেন।
 
সোমবার রাতে সদর উপজেলার উত্তর দিঘলদী ইউনিয়নের গজারিয়া বাজারে এ সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে।
 
এদের মধ্যে মো. জামাল উদ্দিন ওই ইউনিয়নের ২নং ওয়ার্ডের মেম্বার ও মো. আজগর আলী ৭নং ওয়ার্ডের মেম্বার। উভয় পক্ষ একে অপরকে মাদক ব্যবসায়ী বলে অভিযোগ তুলছে।
 
এ ঘটনায় স্থানীয় আওয়ামী লীগ নেতারা সমঝোতার চেষ্টা করছে। 
 
সূত্রে জানা যায়, উত্তর দিঘলদী ইউনিয়নের ২ নম্বর ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মো. জামাল উদ্দিন হাজী ও ৭ নম্বর ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি আজগর আলী মুন্সি গ্রুপের মধ্যে কয়েকদিন ধরে উত্তেজনা বিরাজ করছে।
 
সোমবার রাতে ওই এলাকার গজারিয়া বাজারে প্রায় দুই ঘণ্টাব্যাপী ধাওয়া-পাল্টাধাওয়া ও সংঘর্ষ হয়।
 
এতে জামাল মেম্বারের দুটি আঙুল কেটে যায়। এ ছাড়া জামাল পক্ষের মনিরুল ইসলাম (৪৫), আনসার (৬৫), বাহাউদ্দিন (২৮) এবং আজগর পক্ষের আজগর আলী মুন্সি, আবদুর রাজ্জাক (২৫), মফিজুল ইসলাম (৫০), আবদুর রহমান (৩০) ও নাজিম উদ্দিনসহ ১২ জন আহত হয়েছেন। আহতরা ভোলা সদর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন। 
 
ইউপি সদস্য জামাল উদ্দিন বলেন, উত্তর দিঘলদী ইউনিয়নের মাদক ব্যবসায়ী মো. রুবেলকে ইয়াবাসহ পুলিশের হাতে ধরিয়ে দেয়ার কারণে ওই ইউনিয়নের ৭ নম্বর ওয়ার্ডের আজগর আলী মুন্সি তার সন্ত্রাসী বাহিনী নিয়ে হামলা করেছে। আজগর আলী মাদক ব্যবসায়ীদের গডফাদার। 
 
সাত নম্বর ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য আজগর আলী মুন্সি বলেন, জামালের এলাকার এক মেয়েকে তুলে নিয়ে তার এলাকার এক ছেলে বিয়ে করে। এ কারণেই তার সঙ্গে আমার দীর্ঘদিন ধরে শত্রুতা চলছে। সেই সূত্র ধরেই সোমবার জামাল মেম্বার লোকজন নিয়ে আমার ওপর হামলা করেছে। পরে আমার লোকজন এসে তাদেরকে বাধা দেয়।
 
ভোলা সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মীর খায়রুল কবির ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, তিনি থানায় অভিযোগ দায়ের করতে বললেও কোনো পক্ষই অভিযোগ দায়ের করেনি।


আরো পড়ুন
  • শীর্ষ খবর
  • সর্বশেষ খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৮৪১৯২১১-৫, রিপোর্টিং : ৮৪১৯২২৮, বিজ্ঞাপন : ৮৪১৯২১৬, ফ্যাক্স : ৮৪১৯২১৭, সার্কুলেশন : ৮৪১৯২২৯। ফ্যাক্স : ৮৪১৯২১৮, ৮৪১৯২১৯, ৮৪১৯২২০

Design and Developed by

© ২০০০-২০১৭ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত