•       রংপুর সিটি নির্বাচন: প্রার্থীদের হলফনামায় বিভ্রান্তিমূলক তথ্য আছে: সুজন; ইসিকে ব্যবস্থা নেয়ার পরামর্শ       প্রশ্নফাঁসের অভিযোগে নাটোর সদরের ১২৩টি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে প্রথম ও চতুর্থ শ্রেণির আজকের গণিত পরীক্ষা স্থগিত       রাজধানীর শুক্রাবাদে নির্মাণাধীন ভবন থেকে মেরিন ইঞ্জিনিয়ারের মরদেহ উদ্ধার
যুগান্তর রিপোর্ট    |    
প্রকাশ : ০৩ ডিসেম্বর, ২০১৭ ০৯:০৫:১৯ প্রিন্ট
শীতেও স্মার্ট শিশু
শীত মৌসুমে বিয়ে, পিকনিকসহ নানা অনুষ্ঠান একটু বেশি হয়ে থাকে। আর সে জন্য সুন্দর পোশাক বা পার্টিড্রেস চাই সবার আগে। এ ক্ষেত্রে সব বাবা-মা চান তার শিশুটি সুন্দর পোশাকে অনুষ্ঠানে যাক। তাই শীতের কেনাকাটায় শিশুদের প্রধান্যটাও বেশি দেন অভিভাবকরা। অন্যদিকে শীতকে সামনে রেখে এরই মধ্যে বাজারেও এসেছে শিশুদের শীত উপযোগী বর্ণিল সব পোশাক।
 
নিজের ছেলের জন্য বসুন্ধরা সিটি শপিংমলে শীতের পোশাক খুঁজছেন তাহমিনা বেগম। তিনি বলেন, শিশুরা দ্রুতই বড় হয়, তাই তাদের শীতের পোশাকও কিনতে হয় প্রতিবছর। আর কেনার সময় একটু বেশি নজর দিই স্মার্ট পোশাকের দিকে। কারণ, শীতের সময়টা বিয়ে, পিকনিকসহ নানা অনুষ্ঠান বেশি হয়। আর এসব অনুষ্ঠানে শিশুকে যেন বেশি ভালো দেখায় সে চেষ্টা থাকে সব বাবা-মায়ের; আমিও তা-ই চাই।
 
বায়তুল মোকাররম মার্কেটের শীতের পোশাক বিক্রেতা আরিফুর রহমান বলেন, প্রতি বছরই শীত মৌসুম এলে বড়দের চেয়ে শিশুদের শীতের পোশাক বেশি চলে। এ বছর যদিও শীত এখনও পড়ছে না, তবে বিক্রি ভালোই হচ্ছে।
 
তবে শিশুদের শীতের পোশাক কেনার আগে ভালো করে লক্ষ্য করতে হবে যেন শিশুটি পোশাক পরে আরাম পায়। কারণ ওমের জন্য বা সুন্দর দেখানোর জন্য শিশুদের গায়ে মোটা কাপড় চাপিয়ে দিয়ে তাকে কষ্ট না দেয়াই ভালো।
 
শিশুদের শীতের স্মার্ট পোশাক হিসেবে পাঞ্জাবি ও কোটি বেশ মানায়। মোটা সুতি, সিল্কসহ নানা কাপড়ের পাঞ্জাবি পাওয়া যায় বাজারে। এসব পাঞ্জাবির রং অধিকাংশ উজ্জ্বল। এ পাঞ্জাবির সঙ্গে উজ্জ্বল রঙের কোটিও পাওয়া যায়। এসব কোটি মখমলসহ বিভিন্ন মোটা কাপড়ের তৈরি। আর এ কোটি-পাঞ্জাবিতে শিশুকে যেমন স্মার্ট দেখাবে, তেমনি এতে শীত নিবারণও হবে। ঢাকার এলিফ্যান্ট রোড, নিউমার্কেট, বায়তুল মোকাররম মার্কেটে কোটি ও পাঞ্জাবির অনেক দোকান আছে। অন্য মার্কেটেও পাওয়া যাবে। এসব কোটি ও পাঞ্জাবি কেনা যাবে ৭৫০ থেকে ২ হাজার ৫০০ টাকার মধ্যে।
 
কোটি-পাঞ্জাবি ছাড়া শিশুদের শীত উপযোগী স্মার্ট পোশাক হিসেবে স্যুট-টাই সেট পরানো যেতে পারে। নানা ধরনের কাপড়ের তৈরি স্যুট-টাই বাজারে পাওয়া যায়। নিউমার্কেট, বায়তুল মোকাররম মার্কেট, এলিফ্যান্ট রোডসহ বিভিন্ন মার্কেটে তৈরি স্যুট-টাই পাওয়া যাবে। ১ হাজার ২৫০ থেকে ২ হাজার ৫০০ টাকায় এসব স্যুট-টাই কেনা যাবে। চাইলে গুলিস্তানের রমনা ভবন বা বিভিন্ন টেইলার্স থেকে স্যুট-টাই বানিয়ে নিতেও পারবেন। ২ হাজার থেকে ৩ হাজার টাকায় বানানো যাবে এসব স্যুট-টাই।
 
কোটি-পাঞ্জাবি বা স্যুট-টাইয়ের পাশাপাশি শিশুদের জন্য বাজারে শীত উপযোগী বিভিন্ন ধরনের পোশাক এসেছে। এর মধ্যে আছে উলের সোয়েটার। নানা রঙের এসব সোয়েটারে ওম যেমন ভালো, তেমনি দেখতেও সুন্দর। ৬০০ থেকে ১ হাজার ২০০ টাকায় এসব সোয়েটার কেনা যাবে। এ সোয়েটারের সঙ্গে কানটুপিও আছে। উলের এ কানটুপি কেনা যাবে ২০০ থেকে ৩০০ টাকায়।
 
কম্বলজাতীয় মখমলের কাপড়ের পোশাকও বাজারে আছে শিশুদের জন্য। একটু পাতলা কিন্তু ওম ভালো এ পোশাকে; আবার দেখতেও স্মার্ট। এগুলো কোনোটা টুপিসহ, আবার কোনোটা টুপি ছাড়া। এগুলো কেনা যাবে ৬০০ থেকে ১ হাজার ৫০০ টাকায়।
 
উল আর মখমল ছাড়া বাজারে শিশুদের জন্য পাওয়া যায় ফোমজাতীয় কাপড়ের পোশাক। এগুলোতে জ্যাকেট বলে। অবশ্য একটু ভারী শীতের জন্যই এ জাতীয় পোশাকের প্রয়োজন হয় বেশি। বিশেষ করে বেড়াতে গেলে ভ্রমণের সময় শিশুদের ঠাণ্ডা থেকে রক্ষা করতে এ জাতীয় পোশাকের ব্যবহার ভালো। এ জাতীয় জ্যাকেট কেনা যাবে ১ হাজার থেকে ২ হাজার টাকার মধ্যে। এ ছাড়া শিশুদের জন্য শীত উপযোগী বিভিন্ন ধরনের ফুলস্লিভ টি-শার্ট পাওয়া যায়। একটু ভারী কাপড়ের এ ফুলস্লিভ টি-শার্টও দেখতে বেশ সুন্দর। আবার শীতও রক্ষা করবে। এগুলো কেনা যাবে ৫৫০ থেকে ৯৫০ টাকায়।
 
[প্রিয় পাঠক, আপনিও দৈনিক যুগান্তর অনলাইনের অংশ হয়ে উঠুন। লাইফস্টাইলবিষয়ক ফ্যাশন, স্বাস্থ্য, ভ্রমণ, নারী, ক্যারিয়ার, পরামর্শ, এখন আমি কী করব, খাবার, রূপচর্চা ও ঘরোয়া টিপস নিয়ে লিখুন এবং সংশ্লিষ্ট বিষয়ে ছবিসহ মেইল করুন[email protected]-এ ঠিকানায়। লেখা আপনার নামে প্রকাশ করা হবে।]
 
 


আরো পড়ুন
  • শীর্ষ খবর
  • সর্বশেষ খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৮৪১৯২১১-৫, রিপোর্টিং : ৮৪১৯২২৮, বিজ্ঞাপন : ৮৪১৯২১৬, ফ্যাক্স : ৮৪১৯২১৭, সার্কুলেশন : ৮৪১৯২২৯। ফ্যাক্স : ৮৪১৯২১৮, ৮৪১৯২১৯, ৮৪১৯২২০

Design and Developed by

© ২০০০-২০১৭ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত