জনগণের ভালোবাসা ছাড়া ভোট পাওয়া যায় না: নাসিম

প্রকাশ : ৩১ ডিসেম্বর ২০১৮, ২১:৪৩ | অনলাইন সংস্করণ

  সিরাজগঞ্জ প্রতিনিধি

মোহাম্মদ নাসিম। ছবি: সংগৃহীত

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ভোটের মাধ্যমে এ দেশের মানুষ স্বাধীনতাবিরোধী অপশক্তিকে সমুচিত জবাব দিয়েছে। এমন মন্তব্য করেন আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য ও স্বাস্থ্যমন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিম। 

১৪ দলের এই মুখপাত্র বলেন, নৌকার অবিস্মরণীয় বিজয় হয়েছে। এ বিজয় গণতন্ত্রের বিজয়, মুক্তিযুদ্ধের পক্ষের শক্তির বিজয়, বঙ্গবন্ধুকন্যা শেখ হাসিনার বিজয়।

সোমবার দুপুরে মোহাম্মদ নাসিম তার নির্বাচনী এলাকা কাজিপুরে দলীয় নেতাকর্মী ও গণমানুষের সঙ্গে নির্বাচনোত্তর শুভেচ্ছা বিনিময় অনুষ্ঠানের বক্তব্যে এ কথা বলেন। 

কাজিপুরে উপজেলা আওয়ামী লীগ কার্যালয় ও পিপুলবাড়িয়া বাজারে মনসুর নগর থানা আওয়ামী লীগ কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত পৃথক দুটি শুভেচ্ছা বিনিময় অনুষ্ঠানে মোহাম্মদ নাসিম বলেছেন- ভোটের মাধ্যমে এ দেশের জনগণ বঙ্গবন্ধুকন্যা শেখ হাসিনার আহ্বানে নৌকা মার্কাকে বিজয়ী করে প্রমাণ করেছে আওয়ামী লীগ মানেই উন্নয়ন, শেখ হাসিনাই কেবল উন্নয়নের নেত্রী। উন্নয়ন এবং জনগণের ভালোবাসা ছাড়া ভোট পাওয়া যায় না। 

নির্বাচনী ফলাফল ঘোষণার পর রোববার গভীর রাত এবং সোমবার সকাল থেকেই কাজিপুর ও সিরাজগঞ্জ সদরের একাংশ নিয়ে গঠিত সিরাজগঞ্জ-১ আসনের আওয়ামী লীগ মনোনীত নৌকা মার্কার বিজয়ী প্রার্থী মোহাম্মদ নাসিমকে দলীয় নেতাকর্মী, বিভিন্ন সামাজিক-সাংস্কৃতিক সংগঠন ও সাধারণ মানুষ ফুলেল শুভেচ্ছায় সিক্ত করেন। 

একটি অবাধ, সুষ্ঠু ও শান্তিপূর্ণ নির্বাচনে বঙ্গবন্ধুকন্যা শেখ হাসিনার নেতৃত্বে আওয়ামী লীগের ভূমিধস বিজয় উল্লেখ করে মোহাম্মদ নাসিম বলেছেন- স্বাধীন ভারতের প্রথম প্রধানমন্ত্রী জওহরলাল নেহেরুর পর বঙ্গবন্ধুকন্যা শেখ হাসিনাই চারবার প্রধানমন্ত্রীর পদে আসীন হয়েছেন। 

তিনি আরও বলেছেন, এই নির্বাচনে প্রমাণ হয়েছে বিএনপি জামায়াতের সাংগঠনিক ভিত্তি ভেঙে চুরমার হয়ে গেছে। তারা আর কোমর সোজা করে দাঁড়াতে পারবে কিনা এমন সন্দেহ প্রকাশ করে স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেছেন, আওয়ামী লীগ প্রতিহিংসার রাজনীতি করে না। নির্বাচনে বিজয়কে মোহাম্মদ নাসিম বড় চ্যালেঞ্জ হিসেবে গ্রহণ করে দলীয় নেতাকর্মীদের আরও ধৈর্য ধারণ করে বিনয়ের সঙ্গে উন্নয়ন কর্মকাণ্ডে শরিক হওয়ার আহ্বান জানান। 

এদিন দুপুরে অনুষ্ঠান শেষে ঢাকায় ফেরার পথে সীমান্ত বাজার, ঘোড়াচড়া, ছোনগাছা, শাহানগাছাসহ বিভিন্ন স্থানে দলের নেতাকর্মীরা ফুল ছিটিয়ে তাকে অভিনন্দন জানায়। নির্বাচনে তিনি রেকর্ডসংখ্যক ভোট পেয়ে প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থীকে বিশাল ব্যবধানে পরাজিত করে বেসরকারিভাবে নির্বাচিত হয়েছেন। জেলা রিটার্নিং কর্মকর্তা ও জেলা প্রশাসক কামরুন নাহার সিদ্দীকাসহ জেলা প্রশাসনের কর্মকর্তারা সোমবার দুপুরে তার কাছে এই ফলাফল হস্তান্তর করেন। 

বেসরকারিভাবে ঘোষিত এই ফলাফলে তার নির্বাচনী এলাকার মানুষ দলীয় কার্যালয়ে বিশেষ দোয়া মাহফিলের আয়োজন করে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবসহ তার পরিবারের সব সদস্য, শহীদ এম. মনসুর আলীসহ জাতীয় চার নেতা ও মুক্তিযুদ্ধে শহীদদের আত্মার শান্তি কামনা করেন। একই সঙ্গে বঙ্গবন্ধুকন্যা শেখ হাসিনা ও মোহাম্মদ নাসিমের সুস্বাস্থ্য ও দীর্ঘায়ু কামনা করে দোয়া করা হয়।

কাজিপুর এবং পিপুলবাড়িয়া বাজারে দলীয় কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত শুভেচ্ছা বিনিময় অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন, যথাক্রমে শওকত হোসেন ও আব্দুল লতিফ তারিণ। অন্যদের মধ্যে সাবেক এমপি তানভীর শাকিল জয়, আওয়ামী লীগ জাতীয় কমিটির সদস্য অ্যাড. কেএম হোসেন আলী হাসান, মোজাম্মেল হক বকুল, খলিলুর রহমান, সাবেক সিভিল সার্জন ডা. শামসুদ্দিন, গোলাম রব্বানী, ইউপি চেয়ারম্যান জাহাঙ্গীর আলম, শহিদুল আলম প্রমুখ।