প্রিন্ট সংস্করণ    |    
প্রকাশ : ০৫ ডিসেম্বর, ২০১৭ ১০:২৩:৫৬ প্রিন্ট
গ্লোবাল এন্টারপ্রেনারশিপ সূচকের তথ্য
উদ্যোক্তা তৈরিতে এক ধাপ পিছিয়েছে বাংলাদেশ
১৩৭ দেশের মধ্যে ১৩৪তম * শীর্ষে যুক্তরাষ্ট্র, দক্ষিণ এশিয়ায় ভারত

নতুন উদ্যোক্তা তৈরির ক্ষেত্রে গত বছরের চেয়ে এক ধাপ পিছিয়েছে বাংলাদেশ। আর দুই বছরে পিছিয়েছে আট ধাপ। বিশ্বের ১৩৭ দেশের মধ্যে বাংলাদেশের অবস্থান ১৩৪তম। গত বছর ছিল ১৩৩তম। যদিও দুই বছর আগে ১৩২টি দেশের মধ্যে বাংলাদেশের অবস্থান ছিল ১২৫তম। আর চলতি বছর এ সূচকে বাংলাদেশের স্কোর ১০০’র মধ্যে ১১ দশমিক ৮০। দুই বছর আগে এটি ছিল ১৫ দশমিক ২০।

সম্প্রতি যুক্তরাষ্ট্রের ওয়াশিংটনভিত্তিক গবেষণা প্রতিষ্ঠান গ্লোবাল এন্টারপ্রেনারশিপ অ্যান্ড ডেভেলপমেন্ট ইন্সটিটিউটের (জিইডিআই) বৈশ্বিক উদ্যোক্তা সূচক-২০১৮-তে এ চিত্র উঠে এসেছে। জিইডিআই প্রকাশিত সূচকে বাংলাদেশের পেছনে আছে বুরুন্ডি, মৌরিতানিয়া ও চাদ। দেশ তিনটির অবস্থান যথাক্রমে ১৩৫, ১৩৬ ও ১৩৭।

এদের স্কোর যথাক্রমে ১১ দশমিক ৮০, ১০ দশমিক ৯০ ও ৯। আর বাংলাদেশের ওপরে আছে মালাউই (১৩৩), সিয়েরা লিওন (১৩২), উগান্ডা (১৩১)। দেশ তিনটির স্কোর যথাক্রমে ১২ দশমিক ২০, ১২ দশমিক ৩০ ও ১২ দশমিক ৯০।

প্রতিবেদনের তথ্য অনুযায়ী, উদ্যোক্তা সূচকটি তৈরি করার ক্ষেত্রে ১৪টি সক্ষমতা বিবেচনায় নেয়া হয়েছে। এগুলো হচ্ছে- ঝুঁকি মোকাবেলা, পণ্য উদ্ভাবন, নতুন ব্যবসা শুরু করার দক্ষতা, মানবসম্পদ, উচ্চ প্রবৃদ্ধি, ঝুঁকি মূলধন (রিস্ক ক্যাপিটাল), নতুন প্রযুক্তি ব্যবহার, প্রতিযোগিতা, সুযোগ কাজে লাগানোর মতো। আর এসব সক্ষমতাকে তিনটি বিভাগের আওতায় ফেলা হয়েছে। এগুলো হলো- উদ্যোক্তার মনোভাব, উদ্যোক্তার দক্ষতা ও উদ্যোক্তার আকাঙ্খা।

প্রতিবেদনের তথ্য অনুযায়ী, বৈশ্বিক উদ্যোক্তা সূচকে শীর্ষে রয়েছে যুক্তরাষ্ট্র। দেশটির স্কোর যথাক্রমে ৮৩ দশমিক ৬০। শীর্ষ পাঁচে এরপর রয়েছে সুইজারল্যান্ড, কানাডা, যুক্তরাজ্য ও অস্ট্রেলিয়া। দেশগুলো স্কোর যথাক্রমে ৮০ দশমিক ৪০, ৭৯ দশমিক ২০, ৭৭ দশমিক ৮০ ও ৭৫ দশমিক ৫০। এদিকে দক্ষিণ এশিয়ার দেশগুলোর মধ্যে ভারতের অবস্থান ৬৮তম, শ্রীলঙ্কা ৯০তম ও পাকিস্তান ১২০তম অবস্থানে। দেশগুলোর স্কোর যথাক্রমে ২৮ দশমিক ৪০, ২১ দশমিক ৯০ ও ১৫ দশমিক ৬০।

