যুগান্তর ডেস্ক    |    
প্রকাশ : ০৩ সেপ্টেম্বর, ২০১৭ ১০:০৩:৪৩ প্রিন্ট
সাবধানে গাড়ি চালান
ঈদ এলেই বেড়ে যায় সড়ক দুর্ঘটনায় প্রাণহানির ঘটনা। ফাঁকা রাস্তা পেয়ে অনেকে বেপরোয়া গাড়ি চালাতে চেষ্টা করেন। যার ফলাফল হয় ভয়াবহ। প্রাণহানি ঠেকাতে সবধানে গাড়ি চালাতে হবে। মনে রাখবেন একটি দুর্ঘটনা সারা জীবনের কান্না।
 
বিশ্লেষকরা বলছেন, অল্প দক্ষ বা অদক্ষ চালক দিয়ে গাড়ি চালানোই সড়ক দুর্ঘটনার অন্যতম প্রধান কারণ। বেপরোয়া গাড়ি চালাতে গিয়ে যাতে জীবনহানি না হয় সেদিকে অবশ্যই খেয়াল রাখতে হবে। পরিবার সবসময়ই চায় আপনি এবং আপনার প্রিয় গাড়ি দুটোই থাকুক নিরাপদ। কিভাবে আপনি নিরাপদে গাড়ি চালাবেন এ ব্যাপারে আমরা কিছু পরামর্শ দেয়ার চেষ্ঠা করেছি।
 
ঈদে নিরাপদে গাড়ি চালানোর জন্য যে বিষয়গুলো আপনাকে অবশ্যই খেয়াল রাখতে হবে-
 
১. সিট বেল্ট বাঁধা
 
নিরাপদে গাড়ি চালানোর জন্য একটি গুরুত্বপূর্ণ বিষয় গাড়ির সিট বেল্ট বাঁধা। প্রত্যেকটি দেশেই সিট বেল্ট বেঁধে গাড়ি চালানো বাধ্যবাধকতা রয়েছে। সিট বেল্ট বেঁধেগাড়ি চালান।অবশ্যই মনে রাখবেন, শুধু আপনি নন আপনার সাথে থাকা যাত্রীদেরকেও সিট বেল্ট বাঁধতে বাধ্য করবেন। সিট বেল্ট বেধে গাড়ি চালানো এবং গাড়িতে চড়া দুটোই নিরাপদ ড্রাইভিং এর জন্য গুরুত্বপূর্ণ।
 
২. মনোযোগ
 
নিরাপদ ড্রাইভিং এর জন্য যা প্রয়োজন আপনার মনোযোগ। আপনি যখনই গাড়ি চালাবেন খেয়াল রাখবেন আপনার মনোযোগ যেন গাড়ি এবং রাস্তার দিকেই থাকে। কখনই গাড়ি এবং রাস্তা থেকে মনোযোগ সরাবেন না। একটু অমনোযোগী ড্রাইভিং এর কারণে ঘটতে পারে মর্মান্তিক দুর্ঘটনা।
 
৩. রোড স্ক্যানিং বা রাস্তা বিশ্লেষণ
 
রাস্তা বিশ্লেষণ বা রোড স্ক্যানিং নিরাপদ ড্রাইভিং এর জন্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ। আপনি যখন গাড়ি চলাবেন তখন অবশ্যই আপনার চলার রাস্তাটিকে ভালোভাবে বিশ্লেষণ করবেন। গাড়ি চালানোর সময় রাস্তা সম্পর্কিত যে বিষয়গুলো আপনাকে অবশ্যই খেয়াল করতে হবে সেগুলো হল - রাস্তায় গাড়ির পরিমাণ, রাস্তার লেনের পরিমাণ, রাস্তার গঠনগত অবস্থা, রাস্তার প্রশস্ততা।
 
৪. গাড়ির গতিসীমা
 
গাড়ি চালানোর সময় কখনই হুট হাট করে গাড়ির গতিসীমা বাড়াবেন বা কমাবেন না। হুট হাট গাড়ির গতি বাড়ানো বা কমানো প্রায়শই বড় দুর্ঘটনার কারণ হয়ে দাড়ায়। তাই যতদূর সম্ভব এই বিষয়টি মেনে গাড়ি চালানোর চেষ্টা করবেন।
 
৫. প্রতিযোগিতা
 
অনেক সময় প্রতিযোগিতা করে অনেক ড্রাইভার গাড়ি চালিয়ে থাকেন। এটি সড়ক দুর্ঘটনার অন্যতম কারণ। তাই ঠান্ডা মাথায় গাড়ি চালান। আর মনে রাখবেন আপনি গাড়ি চালানোর প্রতিযোগিতায় নামেননি, নিরাপদে নিজ গন্তব্যে পৌঁছাতে গাড়ি চালাচ্ছেন।
 
৬. লুকিং গ্লাস
 
প্রত্যেকটি গাড়ির দুটি লুকিং গ্লাস থাকে। একটি ডান হাতের পাশে আরেকটি বাম হাতের পাশে। গাড়ি চালানোর সময় লুকিং গ্লাস দেখা জরুরী। কারণ আপরনার পাশ দিয়ে কোন গাড়ি যাচ্ছে তা আপনি সহজেই দেখতে পারেবেন। আর নিরাপদে গাড়ি চালাতে পারবেন।
 
৭. নেশাগ্রস্ত অবস্থায় গাড়ি চালাবেন না
 
গাড়ি চালানোর সময় চালক নেশাগ্রস্ত থাকার কারণে দুর্ঘটনা ঘটে। আমাদের দেশের বেশির ভাগ পাবলিক বাসের  দুর্ঘটনার কারণ নেশাগ্রস্ত চালক। তাই নেশাগ্রস্ত অবস্থায় গাড়ি চালাবেন না।
 


আরো পড়ুন
  • শীর্ষ খবর
  • সর্বশেষ খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৮৪১৯২১১-৫, রিপোর্টিং : ৮৪১৯২২৮, বিজ্ঞাপন : ৮৪১৯২১৬, ফ্যাক্স : ৮৪১৯২১৭, সার্কুলেশন : ৮৪১৯২২৯। ফ্যাক্স : ৮৪১৯২১৮, ৮৪১৯২১৯, ৮৪১৯২২০

Design and Developed by

© ২০০০-২০১৭ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত