অনলাইন ডেস্ক    |    
প্রকাশ : ১৯ নভেম্বর, ২০১৭ ১৫:২১:৩৪ প্রিন্ট
বিপিএল মৌসুমে ক্রিকেট বেটিং নিয়ে উদ্বেগ
বাংলাদেশ ক্রিকেট সাপোর্টারস অ্যাসোসিয়েশনের (বিসিএসএ) উদ্যোগে শনিবার রাজধানীর বেসিসের সভাকক্ষে ‘ক্রিকেট বেটিংয়ের কালো ছায়ায় যুব সমাজ : বাস্তবতা ও করণীয়’ শীর্ষক এক গোলটেবিল আলোচনা অনুষ্ঠিত হয়েছে। 
 
মূলত জুয়া ও ক্রিকেটে জুয়ার কারণে যুবসমাজ ক্ষতিগ্রস্থ হবার হাত থেকে সচেতনতার লক্ষ্যে সম্মিলিত ভাবে কাজ করার প্রত্যয় নিয়ে এই আয়োজন। 
 
বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ প্রতিষ্ঠান ও সংগঠনের কর্তাব্যক্তিরা উক্ত আলোচনা অনুষ্ঠানে অংশ নিয়ে নিজেদের মন্তব্য তুলে ধরেন।
 
উক্ত আলোচনায় ক্রিকেট বেটিং বা স্পোর্টস জুয়া প্রতিরোধে কার্যকর আইন প্রনয়ণ, অনলাইন বেটিং সাইট বন্ধে বিটিআরসিকে অনুরোধ জনানো এবং বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড ও খেলোয়াড়দের এ সংক্রান্ত সচেতনতায় এগিয়ে আসার আহবান জানানো হয়। 
 
গোলটেবিল আলোচনায় অংশ নেন বাংলাদেশ ক্রীড়া লেখক সমিতির সভাপতি মোস্তফা মামুন, দৈনিক প্রথম আলোর সিনিয়র স্পোর্টস রিপোর্টার পবিত্র কুন্ড, দৈনিক কালের কন্ঠের ক্রীড়া সাংবাদিক নোমান মোহাম্মদ, যমুনা টিভির সিনিয়ার রিপোর্টার তাহমিদ অমিত, রেডিও ভূমি’র স্টেশন চীফ শামস সুমন, জাগো এফএম এর কমেন্ট্রি কো-অর্ডিনেটর, এস. এ. আব্দুস শাকুর, ক্রীড়া সাংবাদিক ফয়সাল তিতুমীর, বাংলাদেশ আইপি ফোরামের ব্যরিস্টার এবিএম হামিদুল মিসবাহ, বেসিস এর পরিচালক মোস্তাফিজুর রহমান সোহেল, ইউনিভার্সিটি আইটি সোসাইটি প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি আব্দুল্লাহ আল ইমরান এবং নাইন স্পোর্টস এন্ড মার্কেটিং-এর প্রতিষ্ঠাতা সিইও নাফিজ আহমেদ মোমেন। 
 
সভায় উদ্বোধনী বক্তব্য দেন বিসিএসএ-এর সভাপতি জুনায়েদ পাইকার এবং সমাপনী বক্তব্য দেন বিসিএসএ-এর আজীবন সদস্য ও বিডিজবস.কমের প্রতিষ্ঠাতা ও সিইও ফাহিম মাসরুর।
 
বক্তারা আশঙ্কা ব্যক্ত করেন বলেন, এভাবে ক্রিকেট জুয়ার প্রভাব বাড়তে থাকলে ভবিষ্যতে বাংলাদেশের ক্রিকেট সমর্থকদের যে সুন্দর ভাবমূর্তি আছে, তা নষ্ট হবে এবং ক্রিকেট তার সৌন্দর্য হারাবে।
 
যুবসমাজকে ক্রিকেট বেটিংয়ের কুপ্রভাব সম্পর্কে সচেতনতা বাড়াতে সকলকে যার যার জায়গা থেকে কাজ করার আহবান জানানো হয়।


আরো পড়ুন
  • শীর্ষ খবর
  • সর্বশেষ খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৮৪১৯২১১-৫, রিপোর্টিং : ৮৪১৯২২৮, বিজ্ঞাপন : ৮৪১৯২১৬, ফ্যাক্স : ৮৪১৯২১৭, সার্কুলেশন : ৮৪১৯২২৯। ফ্যাক্স : ৮৪১৯২১৮, ৮৪১৯২১৯, ৮৪১৯২২০

Design and Developed by

© ২০০০-২০১৭ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত