পদ্মা সেতু দেখতে প্রস্তুতি শরীয়তপুরের ঘাটে ঘাটে
jugantor
পদ্মা সেতু দেখতে প্রস্তুতি শরীয়তপুরের ঘাটে ঘাটে

  ভেদরগঞ্জ (শরীয়তপুর) প্রতিনিধি  

২৪ জুন ২০২২, ০১:৪২:৫৩  |  অনলাইন সংস্করণ

আগামী ২৫ জুন উদ্বোধন হতে যাচ্ছে বাঙালির স্বপ্নের পদ্মা সেতু। বহুল প্রত্যাশার এ সেতু দেখার জন্য ব্যাপক প্রস্তুতি চলছে শরীয়তপুরের পদ্মা তীরবর্তী ঘাটগুলোতে।

বিভিন্ন রাজনৈতিক সংগঠন, সামাজিক সংগঠন ও ব্যক্তিগত উদ্যোগ বাহারি রংয়ে সাজানো হচ্ছে নৌকা, লঞ্চসহ বিভিন্ন নৌ-যান। সবার উদ্দেশ্য পদ্মা সেতু দেখা ও সেতু উদ্বোধন অনুষ্ঠানে যোগ দেওয়া।

সরেজমিন ঘুরে দেখা গেছে, শরীয়তপুরের নড়িয়া উপজেলা ও সখিপুর থানাধীন গৌরাঙ্গবাজার, দুলারচর, মোনাই হাওলাদার ঘাট, তারাবুনিয়া স্টেশন, নড়িয়া ঘাট, সুরেশ্বর, মুলফৎগঞ্জ, ওয়াপদা ঘাটে সারি সারি নৌকা সাজানোর কাজ চলছে। পদ্মা সেতুর ছবি সংবলিত বিভিন্ন ব্যানার, রঙ্গিন পতাকা, ফুলে সাজানো হচ্ছে নৌ-যান গুলো। এর মধ্যে রয়েছে, বিশাল আকৃতির যাত্রীবাহী লঞ্চও।

সখিপুর থানা আওয়ামী লীগের সভাপতি হুমায়ূন কবির মোল্যা বলেন, সেতুর উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে আমাদের শরীয়তপুর-২ আসনের বিভিন্ন ঘাট থেকে যাত্রীবাহী লঞ্চ যাবে ১৫টি এবং ট্রলার যাবে ১৫০টি। এছাড়া বিভিন্ন ব্যক্তি উদ্যোগে বিভিন্ন নৌযান, সড়কপথে বিভিন্ন পরিবহন ছেড়ে যাবে। মোট ২০ হাজারেরও অধিক লোক অনুষ্ঠানস্থলে উপস্থিত হবে এসব পরিবহণের মাধ্যমে।

গৌরাঙ্গবাজার ঘাটের বাসিন্দা আজহার মোল্যা, সুজন মিয়া বলেন, আমাদের অনেক স্বপ্ন ছিল পদ্মা সেতু নিয়ে তা আজ পূরণ হয়েছে। দীর্ঘ দিনের সখ এ সেতু দেখতে যাব। তাই উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে নৌকা সাজিয়ে নিয়ে যাব।

কাঁচিকাটা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান নুরুল আমিন দেওয়ান বলেন, আমাদের ইউনিয়ন থেকে ২ শতাধিক লোক প্রস্তুতি নিয়েছে পদ্মা সেতুর সভাস্থলে যোগ দেওয়ার জন্য। ইনশাআল্লাহ সব কিছু ঠিক থাকলে আমরা লঞ্চযোগে সেখানে পৌঁছাব।

উল্লেখ্য, আগামী ২৫ জুন পদ্মা সেতু উদ্বোধন অনুষ্ঠানে অংশ নিচ্ছে দক্ষিণাঞ্চলের বিভিন্ন জেলার লাখ লাখ জনগণ। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সেতুর উদ্বোধন করবেন।

