যুগান্তর রিপোর্ট    |    
প্রকাশ : ১৪ নভেম্বর, ২০১৭ ১৮:২৮:২৪ প্রিন্ট
প্রধান বিচারপতির পদত্যাগের পরবর্তী প্রক্রিয়া রাষ্ট্রপতির এখতিয়ারে
ফাইল ফটো

প্রধান বিচারপতির পদত্যাগপত্র গ্রহণের পর এখন পরবর্তী প্রক্রিয়া কী হবে তা একমাত্র রাষ্ট্রপতিই ভালো জানেন বলে জানিয়েছেন অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম।

মঙ্গরবার দুপুরে নিজ কার্যালয়ে প্রেসব্রিফিংকালে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে তিনি এ কথা বলেন।

প্রধান বিচারপতির পদত্যাগপত্র রাষ্ট্রপতি গ্রহণ করেছেন। এখন পরবর্তী প্রক্রিয়াটি কী এ বিষয়ে জানতে চাইলে অ্যাটর্নি জেনারেল বলেন, এটা রাষ্ট্রপতি জানেন। আপনারা জানেন এ বিষয়টি সম্পূর্ণ রাষ্ট্রপতির এখতিয়ারে।

তিনি বলেন, প্রধান বিচারপতি যখন নিয়োগ করবেন তখন সবাই দেখবেন আমিও দেখব। রাষ্ট্রপতি কীভাবে নিয়োগ করবেন, কার সঙ্গে আলাপ করবেন বা আদৌ আলাপ করবেন কিনা এগুলো সবই রাষ্ট্রপতির বিষয়।

প্রধান বিচারপতি দেশের বাইরে যাওয়ার সময় একটি প্রজ্ঞাপন জারি হয়েছিল সেখানে বলা হয়েছিল, ১০ নভেম্বর ফেরা পর্যন্ত অথবা নিজের দায়িত্ব না নেয়া পর্যন্ত বিচারপতি আবদুল ওয়াহ্হাব মিঞা প্রধান বিচারপতির দায়িত্ব পালন করবেন।

এখন এসকে সিনহার পদত্যাগ করার পর নতুন করে প্রজ্ঞাপন জারির প্রয়োজন আছে কিনা- এমন প্রশ্নের জবাবে মাহবুবে আলম বলেন, প্রজ্ঞাপন লাগবে কিনা বা বিষয়টি প্রক্রিয়াধীন আছে কিনা এসব আইনমন্ত্রী বলতে পারেন।  

লেকহেড স্কুল নিয়ে অ্যাটর্নি জেনারেল বলেন, স্কুলটি পরিচালনার জন্য ধানমণ্ডির ৬/এ সড়কের একটি বাড়ির রেজিস্ট্রেশন করা হয়েছিল।

কিন্তু বিভিন্ন সময় তারা স্কুলের স্থান পরিবর্তন করেছে। এখন তারা স্কুলটি চালাচ্ছে ধানমণ্ডির ১১/এ'র একটি বাড়িতে। এটি আবাসিক এলাকা। এতে জেলা প্রশাসকের অনুমোদন নেই।

তাছাড়া অনুমোদন দেয়ার সময় যেসব শর্ত দেয়া হয়েছিল- স্কুলটির একটি ম্যানেজিং কমিটি থাকতে হবে, এই কমিটির নির্বাচনের আগে বিজ্ঞপ্তি দিতে হবে এবং আবাসিক এলাকা হলে জেলা প্রশাসকের অনুমতি নিতে হবে। কিন্তু কোনো শর্তই স্কুলটি পূরণ করেনি। এ বিষয়গুলো আমি আদালতে তুলে ধরেছি।

মাহবুবে আলম বলেন, হাইকোর্টের রায়ের বিরুদ্ধে আপিলের প্রস্তুতি নিচ্ছি এবং বুধবারই আবেদন জমা দেয়া যাবে বলে আশা করছি।


আরো পড়ুন
  • শীর্ষ খবর
  • সর্বশেষ খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৮৪১৯২১১-৫, রিপোর্টিং : ৮৪১৯২২৮, বিজ্ঞাপন : ৮৪১৯২১৬, ফ্যাক্স : ৮৪১৯২১৭, সার্কুলেশন : ৮৪১৯২২৯। ফ্যাক্স : ৮৪১৯২১৮, ৮৪১৯২১৯, ৮৪১৯২২০

Design and Developed by

© ২০০০-২০১৭ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত