• বৃহস্পতিবার, ২১ সেপ্টেম্বর ২০১৭

  •       রোহিঙ্গা সংকট সমাধানে দ্রুত ও জোরালো পদক্ষেপ নিতে নিরাপত্তা পরিষদের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প      রোহিঙ্গাদের ফিরিয়ে নিতে মিয়ানমারকে সবধরনের চাপ দেবে যুক্তরাষ্ট্র: মার্কিন রাষ্ট্রদূতের সঙ্গে বৈঠকের পর দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণমন্ত্রী; শরণার্থীদের জন্য ২৮ মিলিয়ন ডলারের সহায়তার ঘোষণা যুক্তরাষ্ট্রের
অনলাইন ডেস্ক    |    
প্রকাশ : ১৭ জুলাই, ২০১৭ ১৭:৩৯:২৯ প্রিন্ট
চিকুনগুনিয়া ঠেকাতে ছাড়া হচ্ছে ২ কোটি মশা

জিকা, ডেঙ্গু ও চিকুনগুনিয়ার ভাইরাস বহন করে এডিস ইজিপ্টিক মশা। তাই এডিস মশার উৎপাত ঠেকাতে এবার ছাড়া হচ্ছে ব্যাকটেরিয়াযুক্ত ২ কোটি পুরুষ মশা।

যুক্তরাষ্ট্রের ক্যালিফোর্নিয়ার ফ্রেসনো’তে এই মশা ছাড়বে দেশটির একটি শীর্ষ প্রযুক্তি প্রতিষ্ঠান। খবর ব্লুমবার্গের।

তবে মশা ছাড়ার কারণে ভয় পাবার কোনো কারণ নেই বলে আশ্বস্ত করেছে প্রতিষ্ঠানটি।

মশা ছাড়ার এ উদ্যোগ মার্কিন প্রযুক্তি জায়ান্ট অ্যালফাবেট-এর ভেরাইলি লাইফ সায়েন্সেস বিভাগের একটি পরিকল্পনার অংশ।

খবরে বলা হয়েছে, পুরুষ মশাগুলোর শরীরে এক প্রকার বিশেষ ব্যাকটেরিয়া যুক্ত করে দেয়া হচ্ছে।

এই মশা মানুষের জন্য ক্ষতিকর নয়।

এরা বন্য স্ত্রী মশার সঙ্গে প্রজননের পর বংশবিস্তারে সক্ষম নয় এমন ডিম সৃষ্টি করবে। এর মাধ্যমে মশার সংখ্যা ও এগুলোর মাধ্যমে রোগের সংক্রমণও কমবে বলে আশা করা হচ্ছে।

ভেরাইলি’র প্রধান প্রকৌশল কর্মকর্তা লিনাস আপসন বলেন, 'আমরা যদি দেখাতে পারি যে এই কৌশল কাজ করছে, আমার বিশ্বাস আমরা এটিকে একটি টেকসই ব্যবসায় পরিণত করতে পারব। কারণ এই মশার বোঝাটা বিশাল।'

ভেরাইলি মশাগুলোর জীনগত কোনো পরিবর্তন আনেনি। এগুলো ওলব্যাকিয়া নামের প্রাকৃতিকভাবে সৃষ্ট একটি ব্যাকটেরিয়ায় আক্রান্ত। এই আক্রান্ত পুরুষ মশাগুলো যখন বন্য স্ত্রী মশার সঙ্গে মিলিত হবে, তারা বাচ্চা জন্মদানে অক্ষম ডিম সৃষ্টি করবে। এর ফলে সময়ের সঙ্গে মশার সংখ্যা কমে আসবে। এক্ষেত্রে বাড়তি সুবিধা হচ্ছে পুরুষ মশা মানুষকে কামড়ায় না।

ক্যালিফোর্নিয়া অঙ্গরাজ্যের ফ্রেসনো এলাকায় প্রকল্পটি পরীক্ষা করে দেখা হচ্ছে।

ভেরাইলি তিনশ’ একরের দুটি এলাকায় প্রতি সপ্তাহে ১০ লাখ করে ২০ সপ্তাহ ধরে মশা ছাড়ার পরিকল্পনা করছে।


আরো পড়ুন
  • শীর্ষ খবর
  • সর্বশেষ খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৮৪১৯২১১-৫, রিপোর্টিং : ৮৪১৯২২৮, বিজ্ঞাপন : ৮৪১৯২১৬, ফ্যাক্স : ৮৪১৯২১৭, সার্কুলেশন : ৮৪১৯২২৯। ফ্যাক্স : ৮৪১৯২১৮, ৮৪১৯২১৯, ৮৪১৯২২০

Design and Developed by