• বৃহস্পতিবার, ১৯ অক্টোবর ২০১৭
প্রিন্ট সংস্করণ    |    
প্রকাশ : ১২ অক্টোবর, ২০১৭ ০৪:১৫:৪১ | অাপডেট: ১২ অক্টোবর, ২০১৭ ০৬:২৮:২৪ প্রিন্ট
ঘুরে দাঁড়ানোর প্রত্যয়ে মাহি
চলতি সপ্তাহটা বেশ ভালোই কাটছে ঢাকাই ছবির আলোচিত নায়িকা মাহিয়া মাহির। সদ্য মুক্তিপ্রাপ্ত ঢাকা অ্যাটাক ছবির সাফল্যে অন্যদের মতো তিনিও ভাসছেন প্রশংসায়। এছাড়াও ঢাকাই চলচ্চিত্রে শাবানা, মৌসুমী ও শাবনূরদের যোগ্য উত্তরসূরি হিসেবে এমনিতেই ভাবা হয় মাহিকে। দর্শকদের এ ভাবনার প্রমাণও দিচ্ছেন তিনি। অভিনয় করে যাচ্ছেন একের এক ছবির। বিস্তারিত লিখেছেন- শাহনাজ হেনা
 
বলা যায় হাওয়ায় উড়ছেন মাহি। কেন উড়ছেন? এ প্রশ্নের উত্তর সবারই কমবেশি জানা। দীর্ঘ অপেক্ষার পর মাহি অভিনীত ‘ঢাকা অ্যাটাক’ মুক্তি পেল। ছবিটির শুটিং চলাকালীনই মনে হয়েছিল দারুণ একটি ছবি হবে। হয়েছেও তাই। যার ফল পাচ্ছেন পুরো ঢাকা অ্যাটাক টিম। ছবিটিতে সাংবাদিক চরিত্রে অভিনয় করেছেন মাহিয়া মাহি। বেশ চ্যালেঞ্জিং একটি চরিত্র। শুটিং করার সময়ই চরিত্রটির ব্যাপক প্রেমে পড়েছিলেন মাহি। ঢাকা অ্যাটাক মুক্তির পর তার সঙ্গে কথা বলতে গেলে চরিত্রটির বিষয়ে এ কথাই জানান তিনি। ঢাকাই ছবিতে এখন যে ক’জন নায়িকা রাজত্ব করছেন তার মধ্যে শীর্ষ তালিকায় চোখ বন্ধ করেই মাহির নাম রাখা যায়। যদিও ২০১২ সালের আগেও ইন্ডাস্ট্রিতে মাহিয়া মাহি নামের কারও অস্তিত্ব ছিল না। থাকবেই বা কীভাবে? তখন মিষ্টি এ নায়িকার অভিষেক হয়নি। ২০১২ সালে ‘ভালোবাসার রঙ’ ছবির মাধ্যমে অভিষেক হয়েই নতুন সম্ভাবনার জানান দেন তিনি। রাতারাতি তারকাও বনে যান। পরের বছর ২০১৩ সালে অন্যরকম ভালোবাসা, পোড়ামন, ভালোবাসা আজকাল এবং তবুও ভালোবাসা ছবিতে অভিনয় করে শীর্ষ নায়িকাদের দলে অন্তর্ভুক্ত হন মাহি। শুরু হয় তারকালয়ে তার পথচলা। একই বছর তার অভিনীত তিনটি ছবিই হিট হয়। পরের বছর ‘অগ্নি’ এবং ‘দেশা : দ্য লিডার’ ছবিতে অভিনয় করেন। ছবি দুটি মুক্তির পর মাহিকে নিয়ে রচিত হয় নতুন ইতিহাস। সে ইতিহাসের পথ ধরেই এখন ছুটছেন তিনি। ক্যারিয়ারের মাঝ পথে প্রেম ও বিয়ে নিয়ে নানা বিতর্কে জড়ালেও নিজের বিচক্ষণতা আর সূক্ষ্ম বুদ্ধি দিয়ে সেগুলো কাটিয়ে উঠেছেন। ২০১৬ সালে সিলেটের ব্যবসায়ী অপুকে বিয়ে করে হয়েছেন সংসারি। বিয়ের পর এখন সংসার আর অভিনয় সমান তালেই চালিয়ে যাচ্ছেন। ‘মানুষ তার স্বপ্নের সমান বড়’- এ উক্তিকে মূলমন্ত্র করেই এগিয়ে যাচ্ছেন এ তারকা। মাহির সমসাময়িক অনেক তারকাই মিটমিট করে জ্বলছে। কোনো কোনোটি আবার খসেও পড়ছে। তবে বিয়ের পরও মাহিয়া মাহি চলচ্চিত্রের আকাশে তেজি আলোক রশ্মি ছড়িয়ে যাচ্ছেন। যদিও বিয়ের পিঁড়িতে বসার পর চলচ্চিত্রের বলয় থেকে ‘এই বুঝি খসে পড়লেন’ এমন রব ওঠে। কিন্তু তা হয়নি। এখন তার হাতে রয়েছে হাফ ডজনেরও বেশি ছবি। নামভূমিকায় বেশ কয়েকটি ছবিতেও অভিনয় করছেন মাহি।
 