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, এশিয়া প্রশান্ত মহাসাগরীয় অঞ্চলের দেশগুলোর বড় সমস্যা হলো উদ্যোক্তার মনোভাবে। বাকি দুটি ক্ষেত্রে এ অঞ্চলের দেশগুলোর অবস্থান মোটামুটি কাছাকাছি। এজন্য এসব দেশের প্রাতিষ্ঠানিক ও নিয়ন্ত্রণ পরিবেশ উদ্যোক্তাবান্ধব করার প্রস্তাব করা হয়েছে।

ব্যবসা শুরু বা করার বাংলাদেশ খুব বেশি আকর্ষণীয় গন্তব্যে নয়- এমন তথ্য উঠে এসেছে সম্প্রতি প্রকাশিত বিশ্বব্যাংকের ডুয়িং বিজনেস রিপোর্ট ও গ্লোবাল কম্পিটিটিভনেস রিপোর্টেও। ডুয়িং বিজনেস রিপোর্ট ২০১৮ সালের তথ্য অনুযায়ী বাংলাদেশের অবস্থান ১৭৭তম। উভয় প্রতিবেদনে ব্যবসার ক্ষেত্রে বেশ কিছু প্রতিবন্ধকতা তুলে ধরা হয়েছে।

এর মধ্যে রয়েছে- রাজনৈতিক অস্থিতিশীলতা, অর্থনৈতিক নীতির ধারাবাহিকতার অভাব, প্রতিকূল ব্যবসায়িক পরিবেশ, অবকাঠামোগত দুর্বলতা, বিদ্যুৎ ও গ্যাস সংযোগের অভাব, দুর্বল কর কাঠামো, সম্পত্তি হস্তান্তরে জটিলতা প্রভৃতি। বিশ্লেষকরা বলছেন, উদ্যোক্তা তৈরিতে এখনও বড় বাধা ভালো প্লাটফর্ম না থাকা। কেউ একটি বিষয়ে দক্ষতা নিয়ে বা প্রাথমিক কোনো বিষয় জেনে ব্যবসা শুরুর পরিকল্পনা করতে পারে। কিন্তু ভালো প্লাটফর্ম না থাকায় ব্যবসা পরিচালনা, বাজার বিশ্লেষণ, ব্যবস্থাপনার বিষয়ে তাকে দক্ষ হতে সাহায্য করার কেউ থাকে না। অর্থনীতিবিদরা জানিয়েছেন, অর্থনৈতিক সূচকগুলো

নতুন ব্যবসার সুযোগ সৃষ্টি করলেও দেশের সামগ্রিক পরিবেশ উদ্যোক্তা সৃষ্টির সহায়ক নয়। এক্ষেত্রে অবকাঠামোগত দুর্বলতা ও গ্যাস-বিদ্যুতের সমস্যা এখনও দূর করা সম্ভব হয়নি। এছাড়া রাজনৈতিক অস্থিতিশীলতা ও দীর্ঘমেয়াদি নীতির অভাব তো রয়েছে।


আরো পড়ুন
  • শীর্ষ খবর
  • সর্বশেষ খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৮৪১৯২১১-৫, রিপোর্টিং : ৮৪১৯২২৮, বিজ্ঞাপন : ৮৪১৯২১৬, ফ্যাক্স : ৮৪১৯২১৭, সার্কুলেশন : ৮৪১৯২২৯। ফ্যাক্স : ৮৪১৯২১৮, ৮৪১৯২১৯, ৮৪১৯২২০

Design and Developed by

© ২০০০-২০১৭ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত