যেসব শর্তে সিলেটে জাতীয় ঐক্যফ্রন্টকে সমাবেশের অনুমতি

  যুগান্তর রিপোর্ট ২১ অক্টোবর ২০১৮, ২১:২৪ | অনলাইন সংস্করণ

যেসব শর্তে সিলেটে জাতীয় ঐক্যফ্রন্টকে সমাবেশের অনুমতি
জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট নামে নতুন জোটের আত্মপ্রকাশ অনুষ্ঠানে বিভিন্ন দলের নেতারা। ছবি: যুগান্তর

অবশেষে ২৪ অক্টোবর সিলেটে জাতীয় ঐক্যফ্রন্টকে সমাবেশ করার অনুমতি দিয়েছে পুলিশ। তবে এ জন্য ঐক্যফ্রন্টকে ১৪টি শর্ত জুড়ে দেয়া হয়েছে।

রোববার সিলেট জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক আলী আহমদকে লিখিতভাবে এ অনুমোদনের বিষয়টি জানান নগর পুলিশের বিশেষ শাখার উপকমিশনার।

মহানগর পুলিশ কমিশনার মো. গোলাম কিবরিয়া সমাবেশের অনুমতির বিষয়টি যুগান্তরকে নিশ্চিত করেছেন।

জাতীয় ঐক্যফ্রন্টকে দেয়া শর্তগুলো হলো-

১। অনুষ্ঠানের স্থলে পর্যাপ্ত সংখ্যক নিজস্ব পুরুষ-মহিলা স্বেচ্ছাসেবক নিয়োগ করতে হবে।

২। রাষ্ট্রবিরোধী কোনো ধরনের বক্তব্য ও বিবৃতি দেয়া যাবে না।

৩। সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি নষ্ট করে, কিংবা ধর্মীয় অনুভূতি বা মূল্যবোধের ওপর আঘাত হানে- এ ধরনের বক্তব্য ও বিবৃতি প্রদান বা কোনো ব্যানার ফেস্টুন, প্লেকার্ড প্রদর্শন করা যাবে না।

৪। জনসাধারণের চলাচলের রাস্তায় কোনো প্রকার প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি করা যাবে না।

৫। নির্ধারিত স্থানে নির্দিষ্ট সময়ের মধ্যে (২টা থেকে ৫টা) কর্মসূচি সম্পন্ন করতে হবে।

৬। আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতির অবনতি ঘটিয়ে জানমালের ক্ষয়ক্ষতি করার আশঙ্কা সৃষ্টি করে- এ ধরনের বক্তব্য প্রদান করা যাবে না বা এরূপ কথাসম্বলিত ব্যানার, ফেস্টুন, প্ল্যাকার্ড প্রদর্শন করা যাবে না।

৭। মাইক, শব্দযন্ত্র ব্যবহারের ফলে আশপাশের লোকজনের যাতে কোনো ধরনের অসুবিধা না হয় তা নিশ্চিত করতে হবে।

৮। ব্যাগ, সিগারেট, দিয়াশলাই, লাইটার ইত্যাদি নিয়ে অনুষ্ঠানস্থলে প্রবেশ করা যাবে না।

৯। কোনো ধরনের লাঠিসোঁটা, ধারালো অস্ত্র কিংবা লাঠি সংযুক্ত ব্যানার, ফেস্টুন ইত্যাদি বহন করা যাবে না।

১০। কোনো ধরনের বৈধ অস্ত্র সঙ্গে আনা বা বহন করা যাবে না।

১১। সুরমা পয়েন্ট থেকে তালতলা পয়েন্ট পর্যন্ত রাস্তার উভয়পাশে কোনো গাড়ি পার্কিং করা যাবে না।

১২। অনুষ্ঠানস্থলে আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতির অবনতি ঘটলে আয়োজনকারী কর্তৃপক্ষ দায়ী থাকবে।

১৩। এসব শর্তাবলীর যে কোনো একটি বা একাধিক শর্ত লঙ্ঘন বা অমান্য করা হলে সংশ্লিষ্টদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

১৪। কর্তৃপক্ষ কোনো কারণ দর্শানো ব্যতিরেকে উক্ত অনুমতি আদেশ বাতিল করার ক্ষমতা সংরক্ষণ করে।

এসব শর্তগুলো মানলে সিলেট রেজিস্ট্রারি মাঠে প্রথমবারের মতো সমাবেশ করতে পারবে জাতীয় এক্যফ্রন্ট।

এর আগে গত ২৩ অক্টোবর সিলেট রেজিস্ট্রারি মাঠে সমাবেশ করার অনুমতি চায় ঐক্যফ্রন্ট। ওইদিন অনুমতি না পেয়ে পরদিন একই স্থানে সমাবেশ করার জন্য অনুমতি চাওয়া হয়।

সে আবেদনও ঝুলিয়ে রাখে পুলিশ প্রশাসন। এ অবস্থায় রোববার দুপুরে হাইকোর্টে রিট করেন বিএনপি নেতা আলী আহমদ। সোমবার এই রিটের শুনানির তারিখ ধার্য করেন আদালত। তবে শুনানির আগেই পুলিশ সমাবেশের অনুমতি দেয়।

গত ১৩ অক্টোবর বিএনপিকে নিয়ে গণফোরামের সভাপতি, জাতীয় ঐক্যপ্রক্রিয়ার আহ্বায়ক ও বিশিষ্ট আইনজীবী ড. কামাল হোসেনের নেতৃত্বে জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের আত্মপ্রকাশ হয়। ঐক্যপ্রক্রিয়া, নাগরিক ঐক্য ও জেএসডি যুক্ত রয়েছে ঐক্যফ্রন্টে।

ঘটনাপ্রবাহ : বৃহত্তর জাতীয় ঐক্য

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৮

converter