যদিও অনেক সাধের ময়না, অগ্নি, অগ্নি ২, বিগ ব্রাদার ও রোমিও ভার্সেস জুলিয়েট ছবিতে নামভূমিকায় অভিনয় করেছিলেন এ তারকা। তার সূত্র ধরেই নামভূমিকায় সবচেয়ে বেশি ছবিই এখন তার হাতে। প্রেমের বাঁধন, গোলাপতলীর কাজল, জান্নাত, দুরন্ত মেঘলা ও তুমি আমার সুন্দরী প্রত্যেকটি ছবিতেই নামভূমিকায় রয়েছেন তিনি। ছবিগুলোতে যথাক্রমে বাঁধন, কাজল, জান্নাত, মেঘলা ও সুন্দরী নামের চরিত্রে দেখা যাবে এ তারকাকে। এ ধরনের ছবিতে অভিনয় করতে পেরে বেশ উচ্ছ্বসিত মাহি।
 
এ প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ‘সারা দুনিয়ায় নায়কনির্ভর গল্প নিয়ে চলচ্চিত্র নির্মিত হয়। সেখানে নায়িকা হয়ে একসঙ্গে এতগুলো ছবিতে নামভূমিকায় অভিনয় করতে পারছি। আমি মনে করি, চাওয়ার চেয়ে বেশি পাচ্ছি আমি।’
 
তবে এ ধরনের ছবিতে অভিনয় করতে গিয়ে কিছুটা ভয়ও কাজ করছে এ তারকার। কারণ এর মধ্যে কোনো একটি ছবি ব্যবসাসফল না হলে এর দায়ভারটাও চরিত্রের নামের ওপর দিয়েই যাবে। তবে এ ভয় কাটিয়ে নিজের সেরা অভিনয়টা দেয়ার চেষ্টা করছেন বলেও জানিয়েছেন তিনি। কিছুদিন আগে ইমপ্রেস টেলিফিল্মের ‘মন দেব মন নেব’ নামের একটি ছবির শুটিং শুরু করেছেন মাহি। এতে তার বিপরীত অভিনয় করছেন চিত্রনায়ক শিবলী নওমান। পাশাপাশি মোশাররফ করিমের বিপরীতে ‘ফালতু’ নামের একটি ছবিতে অভিনয় করার কথাও রয়েছে। যদিও বিষয়টি নিয়ে এখনও কিছু বলতে পারছেন না এ নায়িকা।


আরো পড়ুন
  • শীর্ষ খবর
  • সর্বশেষ খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৮৪১৯২১১-৫, রিপোর্টিং : ৮৪১৯২২৮, বিজ্ঞাপন : ৮৪১৯২১৬, ফ্যাক্স : ৮৪১৯২১৭, সার্কুলেশন : ৮৪১৯২২৯। ফ্যাক্স : ৮৪১৯২১৮, ৮৪১৯২১৯, ৮৪১৯২২০

Design and Developed by

© ২০০০-২০১৭ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত