• শুক্রবার, ২২ সেপ্টেম্বর ২০১৭
অনলাইন ডেস্ক    |    
প্রকাশ : ১৭ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ২৩:০০:৫৫ প্রিন্ট
গুণতে শিখছে মস্তিষ্কহীন বিস্ময় শিশু!

মস্তিষ্কহীন শিশু আবার হয় নাকি? কারো মস্তিষ্ক যদি ৯৮ শতাংশ না থাকে তবে কি তাকে মস্তষ্কহীন বলা যাবে না?

এমনই এক শিশু বেড়ে উঠেছে ইংল্যান্ডের কামব্রিয়ার ছোট্ট শহর অ্যাবেটাউনে।

জন্মের আগেই ডাক্তাররা গর্ভপাতের পরামর্শ দিয়েছিলেন শিশুটির বাবা-মা রব-শেলিকে। তারা জানিয়েছিলেন, স্পাইনা বাইফিডা নামক জটিল রোগে আক্রান্ত গর্ভস্থ শিশু। ভ্রূণের মস্তিষ্কের ৯৮ শতাংশই নষ্ট হয়ে গেছে। মাত্র দুই শতাংশ মস্তিষ্ক নিয়ে জন্ম হলেও জন্মের সঙ্গে সঙ্গেই মারা যেতে পারে শিশুটি।

কিন্তু তারা অনাগত সন্তানের প্রতি অসীম ভালবাসায় গর্ভপাত করতে পারেননি। সিদ্ধান্ত নেন যাইহোক পৃথিবীর আলো অন্তত দেখাবেন গর্ভের শিশুটিকে। ফলে মস্তিষ্কের নামমাত্র অংশ নিয়েই ২০১২ সালের ৬ মার্চ জন্ম নেয় নোহ ওয়াল।

যার বেঁচে থাকারই কথা নয়, কিন্তু সে একের পর এক বিষ্ময় দেখিয়ে যাচ্ছেন। মাত্র দুই শতাংশ ব্রেন নিয়েই তড়তড়িয়ে বেড়ে উঠেছে নোহ। এক থেকে দশ পর্যন্ত সংখ্যা গুণতে পারে চার বছরের এই খুদে বালক। লিখতে পারেন নিজের নাম।

শুধু তাই নয়, বিস্মিত চিকিৎসকরা জানাচ্ছেন, ধীরে ধীরে নোহ’র করোটির মধ্যে বেড়ে উঠছে মস্তিষ্কের পরিমাণও। হয়তো ভবিষ্যতে আরও উন্নতি করবে নোহ।

এখনও হাঁটতে পারে না নোহ। হুইল চেয়ারই ভরসা। চিকিৎসকরা বলেছিলেন, হাঁটানোর চেষ্টায় অস্ত্রোপচার সফল না হলে মৃত্যুও হতে পারে। কিন্তু আরও একবার চ্যালেঞ্জ নিলেন রব-শেলি।

এবারও প্রমাণ করলেন মনের জোরের কাছে অনেক বাধাই হার মানে। সম্প্রতি শরীরের নিম্নাঙ্গে জটিল অস্ত্রোপচার হয়েছে নোহ’র। সুস্থও আছে সে। তবে চিকিৎসকরা জানাচ্ছেন, নোহ আদৌ হাঁটা-চলা করতে পারবে কিনা তা বুঝতে আরও কিছুটা সময় লাগবে।


আরো পড়ুন
  • শীর্ষ খবর
  • সর্বশেষ খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৮৪১৯২১১-৫, রিপোর্টিং : ৮৪১৯২২৮, বিজ্ঞাপন : ৮৪১৯২১৬, ফ্যাক্স : ৮৪১৯২১৭, সার্কুলেশন : ৮৪১৯২২৯। ফ্যাক্স : ৮৪১৯২১৮, ৮৪১৯২১৯, ৮৪১৯২২০

Design and Developed by