মইনুল হোসেনের ওপর হামলায় ড. কামালের ক্ষোভ, মুক্তি দাবি

প্রকাশ : ০৪ নভেম্বর ২০১৮, ২০:২৮ | অনলাইন সংস্করণ

  যুগান্তর রিপোর্ট

ড. কামাল হোসেন ও (ডানে) রংপুর আদালতে পুলিশি হেফাজতে ব্যারিস্টার মইনুল হোসেন। ছবি: যুগান্তর

কারাবন্দি সাবেক তত্ত্বাবধায়ক সরকারের উপদেষ্টা ব্যারিস্টার মইনুল হোসেনকে পুলিশি হেফাজতে রংপুর আদালতে হাজিরা দেয়ার সময় তার ওপর হামলার ঘটনায় ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের শীর্ষ নেতা ও গণফোরাম সভাপতি ড. কামাল হোসেন। 

রোববার এক বিবৃতিতে ড. কামাল এ ক্ষোভ প্রকাশ করেন।

এর আগে গ্রেফতারকৃত অবস্থায় রংপুর আদালতে তাকে হাজিরা দিতে নিয়ে গেলে সেখানে আওয়ামী লীগ, যুবলীগ ও ছাত্রলীগের কর্মীরা তার ওপর আক্রমণ করে তাকে শারীরিকভাবে লাঞ্ছিত করে।

এ ঘটনায় ক্ষোভ জানিয়ে ড. কামাল বিবৃতিতে বলেন, ‘পুলিশি হেফাজতে আদালতে তার ওপর আক্রমণ অত্যন্ত গর্হিত ও ন্যাক্কারজনক কাজ।  আমি এ ঘটনার তীব্র নিন্দা জানাই ও জড়িতদের বিরুদ্ধে আইনি ব্যবস্থা নেয়ার জোর দাবি জানাই। একই সঙ্গে ব্যারিস্টার মইনুল হোসেনের অবিলম্বে মুক্তি দাবি করছি।’

এদিকে রোববার বিকালে আরামবাগে গণফোরামের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের সমন্বয় কমিটি বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়।

বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান মো. শাহাজাহান, বরকত উল্লাহ বুলু, হাবিবুর রহমান হাবিব, মমিনুল ইসলাম, আব্দুল মালেক রতন, শহিদুদ্দিন মাহমুদ স্বপন, জাতীয় ঐক্য প্রক্রিয়ার আওম শফিক উল্লাহ, জগলুল হায়দার আফ্রিক, মোস্তাক আহমেদ, বিকল্পধারার সভাপতি অধ্যাপক নুরুল আমিন ব্যাপারী ও মহাসচিব শাহ্ আহমেদ বাদল প্রমুখ এ সময় উপস্থিত ছিলেন। 

এ ছাড়াও বিকাল ৫টার পর মতিঝিলে বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ব্যারিস্টার মওদুদ আহমেদের চেম্বারে বৈঠক করেন জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের স্টিয়ারিং কমিটির সদস্যরা। 

বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর, স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন, নাগরিক ঐক্যের আহ্বায়ক মাহমুদুর রহমান মান্না, জেএসডির সভাপতি আসম আব্দুর রব, গণফোরামের নির্বাহী সভাপতি সুব্রত চৌধুরী, সাধারণ সম্পাদক মোস্তফা মহসিন মন্টু, জাতীয় ঐক্য প্রক্রিয়ার সুলতান মোহাম্মদ মনসুর এ সময় উপস্থিত ছিলেন।