প্রিন্ট সংস্করণ    |    
প্রকাশ : ১১ সেপ্টেম্বর, ২০১৭ ০৪:৩৩:২০ প্রিন্ট
সুস্থ থাকুন
গৃহিণীদের হাতে অ্যাকজিমা

অ্যাকজিমা ত্বকের যে কোনো জায়গায় হতে পারে। এদের মধ্যে হাতের অ্যাকজিমা প্রধান। যারা খুব পানি ঘাটেন, অনবরত সাবান বা সোডা জাতীয় জিনিসের সংস্পর্শে আসেন সেইসব গৃহবধূদের হাতে অ্যাকজিমা হতে পারে।

রোগের শুরুতে আঙুল লাল ও শুকনো হয়ে ফেটে যায়, হাতের চামড়া থেকে ফোসকা ওঠে। অনেক সময় ত্বক ফেটে গিয়ে গভীর ক্ষতের সৃষ্টি হয়। আঙুলে আংটি থাকলে তার চারপাশে অ্যাকজিমা প্রকট হয়ে ওঠে।

শুধু গৃহবধূ নন, যে পেশায় অনেকক্ষণ পানি ঘাটতে হয় বা সাবান দিয়ে বারবার হাত ধুতে হয় সেই পেশার লোকরাও এ রোগে আক্রান্ত হয়। যেমন চিকিৎসক, ময়লা পরিষ্কারক, মাছ ও পানি বিক্রেতা এবং আরও অনেকে।

খাবার থেকে অ্যাকজিমা : আদা, পেঁয়াজ, টমেটো, গাজর, ডুমুর, কুমড়া, বেগুন, পেঁপে থেকেও এ সমস্যা হতে পারে। খাবারের প্রোটিনজাতীয় অংশ প্রায়ই অ্যালাজির সৃষ্টি করে। যেমন- আলু, গম, চিংড়ি, কাঁকড়া প্রভৃতি। প্লাস্টিক ও নিকেল জাতীয় ধাতব জিনিসের সংস্পর্শ থেকেও অ্যালাজি হতে পারে।

চিকিৎসা : এ রোগ দীর্ঘমেয়াদে হয়। যেসব কারণে এ রোগ হয় তা থেকে দূরে থাকাই কাম্য, তবে অনেক সময় এটি সম্ভব হয় না। তবে চিকিৎসায় এ রোগ নিয়ন্ত্রণে রাখা সম্ভব। এ জন্য ক্রনিক বা দীর্ঘদিনের অ্যাকজিমা সারাতে রোগীকে দৃঢ় প্রতিজ্ঞ হতে হবে।

ডা. দিদারুল আহসান, ত্বক ও যৌনব্যাধি বিশেজ্ঞ, আল রাজী হাসপাতাল, ফার্মগেট, ঢাকা,


মোবাইল ফোন : ০১৭১৫৬১৬২০০


 


আরো পড়ুন
  • শীর্ষ খবর
  • সর্বশেষ খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৮৪১৯২১১-৫, রিপোর্টিং : ৮৪১৯২২৮, বিজ্ঞাপন : ৮৪১৯২১৬, ফ্যাক্স : ৮৪১৯২১৭, সার্কুলেশন : ৮৪১৯২২৯। ফ্যাক্স : ৮৪১৯২১৮, ৮৪১৯২১৯, ৮৪১৯২২০

Design and Developed by