এই সরকারের কবল থেকে মুক্তি চাই: মান্না

  যুগান্তর রিপোর্ট ০৪ ডিসেম্বর ২০১৮, ২২:৪৫ | অনলাইন সংস্করণ

এই সরকারের কবল থেকে মুক্তি চাই: মান্না
নাগরিক ঐক্যের আহ্বায়ক মাহমুদুর রহমান মান্না। ছবি: যুগান্তর

গুম ও হত্যাকাণ্ডের ঘটনাগুলোর জন্য দায়ী করে সরকারকে রাক্ষসের সঙ্গে তুলনা করেছেন নাগরিক ঐক্যের আহ্বায়ক মাহমুদুর রহমান মান্না।

মঙ্গলবার জাতীয় প্রেসক্লাবে ‘মায়ের ডাক’ নামে একটি সংগঠনের উদ্যোগে ‘গুম হওয়ার ৫ বছর শেষ আর অপেক্ষা কত দিন’ শীর্ষক এক আলোচনায় বক্তব্য রাখেন তিনি।

মান্না বলেন, এই সরকারের কোনো দয়ামায়া নেই। আমরা এই সরকারের কবল থেকে মুক্তি চাই।

গত ৬ বছরে গুম হওয়া বেশ কয়েকজনের পরিবারের সদস্যরা এই অনুষ্ঠানে নিজেদের স্বজনকে ফিরে পাওয়ার আকুতি জানান; অনেকে কান্নায়ও ভেঙে পড়েন।

তখন মান্না বলেন, ‘কেঁদে কী করবেন? যারা ক্ষমতায় আছে, যারা কিছু করতে পারে আপনাদের জন্য, ওরা সবাই দায়িত্বজ্ঞানহীন, ওরা রাক্ষসের মতো। রাক্ষস যেমন মানুষ খায়, এই সরকার মানুষ খেয়ে ফেলছে।’

গুম হওয়া সুমনের মা হাজেরা খাতুনের সভাপতিত্বে এই অনুষ্ঠানে আরও বক্তব্য রাখেন বাসদের সাধারণ সম্পাদক খালেকুজ্জামান, জাতীয় মুক্তি কাউন্সিলের সাধারণ সম্পাদক ফয়জুল হাকিম লালা, গণসংহতি আন্দোলনের নেতা জোনায়েদ সাকি, বিএনপির কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য তাবিথ আউয়াল প্রমুখ।

পাঁচ বছর আগে নিখোঁজ হওয়া ঢাকা মহানগরের ২৫ নম্বর ওয়ার্ড বিএনপির সাধারণ সম্পাদক সাজেদুল ইসলাম সুমনের বড় বোন মারুফা ইসলাম ফেরদৌসী অনুষ্ঠানে বলেন, আমার মতো আরও ২২ পরিবারের স্বজনরা এখানে উপস্থিত আছে। সবার দাবি, তাদের স্বজন ফিরে আসুক।

সুমনের কিশোরী মেয়ে হাফসা ইসলাম রাইদা চিৎকার করে বলেন, বাবাকে খুঁজতে সব জায়গায় গেছি, কিন্তু কোথাও পাইনি। এ কেমন দেশ।

নিখোঁজ হওয়া মারুফ জামানের ছোট মেয়ে সামিরা জামান বলেন, এক বছর হলো আমার বাবা নিখোঁজ, এখনও তাকে পাচ্ছি না।

নিখোঁজ সোহেলের শিশু মেয়ে সাফা বলে, ভালো লাগে না। বাবাকে নিয়ে স্কুলে যাব।

নিখোঁজ আব্দুল কাদের মিয়া মাসুমের মা আয়শা আলী বলেন, আমরা সাধারণ নাগরিক। সন্তানই আমার সম্পদ। নতুন বছরে সন্তানকে ফিরে পাওয়ার আশা করি।

পুরান ঢাকার বংশালের নিখোঁজ আদনানের বাবা এরশাদ আলী, সেলিম রেজা পিন্টুর বোন রেহেনা বেগমও স্বজনদের ফিরে পাওয়ার আকুতি জানান। সিলেটে আহত ছাত্রদলের এক কর্মী পুলিশের নির্যাতনের বর্ণনা দেন এই অনুষ্ঠানে।

মান্না বলেন, আমি আগেও এই অনুষ্ঠানে এসেছি। দেখেছি স্বজনদের জন্য পুরো হল কান্নায় ভেঙে পড়েছে। যতজনের নিখোঁজের কথা বলা হচ্ছে, তারা সবাই কি বেঁচে আছে? এই সরকার যত দিন ক্ষমতায় আছে, তত দিন এসব প্রশ্নের জবাব পাবেন না।

জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের নেতা মান্না বলেন, অতএব লড়াই একটাই, সেটা হচ্ছে এদের কবল থেকে মুক্তি চাই।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের আইন বিভাগের অধ্যাপক আসিফ নজরুল বলেন, গুম হচ্ছে সব থেকে জঘন্য অপরাধ। এটা খুনের থেকেও জঘন্য। পৃথিবীর বিভিন্ন আইনে যে সংজ্ঞা দেয়া আছে, সেখানেও এটাকে চরম জঘন্য অপরাধ হিসেবে সংজ্ঞায়িত করা আছে। বিভিন্ন আন্তর্জাতিক আইনে বলা হয়েছে- গুম বা খুন যখন পরিকল্পিত এবং ব্যাপক সংখ্যায় হয়, তখন সেটাকে আমরা মানবতাবিরোধী হিসেবে বলতে পারি।

আসিফ নজরুল বলেন, আমাদের দেশে যতগুলো গুমের ঘটনা ঘটেছে অধিকাংশ ক্ষেত্রেই শিকার হয়েছেন সরকারবিরোধী যারা রাজনীতি করেন। কাজেই আমাদের ভাবার কারণ রয়েছে গুম হয়েছে পরিকল্পিতভাবে এবং সংখ্যার দিক থেকেও এটা ব্যাপক। কাজেই আমি মনে করি, গুমের শিকার হওয়া যেসব পরিবার আছেন আপনারা যদি দেশে বিচার না পান, আন্তর্জাতিক অপরাধ হিসেবে এর বিচার পাওয়ার জন্য আন্তর্জাতিক আদালতে চেষ্টা করবেন।

ঘটনাপ্রবাহ : বৃহত্তর জাতীয় ঐক্য

আরও
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

converter
×