পদ্মা সেতু নির্মাণ

পদ্মা সেতু দেখতে প্রস্তুতি শরীয়তপুরের ঘাটে ঘাটে

 ভেদরগঞ্জ (শরীয়তপুর) প্রতিনিধি 
২৪ জুন ২০২২, ০১:৪২ এএম  |  অনলাইন সংস্করণ

আগামী ২৫ জুন উদ্বোধন হতে যাচ্ছে বাঙালির স্বপ্নের পদ্মা সেতু। বহুল প্রত্যাশার এ সেতু দেখার জন্য ব্যাপক প্রস্তুতি চলছে শরীয়তপুরের পদ্মা তীরবর্তী ঘাটগুলোতে।

বিভিন্ন রাজনৈতিক সংগঠন, সামাজিক সংগঠন ও ব্যক্তিগত উদ্যোগ বাহারি রংয়ে সাজানো হচ্ছে নৌকা, লঞ্চসহ বিভিন্ন নৌ-যান। সবার উদ্দেশ্য পদ্মা সেতু দেখা ও সেতু উদ্বোধন অনুষ্ঠানে যোগ দেওয়া।

সরেজমিন ঘুরে দেখা গেছে, শরীয়তপুরের নড়িয়া উপজেলা ও সখিপুর থানাধীন গৌরাঙ্গবাজার, দুলারচর, মোনাই হাওলাদার ঘাট, তারাবুনিয়া স্টেশন, নড়িয়া ঘাট, সুরেশ্বর, মুলফৎগঞ্জ, ওয়াপদা ঘাটে সারি সারি নৌকা সাজানোর কাজ চলছে। পদ্মা সেতুর ছবি সংবলিত বিভিন্ন ব্যানার, রঙ্গিন পতাকা, ফুলে সাজানো হচ্ছে নৌ-যান গুলো। এর মধ্যে রয়েছে, বিশাল আকৃতির যাত্রীবাহী লঞ্চও।

সখিপুর থানা আওয়ামী লীগের সভাপতি হুমায়ূন কবির মোল্যা বলেন, সেতুর উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে আমাদের শরীয়তপুর-২ আসনের বিভিন্ন ঘাট থেকে যাত্রীবাহী লঞ্চ যাবে ১৫টি এবং ট্রলার যাবে ১৫০টি। এছাড়া বিভিন্ন ব্যক্তি উদ্যোগে বিভিন্ন নৌযান, সড়কপথে বিভিন্ন পরিবহন ছেড়ে যাবে। মোট ২০ হাজারেরও অধিক লোক অনুষ্ঠানস্থলে উপস্থিত হবে এসব পরিবহণের মাধ্যমে।

গৌরাঙ্গবাজার ঘাটের বাসিন্দা আজহার মোল্যা, সুজন মিয়া বলেন, আমাদের অনেক স্বপ্ন ছিল পদ্মা সেতু নিয়ে তা আজ পূরণ হয়েছে। দীর্ঘ দিনের সখ এ সেতু দেখতে যাব। তাই উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে নৌকা সাজিয়ে নিয়ে যাব।

কাঁচিকাটা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান নুরুল আমিন দেওয়ান বলেন, আমাদের ইউনিয়ন থেকে ২ শতাধিক লোক প্রস্তুতি নিয়েছে পদ্মা সেতুর সভাস্থলে যোগ দেওয়ার জন্য। ইনশাআল্লাহ সব কিছু ঠিক থাকলে আমরা লঞ্চযোগে সেখানে পৌঁছাব।

উল্লেখ্য, আগামী ২৫ জুন পদ্মা সেতু উদ্বোধন অনুষ্ঠানে অংশ নিচ্ছে দক্ষিণাঞ্চলের বিভিন্ন জেলার লাখ লাখ জনগণ। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সেতুর উদ্বোধন করবেন।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন

ঘটনাপ্রবাহ : পদ্মা সেতু নির্মাণ